কলারোয়া হংবাদ ॥ সিরাজুল ইসলাম ফাউন্ডেশনের নিজস্ব অর্থায়নে পাকা রাস্তার উদ্বোধন


324 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
কলারোয়া হংবাদ ॥ সিরাজুল ইসলাম ফাউন্ডেশনের নিজস্ব অর্থায়নে পাকা রাস্তার উদ্বোধন
নভেম্বর ৯, ২০১৫ কলারোয়া ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

কে এম আনিছুর রহমান,কলারোয়া প্রতিনিধি
সাতক্ষীরার কলারোয়ার ৩নং কয়লা ইউনিয়নের আলাইপুর গ্রাম উপজেলা সদর থেকে মাত্র ৩ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত। কিন্তু এই গ্রামটিতে তেমন কোনো উন্নয়নের ছোঁয়া লাগেনি। বর্ষা মৌসুম আসলে কাঁচা রাস্তা দিয়ে হাটতে এ জনপদের মানুষের চলাচলে সীমাহীন দুর্ভোগ পোয়াতে হয়। আজও পর্যন্ত গ্রামবাসীদের এই দুর্ভোগ লাঘবে কেউ এগিয়ে আসেনি। অবশেষে এগিয়ে এলো সিরাজুল ইসলাম নামে এক ফাউন্ডেশন। ওই গ্রামের কৃতি সন্তান ও কলারোয়া বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সাবেক সভাপতি প্রয়াত সিরাজুল ইসলামের নামে গঠিত ‘সিরাজুল ইসলাম ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালক ও প্রয়াত সিরাজুল ইসলামের একমাত্র পুত্র কামরুল ইসলাম সাজু ২ হাজার ৪৫০ ফুটের ৪টি কাঁচা রাস্তার ইট আচ্ছাদনের কাজ ৬ লক্ষাধিক টাকা ব্যয়ে নির্মাণ করিয়ে দিলেন। ইটের এজিং ও ইট ভরাট করার পর রাস্তাগুলোতে ইটের গুঁড়া দিয়ে প্রলেপ দেয়া হয়েছে। এরপর রোলার দিয়ে সবগুলো রাস্তা সমতল করা হয়েছে।
রাস্তাগুলো হলো- আলাইপুর গ্রামের মাঝেরপাড়া মসজিদের মোড় থেকে ইসমাইলের বাড়ি পর্যন্ত ৮৫০ ফুট, প্রাইমারি স্কুলের পিছন থেকে আমিন শেখের বাড়ি পর্যন্ত ৬০০ ফুট, আরিজুলের বাড়ি থেকে কাজী জলিলের বাড়ি পর্যন্ত ৬০০ ফুট, আকবার বিশ্বাসেন বাড়ি থেকে মাহাবুরের বাড়ি পর্যন্ত ৪০০ ফুট কাঁচা রাস্তা আধাপাকা করা হয়েছে।
সোমবার দুপুরে ওই ৪টি রাস্তার উদ্বোধন করেন উপজেলা প্রকৌশলী আবেদুর রহমান। এসময় অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা শেখ ফারুক হোসেন, ‘সিরাজুল ইসলাম ফাউন্ডেশন’র মহাপরিচালক কামরুল ইসলাম সাজু, সিনিয়র উপদেষ্টা অধ্যাপক রেজাউল ইসলাম, আলহাজ্ব আফজাল হোসেন পলাশ, অধ্যক্ষ ডা: আব্দুল বারিক, কলারোয়া প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি গোলাম রহমান, সাবেক সাধারণ সম্পাদক প্রধান শিক্ষক রাশেদুল হাসান কামরুল, দপ্তর সম্পাদক এমএ সাজেদ, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি শেখ ইমরান হোসেন, ইউপি সদস্য কাজী শাহাদাৎ হোসেন, ইউপি সদস্যা ফিরোজা বেগম, আব্দুল খালেক পাড় প্রমুখ।
###

কলারোয়ায় নাশকতা মামলায় বিএনপির ৪ কর্মী আটক
কে এম আনিছুর রহমান,কলারোয়া (সাতক্ষীরা) প্রতিনিধি
সাতক্ষীরার কলারোয়া থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে নাশকতার অভিযোগে ৪ বিএনপির কর্মীকে আটক করেছে। সোমবার ভোর রাতে উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদেরকে আটক করা হয়।  আটককৃতরা হলেন-উপজেলার ধানঘোরা গ্রামের মৃত ছহিলউদ্দীনের ছেলে আলাউদ্দিন মোড়ল(৪৯), একই গ্রামের আব্দুল আজিজের ছেলে ইব্রাহিম হোসেন(২৭), ইমান আলীর ছেলে আয়ের আলী (৬০) ও খোরদো গ্রামের নেছার উদ্দীনের ছেলে আকতারুজ্জামান (৪৫)।
আটককৃতদের বিরুদ্ধে কলারোয়ায় থানায় নাশকতা মামলা নং-২(১১)১৫ থাকায় তাদেরকে আটক করে সাতক্ষীরা আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে বলে থানার অফিসার ইনচার্ঝ শেখ আবু সালেহ মাসুদ করিম জানান।
###

কলারোয়ায় ইয়াবাসহ ৩ ব্যক্তি আটক
কলারোয়া(সাতক্ষীরা)প্রতিনিধি
সাতক্ষীরার কলারোয়ায় ইয়াবাসহ ৩ ব্যক্তিকে আটক করেছে থানা পুলিশ। রোববার দিবাগত রাতে কলারোয়া পৌর সদরের পাইলট হাই স্কুলের সামনে থেকে তাদের আটক করা হয়। আটকরা হলেন- উপজেলার আলাইপুর গ্রামের মহব্বত খার ছেলে রিপন খাঁ (৩০), জালালাবাদ গ্রামের জয়নদ্দীনের ছেলে পলাশ (২৫) ও কামারবাশা গ্রামের জামায়াত আলী মোড়লের ছেলে ইব্রাহিম খলিল (২৫)। এ ব্যাপারে কলারোয়া থানায় একটি মামলা হয়েছে।
##

কলারোয়ায় চুরি করে পালানোর সময় দুই গৃহবধূকে কুপিয়ে জখম করেছে চোরেরা
কলারোয়া (সাতক্ষীরা) প্রতিনিধি
সাতক্ষীরার কলারোয়ায় দিনে দুপুরে চুরি করে পালানোর সময় দুই গৃহবধূকে কুপিয়ে জখম করেছে চোরেরা। ঘটনাটি ঘটেছে গত রোববার বেলা ১২ টার দিকে উপজেলার দলুইপুর গ্রামে। আহতরা বর্তমানে কলারোয়া হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। হাসপাতালসুত্রে জানা গেছে, উপজেলার দলুইপুর গ্রামের মোটরসাইকেল চালক লিটন হোসেন কয়েকদিন পুর্বে তার পালিত একটি গরু বিক্রয় করে টাকাগুলো বাড়িতে রাখে। ওই দিন সকালে গৃহবধূ আমেনা খাতুন তার শিশু ছেলেকে নিয়ে স্কুলে যায়। বেলা ১২ টার দিকে বাড়ি ফিরো দেখতে পান তার ঘরের মধ্যে ঢুকে একই এলাকার মৃত আব্দুল মোতালেবের ছেলে আবুল কাশেম ও আবুল কাশেমের ছেলে আশরাফ হোসেন চুরি করছে। এ সময় গৃহবধু আমেনা খাতুন চোর চোর বলে চিৎকার দিলে ওই চোরেরা তাদের হাতে থাকা ধারালো দা দিয়ে গৃহবধূকে এলোপাতাড়ী ভাবে কুপিয়ে জখম করে ঘরে থাকা নগদ ৩৫ হাজার টাকা ও বিভিন্ন কাগজ পত্র নিয়ে পালিয়ে যায়। পরে এলাকাবাসী জানতে পেরে ওই গৃহবধূকে উদ্ধার করে কলারোয়া সরকারী হাসপাতালে ভর্তি করে। এরপর ওই এলাকার দাউদ সরদারের স্ত্রী তাসলিমা খাতুন বিষয়টি শুনে আবুল কাশেম ও আশরাফ হোসেনে বাড়ীতে যায় ঘটনাটি জানতে। এ সময় ওই বাড়ীতে থাকা আব্দুল কাদের ও হাসানুজ্জামান ক্ষিপ্ত হয়ে তাসলিমা খাতুনকে ধরে এলোপাতাড়ী ভাবে মারপিট ও ধারলো দা দিয়ে কুপিয়ে  জখম করে। এ ঘটনায় কলারোয়া থানায় পৃথক ভাবে দুটি অভিযোগ দায়ের করেছে বলে আহতরা জানায়।