কলারোয়া সংবাদ ॥ ভ্যান চালকের পেটে চাকু মারলো এক যুবক


91 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
কলারোয়া সংবাদ ॥ ভ্যান চালকের পেটে চাকু মারলো এক যুবক
জুন ২৯, ২০১৯ কলারোয়া ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

কে এম আনিছুর রহমান ::

সাতক্ষীরার কলারোয়ায় ভ্যান চালকের পেটে চাকু ঢুকিয়ে দিলো স্বপন নামে এক যুবক। আহত ভ্যান চালক আলমগীর হোসেন (৩৮) উপজেলার সোনাবাড়ীয়া ইউনিয়নের মাদরা গ্রামের মৃত মোহর আলীর ছেলে।
শনিবার বেলা ১০ টার দিকে উপজেলার চন্দনপুর ইটভাটার কাছে এ ঘটনা ঘটে। বর্তমানে তিনি কলারোয়া সরকারী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। খবর পেয়ে তাৎক্ষনিক থানা পুলিশ ঘটনা স্থান পরিদর্শন করেছেন। এ ঘটনায় কলারোয়া থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে।
অভিযোগের বিবরণে জানা যায়, উপজেলার মাদরা গ্রামের ভ্যান চালক আলমগীর হোসেন ভ্যান চালিয়ে সোনাবাড়ীয়া ইটভাটার কাছে পৌছালে অপরদিক থেকে মোটরসাইকেলে আসা উপজেলার শ্রীরামপুর গ্রামের রবিউল ইসলামের ছেলে আহসান হাবিব স্বপন (৩২) দ্রুত গতিতে তার ভ্যানে ধাক্কা খায়।

পরে কথাকাটাকাটির এক পর্যায়ে আহসান হাবিব স্বপন ক্ষিপ্ত হয়ে তার মোটরসাইকেলে ব্যাগে থাকা চাকু নিয়ে ভ্যান চালক আলমগীর হোসেনের পেটে ঢুকিয়ে দেয়। পরে পথচারীরা আহত ভ্যান চালককে দ্রুত উদ্ধার করে কলারোয়া সরকারী হাসপাতালে ভর্তি করে।
কলারোয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মুনীর-উল-গীয়াস বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

##

কলারোয়ায় জমিজমা নিয়ে এক ভাই আরেক ভাইয়ের বিরুদ্ধে পাল্টা অভিযোগ

কে এম আনিছুর রহমান ::

সাতক্ষীরার কলারোয়ায় জমিজমা নিয়ে এক ভাই আরেক ভাইয়ের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলে প্রেসক্লাবে অভিযোগ করা হয়েছে। শনিবার সকালে উপজেলার সিংহলাল গ্রামের কৃষক শহিদুল ইসলাম মোড়ল এ অভিযোগ করেন। অভিযোগের বিবরণে জানা যায়, তারা ৩ ভাই পিতার আমল থেকে জায়গা জমি ভাগবাটোয়ারা করে বসত বাড়ী ঘর নির্মান করে ভোগ দখল করে আসছেন। হঠাৎ তার বড় ভাই রুস্তম মোড়ল গোপনে কাউকে কিছু না জানিয়ে শহিদুল মোড়লের দখলকৃত ৩ শতক জমি তার স্ত্রীর নামে লিখে দেন। কিছু দিন পরে বিষয়টি জানতে পেরে কৃষক শহিদুল ইসলাম মোড়ল উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দর মাধ্যমে এক শালিস বৈঠাকে বসেন। সেখানে কৃষক শহিদুল ইসলামের পক্ষে রায় দেন নেতৃবৃন্দ। পরে এ সিদ্ধান্ত না মেনে রুস্তম মোড়ল সাতক্ষীরা আদালতে ১৪৫ ধারায় মামলা দায়ের করেন। থানা পুলিশ বিষয়টি নিয়ে তদন্ত করে কৃষক শহিদুল ইসলামের পক্ষে রিপোর্ট দেন। থানাও তার পক্ষে রায় না দেওয়ায় রুস্তম মোড়ল শুক্রবার সকালে সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবে কৃষক শহিদুল ইসলামকে হয়রানী করার জন্য একটি মিথ্যা অভিযোগ তুলে সংবাদ সম্মেলন করেন। সেখানে রুস্তম আলী ৮৩৯ দাগে ২৯ খতিয়ানে জমি খরিদ সূত্রে প্রাপ্তের কথা উল্লেখ করেছেন। কিন্তু ওই দাগের জমিতে কৃষক শহিদুল ইসলামের বসত বাড়ী ঘর রয়েছে দীর্ঘ ৩৫/৪০ বছর ধরে। সম্পূর্ন হয়রানী করার লক্ষ্যে রুস্তম আলী এধরনের কাল্পনিক ও বিভ্রান্তকর এবং ষড়যন্ত্র মুলক কথাবার্তা এলাকায় ছড়িয়েছে বেড়াচ্ছে। তিনি অভিযোগে উক্ত প্রকাশিত সংবাদটির তিব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন।

#