কান্নাজড়িত কণ্ঠে মাফ চাইলেন ‘ধর্মগুরু’ রাম রহিম


607 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
কান্নাজড়িত কণ্ঠে মাফ চাইলেন ‘ধর্মগুরু’ রাম রহিম
আগস্ট ২৮, ২০১৭ প্রবাস ভাবনা ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

অনলাইন ডেস্ক ::
দুই নারীকে ধর্ষণের দায়ে ভারতের বিতকির্ত ‘ধর্মগুরু’ রাম রহিমের ১০ বছর কারাদণ্ড দিয়েছেন দেশটির বিশেষ আদালত।

সোমবার রোহতক শহরে সোনারিয়া কারাগারে এই রায় ঘোষণা শোনার পর নিজের কৃতকর্মের জন্য দু’হাত তুলে ক্ষমা প্রার্থনা করেন তিনি।

রায়ের পর আদালত কক্ষ থেকে বের হওয়ার সময় গুরমিত রাম রহিম সিং আবেগাপ্লুত কণ্ঠে বলেন, ‘আমাকে ক্ষমা করে দেন (মুজে মাফ কর দো)’।

১৫ বছর আগে ২০০২ সালে নিজের আশ্রমে দুই নারী ভক্তকে ধর্ষণের দায়ে ভারতের বিতর্কিত এই ‘ধর্মগুরু’ দোষী সাব্যস্ত হয়েছেন। সেই অপরাধের শাস্তি হিসেবে তাকে ১০ বছরের সাজা দেওয়া।

গত শুক্রবার পাঁচকুলা শহরে অবস্থিত সিবিআই (সেন্ট্রাল ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন) আদালত গুরমিত রাম রহিম সিংকে ধর্ষণের মামলায় দোষী সাব্যস্ত করে রায় ঘোষণা করেন।

ধর্ষণ মামলায় ‘ধর্মগুরু’ গুরমিত রাম রহিম দোষী সাব্যস্ত হওয়ার পর তার ভক্ত-সমর্থকদের সঙ্গে গত শুক্রবার আইনশৃঙ্খলা রক্ষা বাহিনীর দফায় দফায় সংঘর্ষ হয়। হরিয়ানা রাজ্যের পাঁচকুলা ও পাঞ্জাবে ব্যাপক তাণ্ডব চালিয়েছে গুরুভক্তরা। এতে অন্তত ৩৮ জন নিহত হন। আহত হয়েছেন আরো অনেকে।

বর্তমানে ৫০ বছর বয়সী গুরমিত রাম রহিম সিংকে বন্দি রাখা হয়েছে রোহতকের সানোরিয়া কারাগারে। রায়কে কেন্দ্র করে ফের সহিংসতার আশঙ্কায় রোহাতক শহর ও এর আশপাশ এলাকায় ব্যাপক নিরাপত্তা জোরদার করেছে সীমান্তরক্ষী বাহিনী (বিএসএফ) এবং হরিয়ানা পুলিশ।