কলারোয়া সংবাদ ॥ শিক্ষার্থীদের মাঝে পাঁচ শতাধিক ফলজ বৃক্ষের চারা বিতরণ


344 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
কলারোয়া সংবাদ ॥ শিক্ষার্থীদের মাঝে পাঁচ শতাধিক ফলজ বৃক্ষের চারা বিতরণ
সেপ্টেম্বর ১, ২০১৮ কলারোয়া ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

কে এম আনিছুর রহমান ::
সাতক্ষীরার কলারোয়ায় শিক্ষার্থীদের মাঝে ৫ শতাধিক ফলজ বৃক্ষের চারা বিতরণ করা হয়েছে। শুক্রবার বেলা ১১ টার দিকে কলারোয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শেখ মারুফ আহম্মদ এসব চারা বিতরণ করেন। কলারোয়া সরকারি জিকেএমকে পাইলট হাইস্কুল, মডেল হাইস্কুল, উপজেলার লাঙ্গলঝাড়া কেএল হাইস্কুল, সিংগা বিএসএইচ হাইস্কুলসহ ৫টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের স্কাউটদের সহযোগিতায় এ গাছের চারা প্রদান করা হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) শেখ শরিফুল ইসলাম, পাইলট হাইস্কুলের সহকারী প্রধান শিক্ষক আব্দুর রকিব, স্কাউটের টিম লিডার শিক্ষক মনিরুজ্জামান, মডেল হাইস্কুলের শিক্ষক কবিরুল ইসলাম, ইউনিট লিডার শামিমুজ্জামান, সিংগা হাইস্কুলের গ্রুপ লিডার শফিকুল ইসলাম, স্কাউটার- সরকারি পাইলট হাইস্কুলের শেখ অহিদুজ্জামান মুন্না, একেএম নাইমুল হক শেখর, রুবায়েত ইসলাম লিমন, ইয়াচিন আরাফাত বাপ্পি, আবিদ হাসান, শিহাব আহম্মেদ, মীর শাহরিয়ার ইসলাম, আলীমুজ্জামান আকাশ, জাহিদুর রহমান জিসান, ইমতিয়াজ আহম্মেদ অনু, মডেল হাইস্কুলের আয়তল্যাহ আহম্মেদ আমান, রাসেল হোসেন, শাহরিয়ার জামান হৃদয়, মেহমুদ হাসান ইমন, লাঙ্গলঝাড়া কেএল হাইস্কুলের সাব্বির হোসেন, আহসান কবির, শাহিনুজ্জামান, সিংগা হাইস্কুলের মাহবুবুর রহমান, শাহরিয়ার কবির হৃদয়, আল জাবিদ, ফয়সাল হোসেন, এনামুল হক, মনিরুজ্জামান, জিসান, জাবিদ হাসান, শরিফুল ইসলাম প্রমুখ।
##

ভাষা সৈনিক আমানুল্লাহ’র ৫ম মৃত্যুবার্ষিকীতে কবরে শ্রদ্ধা নিবেদন
কে এম আনিছুর রহমান ::
১৯৪৮ ও ‘৫২ এর বরেণ্য ভাষা সৈনিক, স্বাধীনতা যুদ্ধের অন্যতম সংগঠক আলহাজ্ব শেখ আমানুল্লাহ’র ৫ম মৃত্যু বার্ষিকীতে তাঁর কবরে শ্রদ্ধা নিবেদন করেছেন কলারোয়ার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও সংগঠন। ১৯২৯ সালের ৫জুলাই জন্ম নেয়া প্রতিভাবান প্রথিতযশা শেখ আমানুল্লাহ ২০১৩ সালের ৩১ আগস্ট মৃত্যুবরণ করেন । শুভাকাঙ্খিদের ছেড়ে চিরদিনের জন্য চলে যাওয়ার এ দিনে তাঁর জন্ম ও চিরনিদ্রার শায়িতভূমি উপজেলার হেলাতলা ইউনিয়নের ঝাপাঘাট গ্রামে শেখ আমানল্লাহ স্যারের কবরস্থানে গিয়ে রুহের তাঁর মাগফিরাত কামনা করেন বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ। সেখানে অনুষ্ঠিত হয় সংক্ষিপ্ত দোয়া অনুষ্ঠান। স্যারের সমাধিতে একে একে ফুলেল শ্রদ্ধা নিবেদন করে শেখ আমানুল্লাহ ডিগ্রী কলেজ, কলারোয়া সরকারি জিকেএমকে পাইলট হাইস্কুল, কলারোয়া গার্লস পাইলট হাইস্কুল, কলারোয়া মাধ্যমিক শিক্ষক সমিতি, কলারোয়া মাদরাসা শিক্ষক কর্মচারী কল্যাণ সমিতি, কলারোয়া মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, কলারোয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, এমআর ফাউন্ডেশন, কলারোয়া পাবলিক ইনিস্টিটিউটসহ বিভিন্ন ব্যক্তি, প্রতিষ্ঠান ও সংগঠন। এসময় উপস্থিত ছিলেন জেলা পরিষদ সদস্য আলহাজ্ব শেখ আমজাদ হোসেন, ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মনিরা বেগম, অধ্যাপক আবুল খায়ের, বীর মুক্তিযোদ্ধা সৈয়দ আলী, আনোয়ার হোসেন, অবসরপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক আবুল হোসেন, প্রধান শিক্ষক আমানউল্লাহ আমান, এটিএম রুহুল কুদ্দুস, অধ্যক্ষ আবু বক্কর সিদ্দীক, বদরুদজ্জামান বিপ্লব, সাংবাদিক শিক্ষক দীপক শেঠ, শেখ জুলফিকারুজ্জামান, মাস্টার শেখ শাহাজাহান আলী শাহীন প্রমুখ। অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন কপাই সাধারণ সম্পাদক এ্যাড. কামাল রেজা। দোয়া পরিচালনা করেন সহকারী অধ্যাপক ইন্তাজ আলী।
উল্লেখ্য, বাংলাদেশের অন্যতম শীর্ষ শিক্ষক নেতা শেখ আমানুল্লাহ স্যার ১৯৪৮ ও ‘৫২ এর বরেণ্য ভাষাসৈনিক, স্বাধীনতা যুদ্ধের অন্যতম সংগঠক ও বীর মুক্তিযোদ্ধা ছিলেন। জীবদ্দশায় তিনি একাধারে বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতি ফেডারেশনের চেয়ারম্যান, বাংলাদেশে মাধ্যমিক শিক্ষক সমিতির সভাপতির দায়িত্ব পালন করেছেন। তিনি কলারোয়া সরকারি কলেজ ও কলারোয়া গার্লস হাইস্কুলের প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক এবং শেখ আমানুল্লাহ ডিগ্রি কলেজের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য ছিলেন। প্রায় অর্ধ শতাব্দি তিনি ছিলেন কলারোয়া জিকেএমকে (সরকারি) পাইলট হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক। তাঁর সবচেয়ে বড় পরিচয় তিনি ছিলেন সকলের প্রিয় ‘আমানুল্লাহ স্যার’।
##