কলারোয়া সংবাদ ॥ পৌরসভায় প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটির সভা


106 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
কলারোয়া সংবাদ ॥ পৌরসভায় প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটির সভা
সেপ্টেম্বর ১, ২০১৯ কলারোয়া ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

কে এম আনিছুর রহমান ::

সাতক্ষীরার কলারোয়ায় আন্তর্জাতিক বেসরকারী উন্নয়ন সংস্থা প্র্যাকটিক্যাল এ্যাকশন কর্তৃক ওয়াস এসডিজি প্রকল্পের মাল্টি স্টেকহোল্ডার স্টেয়ারিং কমিটির এক গুরুত্বপূর্ন সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। রোববার সকালে পৌরসভায় বাস্তবায়নাধীন প্যানেল মেয়র শেখ জামিল হোসেনের সভাপতিত্বে পৌরসভা হলরুমে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন কমিটির কাউন্সিলরবৃন্দ ও পৌর কর্মকর্তাগণ,উপজেলা স্বাস্থ্য ও পঃ পঃ কর্মকর্তা, ডিপিএইচই প্রকৌশলী এবং সুশীল সমাজের প্রতিনিধিসহ পৌরসভার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ। অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন-প্র্যাকটিক্যাল এ্যাকশনের কলারোয়া প্রতিনিধি মিস শাহনাজ পারভীন মীনা।

#

কলারোয়ায় চিরনিন্দ্রায় শায়িত হলেন বিশিষ্ঠ ব্যবসায়ী আলহাজ্ব গোলাম রব্বানী

কে এম আনিছুর রহমান ::

সাতক্ষীরার কলারোয়ায় হাজারো মানুষের শ্রদ্ধা আর ভালবাসায় পিতা-মাতার কবরের পাশে চিরনিন্দ্রায় শায়িত হলেন বিশিষ্ঠ ব্যবসায়ী আলহাজ্জ্ব গোলাম রব্বানী (৮০)। রোববার যোহর নামাজের পর বিপুল সংখ্যক মুসুল্লীগণের উপস্থিতিতে কলারোয়া জিকেএমকে পাইলট হাইস্কুল ফুটবল মাঠে প্রথম জানাযা নামাজ অনুষ্ঠিত হয়। জানাযার নামাজ পূর্ব সংক্ষিপ্ত আলোচনায় কথা বলেন সাবেক সংসদ সদস্য আলহাজ্জ্ব বিএম নজরুল ইসলাম, সাবেক অধ্যক্ষ প্রফেসর আবু নসর, সাবেক অধ্যক্ষ আব্দুল মজিদ, সাবেক অধ্যক্ষ আবু বক্কর সিদ্দিক, ঝাউডাঙ্গা আলীয়া মাদ্রাসার সাবেক অধ্যক্ষ আলহাজ্জ্ব হযরত মাওলানা আব্দুল বারী, প্রয়াত গোলাম রব্বানীর ছোট ভাই প্রফেসর গোলাম কাদের প্রমুখ।
এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন-সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্জ্ব শেখ আবুল কাশেম, জেলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা সাজেদুর রহমান খান চৌধুরী মজনু, কলারোয়া পৌরসভার সাবেক মেয়র গাজী আক্তারুল ইসলাম, উপজেলা আ.লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সম মোর্শেদ আলী, পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি আজিজুর রহমান, চন্দনপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি অধ্যক্ষ গাজী রবিউল ইসলাম, জামায়াত নেতা শহিদুল ইসলাম মুকুল, মাওলানা আহম্মদ আলী সহ বিপুল সংখ্যক মুসুল্লীগণ। জানাযা নামাজ পরিচালনা করেন-প্রয়াত গোলাম রব্বানীর বড় পুত্র আলহাজ্জ্ব গোলাম আযম। পরে পৌর সদরের গোপিনাথপুর গ্রামের নিজ বাড়িতে দ্বিতীয় জানাযা নামাজ শেষে পারিবারিক কবরস্থানে কবরস্থ করা হয়। উল্লেখ্য, গত শনিবার বেলা সাড়ে ১০ টার দিকে ভারতের কলকাতার একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি ইন্তেকাল করেন। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী দুই ছেলে মেয়েসহ অসংংখ্য গুনাগ্রাহী রেখে গেছেন। তিনি পৌর সদরের গোপিনাথপুর গ্রামের মৌলভী মৃত আজিম উদ্দিনের ছেলে।

#

কলারোয়ার মেয়ে সুপ্রীয়া গাইন উচ্চ শিক্ষায় সুইডেন যাচ্ছেন

কে এম আনিছুর রহমান ::

সাতক্ষীরার কলারোয়া উপজেলার বোয়ালিয়া গ্রামের কৃতি সন্তান সুপ্রীয়া গাইন সুইডেনের উৎসালা বিশ্ববিদ্যালয়ে গ্লোবাল হেলথ্ এর উপর উচ্চতর ডিগ্রী গ্রহনের জন্য ২ সেপ্টেম্বর-১৯ সুইডেনের উদ্দেশ্যে বাংলাদেশ ছাড়বেন। সুপ্রীয়া গাইন সাতক্ষীরা জজকোর্টের প্রয়াত বিশিষ্ট আইনজীবী এ্যাডভোকেট কিনুলাল গাইন ও স্বর্ণ গাইনের কন্যা। তিনি উপজেলার ৫নং কেড়াগাছী ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান ভুট্টোলাল গাইন ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক প্রফেসর দুলাল চন্দ্র গাইনের ভাইঝি এবং বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের ও সাতক্ষীরা জেলা জজ কোর্টের বিশিষ্ট আইনজীবী সাগর সব্যসাচী গাইনের ছোট বোন।
সুপ্রীয়া গাইনের শিক্ষাজীবন শুরু হয় সাতক্ষীরা পুলিশ লাইন স্কুলে, এইচএসসি সাতক্ষীরা সিটি কলেজ এবং অনার্স ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে পুষ্টি বিজ্ঞান বিভাগে। পরবর্তীতে তিনি জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে মলিকুলার সাইন্স নিয়ে এমফিল ডিগ্রিতে অধ্যায়নরত ছিলেন। পাশাপাশি তিনি ইডেন মহিলা কলেজ ও বদরুন্নেছা মহিলা কলেজে গেস্ট টিচার হিসাবে শিক্ষকতা পেশায় নিয়োজিত ছিলেন। তিনি এবং তার পরিবার সাতক্ষীরা বাসীর নিকটে দোয়া ও আশির্বাদ কামনা করেছেন।

#

কলারোয়ায় মাছ চাষীদের মাঝে খাদ্য ও প্রদর্শনীয় সাইনবোর্ড বিতরণ

কে এম আনিছুর রহমান ::

সাতক্ষীরার কলারোয়ায় তেলাপিয়া মাছ চাষীদের মাছে খাদ্য উপকরণ ও প্রদর্শনীয় সাইনবোর্ড বিতরণ করা হয়েছে। রোববার বেলা ১১টার দিকে উপজেলার হেলাতলা বিথী সায়েন্টিফিক হ্যাচারী এন্ড ফিশারিজ অফিসে এ উপলক্ষে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। আলোচনা সভায় মাছ চাষীদের উদ্দেশ্যে বক্তব্য রাখেন কলারোয়া উপজেলা মৎস্য অফিসের সহকারী মৎস অফিসার শরিফুল ইসলাম ও হেলাতলা বিথী সায়েন্টিফিক হ্যাচারী এন্ড ফিশারিজ এর পরিচালক রফিকুল ইসলাম। এসময় উপস্থিত ছিলেন-তেলাপিয়া মাছ চাষী সাহাবুবার, ইশারুল, আকিজুল, নাছির হোসেন, ময়না, লাভলু, রেজাউল, আলম, সালাম, কুদ্দুসসহ এলাকার ৩৬জন চাষী। আলোচনা সভা শেষে প্রত্যেক চাষীর মধ্যে মাছের খাদ্য ও প্রদর্শনীয় সাইনবোর্ড বিতরণ করা হয়। উল্লেখ্য-এ মাছের খাদ্যে বিতরণের আয়োজন করেন-বিথী সায়েন্টিফিক হ্যাচারী এন্ড ফিশারিজ এবং কারিগরি সহায়তা করেন-ফিড দ্য ফিউচার বাংলাদেশ অ্যাকুয়াকালচার অ্যান্ড নিউট্রিশন এ্যক্ট্রিডিটি ওয়ার্ল্ডফিস বাংলাদেশ।

#