কলারোয়া সংবাদ ॥ চোরাচালানী ও আইন শৃঙখলা কমিটির সভা


300 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
কলারোয়া সংবাদ ॥ চোরাচালানী ও আইন শৃঙখলা কমিটির সভা
নভেম্বর ১৪, ২০১৬ কলারোয়া ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

কে এম আনিছুর রহমান,কলারোয়া (সাতক্ষীরা) প্রতিনিধি
সাতক্ষীরার কলারোয়া উপজেলা পরিষদের আয়োজনে চোরাচালানী ও আইন শৃঙখলা কমিটির মাসিক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সোমবার বেলা ১১ টার দিকে উপজেলা পরিষদের হলরুমে পৃথকভাবে এ সভা দুটি অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলা নির্বাহী অফিসার উত্তম কুমার রায়ের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ফিরোজ আহম্মেদ স্বপন। অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন কলারোয়া থানার ওসি (তদন্ত) আখতারুজ্জামান, অধ্যক্ষ মুহা. আইয়ুব আলী, কলারোয়া প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক শেখ জুলফিকারুজ্জামান জিল্লু, সহকারী অধ্যাপক সাংবাদিক কে এম আনিছুর রহমান, এম এ সাজেদ, বীর মুক্তিযোদ্ধ কমান্ডার গোলাম মোস্তফা, ডাক্তার শফিকুল ইসলাম, ইউপি চেয়ারম্যান প্রধান শিক্ষক নুরুল ইসলাম, এস এম মনিরুল ইসলাম, মাহবুবুর রহমান মফে,মনোরঞ্জন সাহা,মাদরা বিওপির সুবেদার হায়দার আলী, কাকডাঙ্গা বিওপি’র সুবেদার জালালউদ্দীন প্রমুখ। সভা দুটিতে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় কলারোয়া রাস্তার দু’ধারে অবৈধ স্থাপনা সরানো, স্মৃতিসৌধ থেকে গরু হাট মোড় পর্যন্ত ট্রাকসহ গাড়ি পার্কিং বন্ধ করা, সকালে রাস্তার উপর ট্রাক রেখে বালি বিক্রয় বন্ধ করতে হবে, অবৈধভাবে সীমান্ত পার হয়ে ভারতে যাওয়া যাবে না,স্মৃতিস্তম্ভে পাশে ভ্যানসহ অন্যান্য যানবাহন রাখা যাবে না, হাসপাতালে বিভিন্ন ক্লিনিক ও প্যাথলোজি’র দালাল প্রবেশ নিষেধ, ১০ টাকা কেজি চালের কার্ডে অনিয়ম থাকলে সংশোধনসহ বিভিন্ন বিষয় নিয়ে এ দুটি সভায় সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় বলে জানা যায়।
####

কলারোয়ার পল্লীতে দিনে দুপরে চুরি !
কে এম আনিছুর রহমান,কলারোয়া :
সাতক্ষীরার কলারোয়াার পল্লীতে দিন-দুপুরে এক দুধর্ষ চুরি সংঘঠিত হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার রঘুনাথপুর গ্রামের মৃত ফজলুল করিমের ছেলে পরিবহনের সুপার ভাইজার ফরিদ আহমেদ (কাঞ্চন) এর বাড়িতে। এ ঘটনায় সোমবার সকালে থানা পুলিশ হারুন নামে এক চোরের সদস্যকে আটক করেছে। আটক হারুন একই গ্রামের মুছাব্দী মোড়লের ছেলে।
বাড়ির মালিক কাঞ্চনের স্ত্রী সালেহা খাতুন জানান, গত রোববার সকাল সাড়ে ৯ টার দিকে বাড়ির ঘরের দরজা ও বারান্দার গেটে তালা দিয়ে তার শিশু সন্তানকে স্কুলে রাখতে যায়। ছেলেকে স্কুলে রেখে ১০ টার দিকে বাড়ি ফিরে দেখে  কে বা কারা  বাড়ির বারান্দার গ্রীল কেটে ভিতরে প্রবেশ করে ঘরে দরজার তালা ভেঙ্গে ঘরে ঢুকে শোকেজের ড্রয়ার ভেঙ্গে নগত, দুইটি চার  আনা ওজনের স্বর্ণের রুলী,  বার আনা ওজনের স্বর্ণের চেইন, এক ভরি ওজনের চারটি কানের দুল,চার আনা ওজনের একটি আংটিসহ ৫ ভরি ওজনের স্বর্ণ এবং শাড়ি,লাইটসহ বিভিন্ন মালামাল চুরি করে নিয়ে যায়। যার আনু মানিক মুল্য ৩ লক্ষাধিক টাকা। এ ঘটনায় আটক হারুনসহ কয়েক জনের নাম উল্লেখ্য করে সোমবার কলারোয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করে। পরে পুলিশ অভিযান চালিয়ে হারুনকে আটক করতে সক্ষম হয় এবং ান্যরা পালিয়ে যায়।
কলারোয়া থানার অফিসার ইনচার্জ এমদাদুল হক শেখ জানান, চুরির ঘটনায় তার থানায় একটি মামলা নং-(১৫) হওয়ায় হারুনকে আটক করে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে এবং অন্য আসামীদের ধরার জন্য পুলিশ অভিযান অব্যহত রয়েছে।