কলারোয়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কর্মচারী কর্তৃক ডাক্তার লাঞ্চিত


562 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
কলারোয়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কর্মচারী কর্তৃক ডাক্তার লাঞ্চিত
জানুয়ারি ২২, ২০১৭ কলারোয়া ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

কে এম আনিছুর রহমান ::
কলারোয়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আরএমও ডাক্তার শফিকুল ইসলামকে জনসম্মুখে লাঞ্চিত করার অভিযোগ করা হয়েছে। ওই স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ক্যাশিয়ার ৩য় শ্রেণীর কার্মচারী মুনসুর আলী তাকে লাঞ্চিত করেন ।

রোববার সন্ধ্যায় ডাক্তার শফিকুল ইসলাম অভিযোগ করে বলেন, গত শুক্রবার বেলা ১ টার দিকে তার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ক্যাশিয়ার মুনসুর আলী একটি নতুন মালবাহি ট্রাক হাসপাতালের ক্যাম্পাসে ঢুকিয়ে মসজিদের সামনে রেখে প্রধান গেট বন্ধ করে মিলাদ শুরু করে। বেলা ২টার দিকে তিনি হাসপাতালে যাওয়ার সময় গেট বন্ধ দেখেন।

তারপরেও অনেক কষ্ট করে ভিতরে প্রবেশ করে ট্রাক ড্রাইভারকে ট্রাকটি একটু সরিয়ে নেওয়ার জন্য অনুরোধ করেন।

এতে ট্রাক মালিক তার হাসপাতালের ৩য় শ্রেণীর কর্মচারী মুনসুর আলী ক্ষিপ্ত হয়ে তাকে শতাধিক মানুষের সামনে উত্ত্যক্ত বাক্য বিনিময়সহ লাঞ্চিত করে। পরে খবর পেয়ে থানা পুলিশ ঘটনা স্থানে পৌছালে ঘটনাটি থেমে যায়।

তিনি আরো জানান, কলারোয়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ক্যাশিয়ার মুনসুর আলী দীর্ঘ ১৪/১৫ বছর ধরে এখানে চাকুরী করছেন। তিনি হাসপাতালটিকে নিজের বাড়ী মনে করেন। হাসপাতালের ভিতরে ছাগল পালন করে। গাছের ডাল পালা কেটে নিয়ে যায়। এ সবের প্রতিবাদ করলে তাকে লাঞ্চিত করেন।

কলারোয়া পৌর সদরের ঝিকরা গ্রামের শফিকুল ইসলাম বলেন, গত শুক্রবার হাসপাতালের প্রধান গেট বন্ধ রেখে মসজিদে মিলাদ দিতে গিয়ে একজন রোগীও মারা যায়। রোগিটি স্ট্রোক করলে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার সময় প্রধান গেট বন্ধ থাকায় দ্রুত চিকিৎসা সেবা গ্রহণ করতে নাপারায় তিনি মারা যান।

এ ঘটনায় কলারোয়া হাসপাতালের ক্যাশিয়ার মুনসুর আলীকে বদলীসহ বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সাতক্ষীরা সিভিল সার্জনসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তার সু-দৃষ্টি কামনা করেন।

এ ব্যাপারে ক্যাশিয়ার মুনসুর আলী নতুন ট্রাকটি হাসপাতালের মধ্যে ঢুকিয়ে মিলাদের বিষয়টি স্বীকার করে বলেন, ডাক্তার শফিকুলের সাথে তার কোন কথা হয়নি, তবে যাকিছু ঘটেছে ট্রাক ড্রাইভারের সাথে।
##