কলারোয়া সংবাদ ॥ চারবাড়ি সীমান্তে পাচারের কবল থেকে দুই যুবতী উদ্ধার


347 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
কলারোয়া সংবাদ ॥ চারবাড়ি সীমান্তে পাচারের কবল থেকে দুই যুবতী উদ্ধার
সেপ্টেম্বর ১৬, ২০১৫ কলারোয়া ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

কে এম আনিছুর রহমান, কলারোয়া প্রতিনিধি :
সাতক্ষীরার কলারোয়ায় সীমান্তে ভারতে পাচারের কবল থেকে দুই যুবতীকে উদ্ধার করেছে বিজিবি। তবে এ সময় পাচারকারীকে আটক করতে পারেনি। উদ্ধারকৃত দুই যুবতী হলেন-চাঁদপুর সদর উপজেলার গাজিস্কুল গ্রামের মুনীর হোসেনের মেয়ে সাদিয়া খাতুন (২০) ও ঢাকা সাভারের হেমায়েতপুর ঋষিপাড়া এলাকার রিপন হোসেনের মেয়ে রিফাত আরা (১৮)।
তলুইগাছা বিজিবি ক্যাম্পের কোম্পানী কমান্ডার সুবেদার হায়দার আলী জানান,মঙ্গলবার গভীর রাতে তার নেতৃত্বে উপজেলার সীমান্ত এলাকায় টহলকালে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারেন সীমান্তবর্তী চারাবাড়ি এলাকায় সোনাই নদীর তীরে পাচারকারীরা দুই যুবতীকে নিয়ে ভারতে পাচারের উদ্দেশ্যে দাড়িয়ে আছে। পরে তার নেতৃত্বে ওই স্থান থেকে ভারতে পাচারের কবল থেকে দুই যুবতীকে উদ্ধার করেন। তবে পাচারকারীরা বিজিবির উপস্থিতিটের পেয়ে দৌড়ে পালিয়ে যায়।
এ ব্যাপারে কলারোয়া থানায় একটি পার্সপোট আইনে মামলা হয়েছে বলে থানার অফিসার ইনচার্জ শেখ আবু সালেহ মাসুদ করিম জানান।
পার্সপোট আইনে মামলার ব্যাপারে সুবেদার হায়দার আলীর নিকট জানতে চাইলে তিনি জানান, কোন পাচারকারীকে আটক করতে না পারায় উদ্ধারকৃত দুই যুবতীর বিরুদ্ধে পার্সপোট আইনে মামলা হয়েছে।
##

কলারোয়ায় ৪ লক্ষাধিক টাকার পণ্য উদ্ধার

কলারোয়া প্রতিনিধি :
সাতক্ষীরার কলারোয়া সীমান্তে চোরাচালানীদের তাড়া করে ভারতীয় অ্যানাগ্রা ট্যাবলেট, রসুন ও একটি বাইসাইকেল উদ্ধার করেছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশে। তবে এ সময় বিজিবি সদস্যরা কাউকে আটক করতে পারেনি। সীমান্তবর্তী মাদরা বিজিবি ক্যাম্পের সুবেদার আব্দুর রব জানান, গত মঙ্গলবার গভীর রাতে তাঁর নেতৃত্বে বিজিবি সদস্যরা উপজেলার পাঁচপোতা গ্রামের পাকা রাস্তার উপর থেকে ৬ হাজার আ্যানাগ্রা ট্যাবলেট, ১০০ কেজি রসুন ও একটি বাইসাইকেল উদ্ধার করে। উদ্ধারকৃত পন্যের আনুমানিক মুল্য ৪ লাখ ২০ হাজার টাকা।
##
কলারোয়ায় ফেনসিডিল ও গাঁজাসহ ৪ ব্যক্তি আটক

কলারোয়া প্রতিনিধি :
সাতক্ষীরার কলারোয়ায় পৃথক অভিযান চালিয়ে ভারতীয় ফেনসিডিল ও গাঁজাসহ ৪ ব্যক্তিকে আটক করেছে থানা পুলিশ। মঙ্গলবার সন্ধ্যা থেকে বুধবার সকাল পর্যন্ত বুধবার সকালে উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদেরকে আটক করা হয়। আটককৃতরা হলো- উপজেলার সুলতানপুর গ্রামের আজিজুল ইসলামের ছেলে ইয়াছিন আলী একই গ্রামের সিরাজুল ইসলামের ছেলে আলাউদ্দীন,মাহমুদপুর গ্রামের আব্দুল হামিদের ছেলে হাসানুজ্জামান হাসান, পৌর সদরের ওসমান আলীর ছেলে ওয়ারেন্ট ভুক্ত আসামী শওকত হোসেন।
কলারোয়া থানার এস আই আব্দুল আহাদ জানান ,বুধবার সকাল সাড়ে ৮ টার দিকে গোপন সংবাদাদের ভিত্তিতে জানতে পারেন, উপজেলার মাহমুদপুর গ্রামের হাসানুজ্জামানের বাড়িতে ভারতীয় ফেনসিডিল বিক্রির উদ্যোশে রেখেছে। পরে তার নেতৃত্বে ওই বাড়ি থেকে সঙ্গীয় পুলিশ সদস্যরা হাসানুজ্জামানকে ৫১ বোতল ফেনসিডিসহ আটক করেন। অপরদিকে থানার এস আই সুব্রত বিশ্বাস জানান,  গত মঙ্গলবার গভীর রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারেন উপজেলার কাজীরহাট কলেজ মাঠে কয়েকজন  ব্যক্তি গাঁজা সেবনসহ ক্রয়-বিক্রয় করছে। পরে তার নেতৃত্বে ওই স্থান থেকে ৫ পুরিয়া গাঁজাসহ ইয়াসিন ও আলাউদ্দীনকে আটক করেন।  এ ব্যাপারে কলারোয়া থানায় পৃথক দুটি মামলা হয়েছে বলে থানার অফিসার ইনচার্জ শেখ আবু সালেহ মাসুদ করিম জানান।