কলারোয়া সীমান্তে ভারতে পাচারের মহুত্বে এক গৃহবধু উদ্ধার । পাচারকারী স্বামী আটক


356 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
কলারোয়া সীমান্তে ভারতে পাচারের মহুত্বে এক গৃহবধু উদ্ধার । পাচারকারী স্বামী আটক
জুলাই ২৭, ২০১৫ কলারোয়া ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

কে এম আনিছুর রহমান, কলারোয়া :
সাতক্ষীরার কলারোয়া সীমান্তে ভারতে পাচারের মুহুত্বে জেসমিন নামে এক গৃহবধুকে উদ্ধার করেছে। এ ঘটনায় নাজমুল নামে তার  পাচারকারী পাষান্ড স্বামীকে আটক করেছে বিজিবি। সোমবার সকালে উপজেলার কেঁড়াগাছি চারবাড়ি সীমান্ত থেকে স্ত্রীকে উদ্ধার ও পাচারকারী স্বামীকে আটক করা হয়।
উদ্ধারকৃত স্ত্রী জেসমিন আরা (১৯) কলারোয়া উপজেলার কিসমত ইলিশপুর গ্রামের হাবিবুর রহমানের মেয়ে এবং আটককৃত পাচারকারী স্বামী নাজমুল হোসেন (২৮) যশোরের ঝিকরগাছা উপজেলার বাকঁড়া এলাকার দরগাডাঙ্গা গ্রামের তবিবার রহমানের ছেলে।
সাতক্ষীরা সদর উপজেলার তলুইগাছা বিজিবি ক্যাম্পের কোম্পানী কমান্ডার সুবেদার হায়দার আলী জানান, সোমবার সকাল ১০ টার দিকে তার নেতৃত্বে  বিজিবি সদস্যরা ওই সীমান্তে টহলকালে দেখতে পায় একটি ছেলে একটি মেয়েকে ভারতে পাচার করার জন্য ভারতীয় দালালের অপেক্ষায় দাঁড়িয়ে আছে। এ সময় টহলরত বিজিবি সদস্যরা তাদেরকে আটক করে থানা পুলিশে সোর্পদ করে। পরে আটককৃতরা বিজিবির নিকট বিনা পাসপোর্টে ভারতে যাওয়ার কথা স্বীকার করে এবং তারা সম্পর্কে স্বামী-স্ত্রী বলে জানায়।
আটক পাচারকারী নাজমুল জানায়, গত সাত মাস আগে জেসমিনকে প্রেম করে দ্বিতীয় স্ত্রী হিসেবে বিয়ে করে।  সোমবার সকালে ওই সীমান্ত দিয়ে তারা বিনা পাসপোর্টে ভারতে বেড়াতে যাচ্ছিল।
উদ্ধার হওয়া জেসমিন জানান, তার স্বামী নাজমুল তাকে ভারতে পাচারের উদ্দেশ্যে নিয়ে যাচ্ছিল কিনা জানেনা। তবে  সোমবার সকালে হঠাৎ বলে , চলো আমার দুই জন ভারতে বেড়াতে যায়। স্বামীর কথামত সে কলারোয়া সীমান্তে অবৈধ পদে বারতে যাচ্ছিল।
এ ব্যাপারে  কলারোয়া থানার অফিসার ইনচার্জ শেখ আবু সালেহ মাসুদ করিম ভয়েস অব সাতক্ষীরা ডটকমকে জানান, তার থানায় একটি পাসর্পোট আইনে মামলা হয়েছে।
তলুইগাছা বিজিবি ক্যাম্পের সুবেদার হায়দার আলীর নিকট পাচার মামলা না করার ব্যাপারে জানতে চাইলে,আটককৃতরা স্বামী-স্ত্রী হওয়ায় তাদের বিরুদ্ধে পাসর্পোট আইনে মামলা করেছেন বলে জানান।