কলারোয়া সংবাদ : ভিক্ষুকদের কর্মসংস্থান ও অগ্রগতি পর্যালোচনা সভা


484 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
কলারোয়া সংবাদ : ভিক্ষুকদের কর্মসংস্থান ও অগ্রগতি পর্যালোচনা সভা
ফেব্রুয়ারি ২৭, ২০১৭ কলারোয়া ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

কলারোয়া প্রতিনিধি ::
কলারোয়া উপজেলার কেঁড়াগাছি ইউনিয়নে ভিক্ষুক মুক্তকরণ, ভিক্ষুকদের কর্মসংস্থান ও পুর্নবাসন কার্যক্রমের অগ্রগতি পর্যালোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সোমবার বেলা ১১টায় স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আফজাল হোসেন হাবিলের সভাপতিত্বে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার উত্তম কুমার রায়। এছাড়া বক্তব্য রাখেন উপজেলা প্রাণি সম্পদ অফিসার ডা: এ এস এম আতিকুজ্জামান, কেঁড়াগাছি ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য আমজাদ হোসেন, রুবিনা

খাতুন, রনজিলা খাতুন, সেলিনা খাতুন, মহিদুল ইসলাম গাজী, শামছুর রহমান, ইয়ার আলী, নজরুল গাজী, আবুল কাশেম, বিল্লাল হোসেন, রফিকুল ইসলাম, মফিজুল ইসলাম, মুজিবার রহমান, উপজেলা প্রাণি সম্পদ দপ্তরের আকবর আলী, আছাদ আলী,

মতিয়ার রহমান, ভিএফএ, এআই টেকনেশিয়ান, একরামুল কবিরসহ এলাকার গন্যমাণ্য ব্যক্তিবর্গ।
##
ভারতীয় তালাসহ চোরাকারবারি আটক

কলারোয়া সীমান্তে আলমগীর হোসেন নামে এক চোরাকারবারিকে আটক করেছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)। সে উপজেলার কাকডাঙ্গা গ্রামের গোলাম রব্বানীর ছেলে। রোববার সন্ধ্যায় উপজেলার কাকডাঙ্গা সীমান্তে ১৩/৩ এর এস ৫ আরবি’র নিকট থেকে তাকে ভারতীয় ৫৫ পিস তালাসহ তাকে আটক করা হয়েছে।

কাকডাঙ্গা বিওপি’র হাবিলদার মাহবুবুর রহমান জানান, রোববার ওই সময় তার নেতৃত্বে ওই সীমান্তে টহলকালে একদল চোরাকারবারিকে তাড়া করে। এ সময় ওই আলমগীরকে ৫৫ পিস ভারতীয় তালাসহ আটক করে থানা পুলিশে সোর্ফদ করে।

এ ব্যাপারে কলারোয়া থানায় একটি মামলা হয়েছে বলে থানার অফিসার ইনচার্জ এমদাদুল হক শেখ জানান।
##

 

৩ মার্চ থেকে কলারোয়ায় মুক্তিযোদ্ধা যাচাই-বাচাই কার্যক্রম শুরু

কলারোয়া উপজেলায় আগামী ৩ মার্চ মুক্তিযোদ্ধা যাচাই-বাচাই কার্যক্রম শুরু হবে। উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা যাচাই-বাচাই কমিটির সদস্য সচিব উত্তম কুমার রায় স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানান, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা

যাচাই-বাচাই কমিটির সিদ্ধান্ত মোতাবেক মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে কলারোয়া উপজেলার অধিক্ষেত্রের তালিকা ভৃুক্তির জন্য নি¤œবর্ণিত ব্যক্তিগণের যাচাই-বাছাই অনিবার্য কারণ বশত: আগামী ৪ মার্চের পরিবর্তে ৩ মার্চ অনুষ্ঠিত হবে।

(১) লাল তালিকায় অন্তর্ভূক্ত কিন্তু যার বিরুদ্ধে অভিযোগ রয়েছে, (২) ভারতীয় তালিক বা লাল মুক্তিবার্তা তালিকাদ্বয়ের বাইরে শুধুমাত্র গেজেটভুক্ত/ তালিকাভুক্ত/ সরকারি চাকুরি গ্রহনের সময় ঘোষনা প্রদানকৃত/ শুধুমাত্র সামরিক সনদপ্রাপ্ত (৩) ভারতীয়

তালিকা বা লাল মুক্তিবার্তা তালিকাদ্বয়ের বাইরে বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কেন্দ্রীয় কমান্ড কাউন্সিল (মাননীয় প্রধান মন্ত্রী প্রতিস্বাক্ষরিত) কর্তৃক প্রদত্ত সনদপত্র।

উপরোক্ত ক্যাটাগরীর ব্যক্তিবর্গকে আগামী ০৩/০৩/২০১৭ তারিখ সকাল ১০টায় পুরণকৃত আবেদন, প্রয়োজনীয় প্রামানদি এবং সহযোদ্ধা স্বাক্ষীসহ কলারোয়া উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে উপস্থিত হয়ে উক্ত যাচাই-বাচাই কার্যক্রমে সহযোগিতা করার জন্য অনুরোধ করা হয়েছে।
##