কলারোয়া সংবাদ ॥ নাম সংকীর্তন ও ভাগবত আলোচনা


243 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
কলারোয়া সংবাদ ॥ নাম সংকীর্তন ও ভাগবত আলোচনা
জানুয়ারি ২৩, ২০২০ কলারোয়া ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

কে এম আনিছুর রহমান ::

সাতক্ষীরার কলারোয়ায় নাম সংকীর্তন ও ভাগবত আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার কলারোয়ার পৌরসভাধীন তুলসীডাংঙ্গা ঘোষ পাড়ায় মৃত. প্রভাস কুমার ঘোষের মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষ্যে নামসংকীর্তন ও ভাগবত আলোচনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। প্রয়াতের দু’পুত্র তপন কুমার ঘোষ ও পরিতোষ কুমার ঘোষের আয়োজনে নামসংকীর্তন পরিবেশন করে হরিবাসর সম্প্রদায়ের গায়ক মাস্টার উত্তম পাল, বাপ্পি হালদার প্রমুখ। ভাগবত পাঠ ও আলোচনা করেন কেশবপুর বালিয়াডাঙ্গার অনন্ত দাশ বাবাজী। পরে কির্তন পরিবেশন করা হয়। পরিতোষ কুমার ঘোষ জানান, তার পিতার আত্মার মঙ্গোলার্থে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি মনোরঞ্জন সাহা, কেঁড়াগাছি হরিদাস ঠাকুরের জন্মভিটা আশ্রমের সভাপতি প্রভাষক কার্তিক চন্দ্র মিত্র, উপজেলা হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক সন্দিপ রায়, সংগঠনটির উপজেলা ছাত্র ঐক্য পরিষদের সভাপতি উজ্জল দাস, সাধারণ সম্পাদক গোপাল ঘোষ বাবু, সাংগঠনিক সম্পাদক প্রান্ত দেবনাথ, যুব ঐক্য পরিষদের সভাপতি জয় দাস, কলারোয়া নিউজের সহ.সম্পাদক মিলন দত্ত, রিপোর্টার আদিত্য বিশ্বাস, গীতা পরিষদের সাধারণ সম্পাদক পল্লব মন্ডল বাপ্পা, রামলাল দত্ত, উত্তম ঘোষ, অর্জুন পাল প্রমুখ।

#

কলারোয়ার সোনাবাড়ীয়া হাইস্কুলে স্টুডেন্ট নির্বাচন ঘিরে উৎসব

কে এম আনিছুর রহমান ::

সাতক্ষীরার কলারোয়ার ঐতিহ্যবাহী সোনাবাড়ীয়া সম্মিলিত মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের স্টুডেন্ট কেবিনেট নির্বাচন ঘিরে যেন উৎসবের আমেজে ভাসছে শিক্ষার্থীরা। ২৫ জানুয়ারী (শনিবার) অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে এই স্টুডেন্ট কেবিনেট নির্বাচন। ওইদিন সকাল ৯টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত ভোটগ্রহণ চলবে। ইতোমধ্যে নির্বাচনের সব প্রস্তুতি শেষ সম্পন্ন করেছে সংশ্লিষ্টরা। নির্বাচনে ভোটার ও প্রার্থী স্কুলের শিক্ষার্থীরাই। স্টুডেন্ট কেবিনেট নির্বাচন ঘিরে বিদ্যালয়ের ভোটার ও প্রার্থীদের মধ্যে যেন আনন্দের কমতি নেই। বৃহস্পতিবার বিদ্যালয় প্রাঙ্গন ঘুরে এমনই দৃশ্য চোখে পড়ে। পোস্টারে পোস্টারে ছেড়ে গেছে পুরো বিদ্যালয় প্রাঙ্গনটি। যেন জাতীয় নির্বাচনের একটি ছায়াচিত্র এটি! স্টুডেন্ট কেবিনেট নির্বাচনের বিষয়ে জানতে চাইলে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আখতার আসাদুজ্জামান চাঁন্দু বলেন, বিদ্যালয়ে ছাত্রছাত্রী ভর্তি বৃদ্ধি, ঝরে পড়া রোধ, শিক্ষার মান বৃদ্ধি ও উন্নয়নমূলক কর্মকান্ডে শিক্ষার্থীদের সংশ্লিষ্ট করার লক্ষ্যেই এই স্টুডেন্ট কেবিনেট নির্বাচন। সৎ, যোগ্য ও সাহসী নেতৃত্বের হাতে আগামীর বাংলাদেশকে তুলে ধরতে এই প্রজন্মকে গণতান্ত্রিক শিক্ষায় শিক্ষিত করে তোলার বিকল্প নেই। স্টুডেন্ট কেবিনেট নির্বাচন এর অন্যতম সহায়ক হবে বলে আমি মনে করি। গত ১১ জানুয়ারি গঠিত হয় স্টুডেন্ট কেবিনেটের নির্বাচন কমিশন। সুমাইয়া সুলতানা রিয়া (১০ম শ্রেণি)কে প্রধান নির্বাচন কমিশনার নিযুক্ত করা হয়। এছাড়া শেখ নাঈম (১০ম শ্রেণি) ও মাহিম শাহরিয়ার (৯ম শ্রেণি)কে সহকারি নির্বাচন কমিশনার নিযুক্ত করা হয়। নির্বাচনে মোট প্রার্থী ১৩ জন, ভোটার ৭৪৪ জন। ভোটে নির্বাচিত হবে ৮ জন প্রার্থী। প্রিজাইডিং অফিসার ১জন, সহকারি প্রিজাইডিং অফিসার ৬জন, পোলিং অফিসার ১২ জন। মোট ৬টি বুথে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচনে সর্বোচ্চ ভোট পেয়ে বিজয়ী প্রার্থী দপ্তর বন্টনের কাজ সম্পন্ন করবে। দপ্তর সমূহ হলো- পরিবেশ সংরক্ষণ, পুস্তক ও শিখন সামগ্রী, স্বাস্থ্য, ক্রীড়া ও সংস্কৃতি ও সহপাঠ কার্যক্রম, প্রাণিসম্পদ, বৃক্ষরোপন ও বাগান তৈরি, দিবস ও অনুষ্ঠান উৎযাপন ও অভ্যর্থনা ও অ্যাপায়ন, আইসিটি। উল্লেখ্য, ভোটার তালিকা প্রকাশ ও তফসিল ঘোষণা করা হয় গত ১৩ জানুয়ারি। মনোনয়ন পত্র আহবান ১৪ জানুয়ারি, মনোনয়ন পত্র জমা ১৬ জানুয়ারি এবং মনোনয়নপত্র বাছাই ও বৈধ প্রার্থীর তালিকা প্রকাশ করা হয় ১৮ জানুয়ারি। এছাড়া মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার এবং চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ করা হয় ১৯ জানুয়ারি।

#

কলারোয়ার চন্দনপুর কলেজের নিয়োগ বোর্ড স্থপিত

কে এম আনিছুর রহমান ::

অনিয়মের অভিযোগে বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে খবর প্রকাশের পর অবশেষে নিয়োগ পরীক্ষার বোর্ড স্থগিত করা হয়েছে সাতক্ষীরার কলারোয়ার চন্দনপুর ইউনাইটেড কলেজে। একই সাথে ওই বিষয়ে সাতক্ষীরার বিজ্ঞ আদালত কর্তৃক কারণ দর্শানোরা আদেশ জারি করেছেন। ২৪ জানুয়ারী শুক্রবার কলারোয়া সরকারি কলেজে ওই নিয়োগ পরীক্ষার বোর্ড অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিলো। ২২ ও ২৩ জানুয়ারী বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে নিয়োগ পরীক্ষার আগে নিয়োগ প্রার্থীদের চূড়ান্ত ও অন্যান্য অনিয়মের অভিযোগ বিষয়ে সংবাদ প্রকাশিত হয়। এরপর ওই নিয়োগ পরীক্ষা স্থগিত করা হয়েছে। জানা গেছে- কলারোয়ার চন্দনপুর ইউনাইটেড কলেজে কয়েকটি পদে নিয়োগ পরীক্ষার বোর্ড অনুষ্ঠিত হওয়ার আগেই অর্থ বানিজ্যের অভিযোগে সাংবাদিকসহ বিভিন্ন দপ্তরে অভিযোগ দেন সংক্ষুব্ধরা। পাশাপাশি উপজেলার চন্দনপুর ইউনিয়নের কাদপুর গ্রামের নূর মোহাম্মদের পুত্র জাহিদ হাসান বাদি হয়ে সাতক্ষীরার বিজ্ঞ আদালতে মামলা (দে.৬/২০২০) দায়ের করেন। এতে চন্দনপুর কলেজের অধ্যক্ষসহ কয়েকজনকে বিবাদী করা হয়। বৃহষ্পতিবার (২৩জানুয়ারী) শুনানী শেষে সাতক্ষীরায় কলারোয়া সহকারী জজ আদালতের বিজ্ঞ বিচারক ৭দিনের মধ্যে কারণ দর্শানোর আদেশ প্রদান করেন। আদেশে বলা হয়েছে- ‘বাদী পক্ষের প্রার্থনা মোতাবেক কেন বিবাদী পক্ষের প্রতি অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা আরোপ প্রদান করা হইবে না তদমর্মে অত্র নোটিশ প্রাপ্তির ৭ (সাত) দিনের মধ্যে কারণ দর্শানোর জন্য বিবাদী পক্ষকে নির্দেশ প্রদান করা হইলো।’ এদিকে, একইদিন চন্দনপুর ইউনাইটেড কলেজের পরিচালনা পর্ষদের এক সভায় ওই নিয়োগ পরীক্ষা স্থগিত করা হয়েছে বলে কলেজের একাধিক শিক্ষক জানান। উল্লেখ্য, চন্দনপুর ইউনাইটেড কলেজে উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ে একজন অফিস সহকারী কাম কম্পিউটার অপারেটর, একজন ল্যাব সহকারী (তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি) ও একজন ল্যাব সহকারী (২য় পদ) পদে নিয়োগের জন্য গত ২৭নভেম্বর ২০১৯সালে পত্রিকায় নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি দেয়া হয়। সেখানে পদের প্রার্থীদের শিক্ষাগত যোগ্যতা উল্লেখ করা হয়নি। ব্যাংক ড্রাফটের কথা থাকলেও কোন ব্যাংকের শাখায় ড্রাফট করতে হবে সেটাও উল্লেখ নেই। ইতোমধ্যে ওই পদগুলোতে অনেকগুলো আবেদন জমা পড়লেও নিয়োগ দেয়ার জন্য সুমন হোসেন, আসমাউল হুসনা, মিলন হোসেন ও সাইফুল্যাহ’কে নিয়োগ পরীক্ষার আগেই নিয়োগের নিশ্চয়তা দিয়ে অর্থ বানিজ্যের অভিযোগ আনেন সংক্ষুব্ধ অপর প্রার্থী ও এলাকার কয়েকজন সচেতন ব্যক্তি। অভিযোগে আরো বলা হয়- উল্লেখিত ব্যক্তিদের কাছ থেকে অর্থ বানিজ্যের মাধ্যমে যোগসাজশ করে তাদের নিয়োগ দেয়ার পায়তারা চলছে। চন্দনপুর কলেজের সুউচ্চ ভবন ও সুন্দর পরিবেশ থাকলেও এলাকার মানুষের চাহিদাকে অগ্রাহ্য করে আগামি ২৪জানুয়ারী শুক্রবার সকালে ওই নিয়োগ বোর্ড করা হচ্ছে কলারোয়া সরকারি কলেজে। এখানেও প্রশ্ন উঠেছে এলাকার মানুষের কাছে। অভিযোগ সূত্রে আরো জানা গেছে- ২০১৮সালের জনবল কাঠামো ও এমপিও নীতিমালায় অফিস সহকারী কাম কম্পিউটার অপারেটর এবং ল্যাব সহকারী পদে নিয়োগের শর্তে বলা হয়েছে যে, কলেজে সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ল্যাব আছে কিনা তা সংশ্লিষ্ট বিষয়ের বিশেষজ্ঞ কর্তৃক প্রত্যয়নপত্রের দ্বারা নিশ্চিত হয়ে ডিজির প্রতিনিধি নিয়োগ পরীক্ষা গ্রহণ করবেন। কিন্তু বুধবার (২২জানুয়ারী) পর্যন্ত কোন বিশেষজ্ঞ চন্দনপুর কলেজের ল্যাব পরিদর্শন করেননি। অর্থাৎ বাস্তবে এখন পর্যন্ত সরেজমিনে ল্যাব পরিদর্শনপূর্বক প্রত্যায়ন নেয়া হয়নি। তবে কোন বিশেষজ্ঞ দ্বারা যদি প্রত্যায়ন নেয়া হয়ে থাকে তবে সেক্ষেত্রেও জালজালিয়াতীর আশ্রয় নেয়া হয়েছে। এ বিষয়ে সংক্ষুব্ধ প্রার্থীরা নিয়োগ বানিজ্যের আশংকা প্রকাশ করে কয়েকটি দপ্তরে দরখাস্ত দেন। পাশাপাশি স্বচ্ছ প্রক্রিয়ায় নিয়োগ বোর্ড নিশ্চিত না হওয়া পর্যন্ত ২৪তারিখে বোর্ড স্থগিতের দাবি জানিয়েছিলেন। সেলফোনে এ বিষয়ে অধ্যক্ষ গাজী রবিউল ইসলামের সাথে কথা হলে বলেছিলেন- ‘যে কেউ অভিযোগ দিতে পারে। নিয়োগ বোর্ড যেখানে খুশি করি।’ অর্থ বানিজ্যের অভিযোগটি অস্বীকার করে তিনি এটি মিথ্যা ও বানোয়াট বলে দাবি করেন।

#

কলারোয়া বেত্রবতী হাইস্কুলে এসএসসি পরীক্ষার্থীদের বিদায় অনুষ্ঠান

কে এম আনিছুর রহমান ::

সাতক্ষীরার কলারোয়া উপজেলার সদরের বেত্রবতী আদর্শ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ১৮তম এসএসসি ব্যাচের বিদায়ী সংবর্ধনা ও নবাগত শিক্ষার্থীদের নবীন বরণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে স্কুল প্রাঙ্গণে ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি আলহাজ্ব ডা. আব্দুল জব্বারের সভাপতিত্বে ওই সংবর্ধনা ও নবীন বরণ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এবছর বিদ্যালয় হতে ৫০ জন ছাত্র-ছাত্রী এসএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করবে। প্রতিষ্ঠানের প্রধান শিক্ষক সাংবাদিক রাশেদুল হাসান কামরুল শুভেচ্ছা বক্তব্যে বলেন- ‘শিক্ষাই জাতির মেরুদন্ড, একটি শিক্ষিত তারুণ্য পারে উন্নত জাতি উপহার দিতে।’ সিনিয়র শিক্ষক মশিউর রহমান ও আবু বকর সিদ্দিকের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন ও উপস্থিত ছিলেন- পৌর কাউন্সিলর লুৎফুন্নেছা লুতু, অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক গণপতি বিশ্বাস,ম্যানেজিং কমিটির সদস্য আবদুল মোমিন, রোজিনা খাতুন, জাহাঙ্গীর হোসেন, ঠিকাদার শেখ শাহারুজ্জামান রুবেল, সহকারী শিক্ষক তজিবুর রহমান, আনারুল ইসলামসহ সুশীল সমাজের নাগরিক, শিক্ষক শিক্ষিকা প্রতিষ্ঠানের সকল ছাত্র-ছাত্রী ও অভিভাবকবৃন্দ। অনুষ্ঠানে নবাগত শিক্ষার্থীদের ফুল দিয়ে বরণ করে নেয় বিদ্যালয়ের পুরাতন শিক্ষার্থীরা। অনুষ্ঠান শেষে বিশেষ দোয়া অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন ধর্মীয় শিক্ষক মাওলানা আব্দুদ দাইয়ান।

#

কলারোয়ার ইসলামপুর মাদ্রাসার দাখিল পরীক্ষার্থীদের বিদায় সংবর্ধনা

কে এম আনিছুর রহমান ::

কলারোয়ার ব্রজবাকসার ইসলামপুর দারুল উলুম দাখিল মাদ্রাসার ২০২০ সালের
দাখিল পরীক্ষার্থীদের বিদায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকাল ১১টার দিকে মাদ্রাসা প্রাঙ্গণে এই অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। ইসলামপুর দাখিল মাদ্রাসার সুপার মাওলানা এ এফ এম ইদ্রিস আলীর সভাপতিত্বে সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্হিত ছিলেন মাদ্রাসা পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি হেলাতলা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি শফিকুল ইসলাম। বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন সাতক্ষীরা কোর্টের আইনজীবি ও কলারোয়া মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ডের সভাপতি আশরাফুল আলম বাবু, বীর মুক্তিযোদ্ধা আকছেদ আলী, কলারোযা প্রেস ক্লাবের সদস্য সাংবাদিক সরদার জিল্লুর রহমান, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী আয়ুব আলী, মাদ্রাসার সহ সুপার মাওলানা আয়ুব হোসেন, ইউপি সদস্য সোহরাব হোসেন। এসময় মাদ্রাসার শিক্ষক-শিক্ষিকা ও ছাত্র ছাত্রীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। আগামি ৩ ফেব্রুয়ারী থেকে দেশব্যাপি এসএসসি ও দাখিল পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। এই মাদ্রাসা হতে ৩২ জন ছাত্র-ছাত্রী এবারের দাখিল পরীক্ষায় অংশ গ্রহন করবে। অনুষ্ঠানে বিদায়ী ছাত্র ছাত্রীদের বিদায় বাণী পাঠ করেন মাদ্রাসার নবম শ্রেনীর ছাত্রী আফরোজা খাতুন। সমগ্র অনুষ্ঠানটি সন্চালনা করেন মাদ্রাসার শরীরচর্চা শিক্ষক মাস্টার আমিরুল ইসলাম।

#

কলারোয়ায় ফুটবল প্রশিক্ষণের উদ্বোধন ও পুরস্কার বিতরণ

কে এম আনিছুর রহমান ::

সাতক্ষীরার কলারোয়ায় ফুটবল প্রশিক্ষণের উদ্বোধন ও দাবা প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণী
অনুষ্ঠিত হয়েছে। সাতক্ষীরা জেলা ক্রীড়া অফিস আয়োজিত মুজিব বর্ষ উপলক্ষে ২১দিন ব্যাপী ফুটবল প্রশিক্ষণের উদ্বোধন করা হয়। পাশপাশি দাবা প্রতিযোগিতা শেষে পুরস্কার বিতরণ করা হয়। বৃহস্পতিবার বিকালে কলারোয়া সরকারি জিকেএমকে পাইলট হাইস্কুল ফুটবল মাঠে এ উপলক্ষ্যে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কলারোয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আলহাজ্ব শেখ মুনীর-উল-গীয়াস। বিশেষ অতিথি ছিলেন কলারোয়া গার্লস হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক বদরুজ্জামান বিপ্লব, পাবালিক ইন্সটিটিউটের সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট শেখ কামাল রেজা, উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক জাহিদুর রহমান খান চৌধুরী। এসময় থানার এসআই রইছ উদ্দীন, এসআই ইসরাফিল হোসেন, ক্রীড়া সংগঠক রমজান আহম্মেদ, প্রভাষক রফিকুল ইসলাম, মাস্টার শেখ শাহাজাহান আলী শাহীন, কলারোয়া নিউজের ক্রীড়া রিপোর্টার হাবিবুর রহমান রনি, মো.সালাউদ্দীন, মঞ্জুরুল করিম, ফুটবল প্রশিক্ষক সুভাষ ও আরিফসহ অন্যান্যরা উপস্থিত ছিলেন। দাবা প্রতিযোগিতায় জার্জের দায়িত্ব পালন করেন ফারুক হোসেন স্বপন, রেজাউল করিম লাভলু, নাজমুল হাসনাইন মিলন ও মিজানুর রহমান। দাবা প্রতিযোগিতায় বালক (ছোট) ক্যাটাগরিতে চ্যাম্পিয়ন হন কলারোয়া সরকারি জিকেএমকে পাইলট হাইস্কুলের শিক্ষার্থী নাফিউজ্জামান নিশান। রানার্সআপ হন জাহিদুর রহমান। বালক (বড়) ক্যাটাগরিতে চ্যাম্পিয়ন হন ইব্রাহিম হোসাইন। রানার্সআপ হন শাহীন গাজী। বালিকা ক্যাটাগরিতে চ্যাম্পিয়ন হন কলারোয়া সরকারি জিকেএমকে পাইলট হাইস্কুলের শিক্ষার্থী এফরা তাসনিম দিবা। রানার্সআপ হন স্নিগ্ধা ভদ্র লিটা। ফুটবল প্রশিক্ষণে ৫১জন ছাত্র বিভিন্ন স্কুল থেকে অংশগ্রহণ করেন।

#