কলারোয়া সংবাদ ॥ ফেনসিডিলসহ তিন ব্যক্তি আটক


122 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
কলারোয়া সংবাদ ॥ ফেনসিডিলসহ তিন ব্যক্তি আটক
অক্টোবর ১৩, ২০১৯ কলারোয়া ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

কে এম আনিছুর রহমান ::

সাতক্ষীরার কলারোয়ায় পৃথক অভিযানে ফেনসিডিলসহ এক মাদক ব্যবসায়ী ও দুই মাদকসেবীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। শনিবার দিবাগত রাতে তারা আটক হয়। থানা সূত্র জানান- উপজেলার দক্ষিন ভাদিয়ালী গ্রামের ইউসুফ গাজীর পুত্র মাদক ব্যবসায়ী শামিম হোসেন (২০) কে ১০ বোতল ফেনসিডিলসহ আটক করে পুলিশ। অপরদিকে, উপজেলার ঝাপাঘাট গ্রামের শেখ আশরাফ আলীর পুত্র শেখ হেমায়েত সাগর ওরফে মমিন (৩০) ও একই গ্রামের আব্দুল জলিলের পুত্র তুহিন হোসেন (২২) কে মাদক সেবন অবস্থায় পুলিশ আটক করে।
কলারোয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শেখ মুনীর-উল-গীয়াস জানান, আটকদের রবিবার সাতক্ষীরার বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

#

কলারোয়ায় পল্লী চিকিৎসকদের প্রশিক্ষণ কর্মশালা

কে এম আনিছুর রহমান ::

সাতক্ষীরার কলারোয়ায় পল্লী চিকিৎসকদের নিয়ে প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে। রোববার সকালে উপজেলা পরিষদ অডিটোরিয়ামে ওই কর্মশালার আয়োজন করা হয়। পল্লী চিকিৎসকদের সক্ষমতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে এন্টিবায়োটিকের সুষ্ঠু ব্যবহার বিষয়ে আয়োজিত কর্মশালায় উপজেলার বিভিন্ন এলাকার অর্ধশতাধিক গ্রামডাক্তার অংশ নেন। কর্মশালায় প্রশিক্ষণ প্রদান করেন কলারোয়া উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা (টিএইচও) ডা. কামরুল ইসলাম ও হাসপাতালের মেডিকেল অফিসার ডা. বেলাল হোসেন। উপজেলা গ্রাম ডাক্তার কল্যাণ সমিতির সভাপতি আলহাজ¦ কাজী শামসুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ও বক্তব্য দেন সমিতির উপদেষ্টা প্রবীণ পল্লী চিকিৎসক আব্দুল হান্নান, সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম, উপজেলা বিসিডিএস’র সভাপতি শামসুর রহমান, সহ.সভাপতি সেলিম মোহাম্মদ সিদ্দিকী, সদস্য মেহেদী হাসান, সুমন চৌধুরী প্রমুখ।

#

কলারোয়ায় লক্ষ্মীপূজা অনুষ্ঠিত

কে এম আনিছুর রহমান ::

সাতক্ষীরার কলারোয়ায় লক্ষ্মীপূজা অনুষ্ঠিত হয়েছে। রোববার সনাতন হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের ঘরে ঘরে পালিত হয় কোজাগরী লক্ষ্মীপূজা। দূর্গোৎসবের পরপরই প্রথম পূর্ণিমা তিথিতে উদযাপিত হলো এ পূজা। উপজেলার বিভিন্ন এলাকার সনাতন ধর্মাবলম্বীরা তাদের নিজেদের বসতবাড়িতে লক্ষ্মী পূজার আয়োজন করে। শাস্ত্রমতের উদ্ধৃতি দিয়ে উপজেলা হিন্দু-বৌদ্ধ-খৃষ্টান ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক সন্দ্বীপ রায় জানান- ‘দেবী লক্ষ্মী ধন-সম্পদ তথা ঐশ্বর্যের প্রতীক। এছাড়া আধ্যাত্মিক ও পার্থিব জগতের উন্নতির দেবীও লক্ষ্মী।’ তিনি আরো জানান- ‘দেবী লক্ষ্মী দ্বিভূজা। তিনি বিষ্ণুর পতœী, ছয়টি বিশেষ গুণের দেবী। তার অপর নাম মহালক্ষ্মী। বাহন পেঁচা। লক্ষ্মী পূজা ভক্তদের কাছে কোজাগরী পূজা নামেও পরিচিত। কোজাগরি অর্থ ‘কে জেগে আছো। রাত জেগে থাকা মানুষেরাই দেবীর ধন লাভের অধিকারী হন বলে ব্রতকারীরা সারারাত জেগে থাকবেন দেবীর ডাকের প্রতীক্ষায়।’
তিনি আরো জানান- ‘আশ্বিন মাসের পূর্ণিমা তিথিতে ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে উপজেলার বিভিন্ন মন্দির আর হিন্দু পরিবারের প্রতিটি ঘরে অনুষ্ঠিত হয়েছে লক্ষ্মীপূজা। মঙ্গলঘট, ধানের ছড়ার সঙ্গে গৃহস্থের আঙ্গিনায় শোভা পায় চালের গুড়োর আল্পনায় মা লক্ষ্মীর পায়ের ছাপ। এ পা এঁকে রাখা হয় সব বাড়ির প্রবেশপথে। ফুল, ফল, মিষ্টি, দিয়ে আরাধনা করা হয় দেবী মায়ের।’

#