কলারোয়া সংবাদ ॥ মাধ্যমিক শিক্ষা উপবৃত্তির মান উন্নয়নে সংলাপ


471 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
কলারোয়া সংবাদ ॥ মাধ্যমিক শিক্ষা উপবৃত্তির মান উন্নয়নে সংলাপ
আগস্ট ১৬, ২০১৬ কলারোয়া ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

কে এম আনিছুর রহমান,কলারোয়া :
কলারোয়ায় হতদরিদ্র জনগণের সামাজিক সুরক্ষার প্রাপ্যতা নিশ্চিত করণ প্রকল্পের আওতায় মাধ্যমিক শিক্ষা উপবৃত্তির মান উন্নয়নে উপজেলা পর্যায়ে সংলাপ অনুষ্ঠিত হয়েছে। মঙ্গলবার সকাল ১০টায় উপজেলা অগ্রগতি সংস্থার স্পীচ প্রকল্প অফিসে অনুষ্ঠিত সংলাপে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার আব্দুল হামিদ।

এসময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন প্রধান শিক্ষক বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রউফ, অধ্যক্ষ আবির হোসেন বিলাল, শিক্ষক আব্দুল আলিম, শেখ নুরুল¬াহ, ওমর ফারুক, আঃ গণি, সমির কুমার মিত্র, শেখ জাহিদুল ইসলাম, জেসমিন নাহার বিউটি, নয়ন  রঞ্জন মজুমদার, জুলফিকার আলী, প্রকল্প সমন্বয়কারী শেখ আহসানুল ইসলাম, এমডিও আশরাফুল ইসলাম, প্রোগ্রাম অফিসার মহিব্বুল হক, আবু বকর সিদ্দিক প্রমুখ।
###

কলারোয়ার দুই ইউপি সদস্যাদের শপথ গ্রহন

কলারোয়া প্রতিনিধি :
কলারোয়া উপজেলার দুইটি ইউনিয়নের ইউপি সদস্যদের শপথ গ্রহন অবশেষে অনুষ্ঠিত হয়েছে। মঙ্গলবার বেলা ১১টায় উপজেলার অফিসার্স ক্লাবে এ শপথ গ্রহন পাঠ করান উপজেলা নির্বাহী অফিসার উত্তম কুমার রায়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন পজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ফিরোজ আহম্মেদ স্বপন, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা গোলাম মোস্তফা, উপজেলা নির্বাচন অফিসার মাসুদুর রহমান, নির্বাচনী দায়িত্বে থাকা রিটার্নিং অফিসার মোশাররফ হোসেন, আব্দুল হামিদ, ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান আসলামুল আলম আসলাম, স.ম মোরশেদ আলী প্রমুখ।

উপজেলা নির্বাচন অফিস সুত্রে জানা গেছে, উপজেলার ৮নং কেরালকাতা ইউনিয়নে ১০ জনের মধ্যে সংরক্ষিত আসনে ২জন ও সাধারণ আসনে ৮জন-এরা হলো-সংরক্ষিত ১নং ওয়ার্ড আসনে মোছাঃ রহিমা খাতুন, ২নং ওয়ার্ড  সংরক্ষিত আসনে মোছাঃ মাছুরা ইয়াসমিন, ১নং ওয়ার্ড সাধারণ সদস্য সাইফুর রহমান, ২নং ওয়ার্ডে আব্দুল ওয়াদুদ, ৩নং ওয়ার্ডে  মোশাররফ মোড়ল, ৪নং ওয়ার্ডে  মুজিবর রহমান, ৫নং ওয়ার্ডে জিয়াউর রহমান, ৬নং ওয়ার্ডে  মিজানুর রহমান, ৮নং ওয়ার্ডে আব্দুর রশিদ সরদার, ৯নং ওয়ার্ডে ওসমান গণি।

এদিকে ১০নং কুশোডাঙ্গা ইউনিয়নে ১জন সংরক্ষিত সদস্য ও ৭জন সাধারণ সদস্য এরা হলো-২নং ওয়ার্ডে সংরক্ষিত সদস্য হাসিনা খাতুন, ১নং ওয়ার্ডে সাধারণ সদস্য হাফিজুর রহমান, ২নং ওয়ার্ডে জাহাঙ্গীর সরদার, ৪নং ওয়ার্ডে লক্ষণ চন্দ্র দে, ৫নং ওয়ার্ডে অনন্ত দালাল, ৬নং ওয়ার্ডে আনারুল ইসলাম, ৮নং ওয়ার্ডে আলী আহম্মদ, ৯নং ওয়ার্ডে শেখ ফারুক হোসেন। উল্লে¬খ্য গত ২২ মার্চ নির্বাচন চলাকালে ভোট কারচুপি,
বোমা হামলা-গুলি বর্ষণের ঘটনায় এ দুই ইউণিয়নের তিনটি কেন্দ্রে ভোট গ্রহন বন্ধ হয়েছিল।

তবে শুধূ মাত্র যে কেন্দ্রে এই ঘটনা ঘটেছে সেই কেন্দ্র গুলো বন্ধ ঘোষণা করেন নির্বাচন কমিশন। দীর্ঘ দিন পার হলেও ওই দুটি ইউনিয়নের নব-নির্বাচিত সংরক্ষিত সদস্য ও সাধারণ সদস্যদের শপথ গ্রহন হয়নি। হঠাৎ গত ২০ জুলাই বুধবার-২০১৬ তারিখে বাংলাদেশ গেজেটে নির্বাচনী বিধিমালা-২০১০ এর ৪৩ নম্বর বিধি দ্রষ্টব্য নির্বাচিত ঘোষিত প্রার্থীগণের তালিকা প্রকাশ করে। সে অনুযায়ী মঙ্গলবার ভেলা ১১টায় ওই দুটি ইউনিয়নের ১৮জন নব-নির্বাচিত সংরক্ষিত সদস্য ও সাধারণ সদস্যদের সরকারী নিয়মে শপথ গ্রহন অনুষ্ঠিত হয়।
###

কলারোয়ায় এক মেয়েকে যৌন হয়রাণীর ঘটনায় অসহায় মা’র থানায় অভিযোগ

কে এম আনিছুর রহমান,কলারোয়া :
কলারোয়ায় এক কলেজ পড়–য়া মেয়েকে যৌন হয়রানীর হাত থেকে রক্ষা পেতে দুই বখাটে যুবকের বিরুদ্ধে থানা পুলিশে অভিযোগ করা হয়েছে। গত সোমবার রাতে উপজেলার ১নং জয়নগর ইউনিয়নের দক্ষিণ ক্ষেত্রপাড়া গ্রামের বিধবা অসহায় মা আঞ্জুয়ারা খাতুন এ অভিযোগ দায়ের করেন।

অভিযোগের বিবরণে জানা যায়, উপজেলার সরসকাটি বাজারের আব্দুর রহমানের মোড়লের ছেলে  আব্দুস সালাম (২০) ও সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান শফিকুর রহমান মালির ছেলে সোহাগ হোসেন প্রায় সময় অভিযোগ কারীর মেয়ে ধানদিয়া বেগম খালেদা জিয়া কলেজের ছাত্রী নাজনিন নাহারকে (১৬) কলেজে যাওয়ার পথে কু-প্রস্তাব দিয়ে আসছিল। এ প্রস্তাবে কলেজ ছাত্রী নাজনীন রাজি না হওয়ায় গত কয়েকদিন আগে ওই দুই যুবক এসিড দিয়ে মুখ ঝলসে দেওয়াসহ বাড়ীতে আগুন দিয়ে জ্বালিয়ে দেওয়ার হুমকি প্রদান করে।

এরই জের ধরে গত সোমবার রাত ৯টার দিকে ওই দুই যুবক বিধবা আনজুয়ারার বাড়ী গিয়ে কলেজ ছাত্রীর নাম ধরে জোরে ডাকতে শুরু করে। তখন মেয়ের মাতা আঞ্জুয়ারা খাতুন এগিয়ে আসলে ওই দুই বখাটে যুবক বলে, তোর মেয়েকে বিয়ে করতে আসিনি, ওকে নষ্ট করতে এসেছি, বের করে দে’ বলেই দুই যুবক ঘরের ভিতরে প্রবেশ করার চেষ্টা করে। এ সময় অসহায় মা’র ডাক চিৎকারে পাশ্ববর্তী লোকজন এগিয়ে আসলে ওই দুই যুবক ক্ষিপ্ত হয়ে তার মেয়েকে নির্জনে পাইলে খুন জখমসহ এসিড দিয়ে মুখ মন্ডল ঝলসে দেওয়ার হুমকি প্রদান করে বীরদর্পে চলে যায়।
পরে ওই রাতে স্থানীয় চেয়ারম্যানসহ এলাকাবাসীর পরামর্শে অসহায় মা কলারোয়া থানায় এসে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করে।

স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান শামছুদ্দীন আল মাসুদ বাবু ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, তিনি খবর পেয়ে স্থাণীয় সরসকাটি পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ তানভীর আহমেদকে সাথে নিয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।