কলারোয়ায় ৯ ব্যক্তি আটক


375 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
কলারোয়ায় ৯ ব্যক্তি আটক
সেপ্টেম্বর ২১, ২০১৫ কলারোয়া ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

কে এম আনিছুর রহমান, কলারোয়া প্রতিনিধি :
সাতক্ষীরার কলারোয়ায় পলাতক আসামীসহ ৫ ব্যক্তিকে আটক করেছে থানা পুলিশ। রোববার রাত থেকে সোমবার সকাল পর্যন্ত উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদেরকে আটক করা হয়। আটককৃতরা হলেন-উপজেলার রামভদ্রপুর গ্রামের নবাব আলি সরদারের ছেলে আবুল বাসার (৩২), উপজেলার ওফাপুর গ্রামের আকবার জোমার্দ্দারের ছেলে আজারুল ইসলাম (২২) পশ্চিম খোরদো গ্রামের মফিজউদ্দীন গাজির ছেলে শামসুর রহমান (৫২) বাটরা গ্রামের মৃত মতিয়ার মোড়লের ছেলে আজারুল ইসলাম পাইলট (২৭) ও পৌরসদর গোপিনাথপুর গ্রামের মৃত মোন্তাজ সরদারের ছেলে সোহরাব হোসেন (৪২)। আটক আবুল বাসারের বিরুদ্ধে জি আর (নং-২৪) মামলার ওয়ারেন্ট,এবং অন্য ৪ জন কলারোয়া থানার  (নং-২৬) মামলার সন্দেহভাজন আসামী হওয়ায় তাদেরকে আটক করে সাতক্ষীরা আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানোহয়েছে বলে থানার অফিসার ইনচার্জ শেখ আবু সালেহ মাসুদ করিম জানান।

এদিকে, পুলিশ পৃথক অভিযানে শ্রমিকলীগ নেতাসহ ৪ মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করা হয়েছে । উপজেলার পৌর সদরের ঝিকরা গ্রাম ও গোয়ালচাতর বাজার থেকে তাদেরকে আটক করা হয়। আটককৃতরা হলো- উপজেলার পৌর সদরের সড়ক পরিবহণ শ্রমিকলীগের সাবেক সভাপতি ছিকরা গ্রামের মৃত লুৎফার রহমানের ছেলে মাদক ব্যবসায়ী মজনু রহমান (৫০), গোয়ালচাতর গ্রামের আনোয়ার আলির ছেলে তরিকুল ইসলাম (৩২) ব্রজবাকসা গ্রামের মৃত আছিরউদ্দিন দালালের ছেলে ফজলুর রহমান (৫০) ও বাটরা গ্রামের মৃত ছমিরউদ্দিন দালালের ছেলে আবুল কাশেম (৪০)।
কলারোয়া থানার অফিসার ইনচার্জ শেখ আবু সালেহ মাসুদ করিম জানান,সোমবার বিকাল সাড়ে ৪ টার দিকে তিনি জানতে পারেন ঝিকরা গ্রামের মাদক ব্যবসায়ী মজনুর রহমান বাড়ির সামনে রাস্তার উপর ফেনসিডিল বিক্রয় করছে। পরে থানার এ এস আই ইকবাল মাহমুদ সঙ্গীয় পুলিশ সদস্য তাকে ২০ বোতল ভারতীয় ফেনসিডিলসহ আটক করেন। অপরদিকে রোববার রাত ১১ টার দিকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারেন, উপজেলার গোয়ালচাতর বাজার মোড়ে বটগাছের নিচে বসে কয়েকজন ব্যক্তি ভারতীয় ফেনসিডিল ক্রয়-বিক্রয় করছে পরে থানার এসআই আহাদ আলী ও এএসআই ইকবল মাহমুদের নেতৃত্বে সঙ্গীয় পুলিশ সদস্যরা ওই স্থান ঘেরাও করে ১৫ বোতল ভারতীয় ফেনসিডিলসহ তাদেরকে আটক করে। এ ব্যাপারে কলারোয়া থানায়  পৃথক দুটি মামলা হয়েছে।