কাঙ্খিত বৃষ্টি না হওয়ায় আমন আবাদ নিয়ে বিপাকে কৃষকরা


363 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
কাঙ্খিত বৃষ্টি না হওয়ায় আমন আবাদ নিয়ে বিপাকে কৃষকরা
জুলাই ২৩, ২০১৯ কৃষি খুলনা বিভাগ ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

ডেস্ক রিপোর্ট ::

ভরা বর্ষা মৌসুমে কাঙ্খিত বৃষ্টি না হওয়ায় আমন চাষাবাদ নিয়ে বিপাকে পড়েছে কৃষকরা। বৃষ্টির অভাবে বীততলা তৈরী করতে পারেনি কৃষক। শ্রাবণ মাসেও বৃষ্টির দেখা নাই। উপজেলার কিছু কিছু এলাকায় সেচ দিয়ে বীজতলা তৈরী করলেও বৃষ্টির অভাবে বীজতলা ফেলে চৌচির হয়ে গেছে।
উপজেলা কৃষি অধিদপ্তর সূত্রে জানাগেছে, উপজেলার ১০টি ইউনিয়ন আমন চাষাবাদের জন্য এ পর্যন্ত ১০৫ হেক্টর বীজতলা তৈরী করা হয়েছে। তবে এ সকল বীজতলা বেশিরভাগই ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। অনেক বীজতলার চারা শুকিয়ে গেছে। এতে কৃষকরা আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। উপজেলায় আমন আবাদের জন্য ১১শত হেক্টর বীজতলা তৈরীর লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। তবে বৃষ্টি অভাবে কৃষকরা বীজতলা করতে পারেনি। তবে মাঝে মধ্যে হালকা বৃষ্টিপাত হওয়ায় কৃষকরা আমন আবাদের জন্য বীজতলা তৈরী শুরু করলেও পর্যাপ্ত বৃষ্টি না হওয়ায় বীজতলা ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। ফলে সময়মত বৃষ্টিপাত না হলে এবার আমন চাষাবাদে লক্ষ্যমাত্রা অর্জন না করার সম্ভাবনা রয়েছে। উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে কৃষকরা এখনো বীজতলা তৈরী করতে পারেনি। যেখানে পানি আছে সে সকল এলাকায় সেচ দিয়ে বীজতলা তৈরী করলেও বীজতলা রক্ষা করতে পারেনি। এ ব্যাপারে উপজেলা কৃষি অফিসার এএইচএম জাহাঙ্গীর আলম জানান, বর্ষা মৌসুমে কাঙ্খিত বৃষ্টি না হওয়ায় কৃষকরা বীজতলা তৈরী করতে পারিনি। উপজেলার যে সকল এলাকায় পানি সরবরাহ আছে সেখানে কৃষকদের সেচ দিয়ে বীজতলা তৈরী করতে উদ্বুদ্ধ করা হচ্ছে। এ ব্যাপারে কৃষি অফিস কৃষকদের সার্বক্ষণিক পরামর্শ দিয়ে যাচ্ছে। তবে উপকূল এলাকার আমন আবাদ কিছুটা নাবীতে চাষাবাদ শুরু হয়। সেজন্য আগামীতে পর্যাপ্ত বৃষ্টি হলে কৃষকরা বীজতলা তৈরী করতে পারবে এবং আমন আবাদের লক্ষ্যমাত্রা অর্জন হবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।