কালিগঞ্জের পল্লীতে কাজের মেয়েকে ধর্ষন প্রচেষ্টার অভিযোগে থানায় মামলা দায়ের


478 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
কালিগঞ্জের পল্লীতে কাজের মেয়েকে   ধর্ষন প্রচেষ্টার অভিযোগে থানায় মামলা দায়ের
আগস্ট ৩১, ২০১৫ কালিগঞ্জ ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

সুকুমার দাশ বাচ্চু, কালিগঞ্জ :
কালিগঞ্জ উপজেলার ধলবাড়ীয়া ইউনিয়নের ড্যামরাইল গ্রামে হতদরিদ্র এক দিনমুজুরের স্ত্রীকে ধর্ষন প্রচেষ্টার অভিযোগে থানায় মামলা হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে গত ১৬ আগস্ট উপজেলার ডেমরাইল গ্রামে মর্জিনার বাড়ীতে। স্থানীয় ব্যাক্তিরা বিষয়টি আপশ মিমাংসার নামে কালক্ষেপন করে ব্যার্থ হওয়ায় ১৫ দিন পরে সোমবার থানায় মামলাটি রেকর্ড হয়।

জানা গেছে, ডেমরাইল গ্রামের দিনমুজুর রমেশ চন্দ্র মন্ডলের স্ত্রী রতœা মন্ডল (২২) প্রতিবেশী সফিকুলের বাড়ীতে মুজুরীর কাজ করে। ওই বাড়িতে চাউল ঝেড়ে দেওয়ার সময় সফিকুলের স্ত্রী মর্জিনা খাতুন সাংসারিক কাজে বাহিরে থাকায় আশরাফ আলী মহাজন (২৮) নামের এক লম্পট তাকে কৌশলে ধর্ষনের চেষ্টা করে। সে শেরকাঠী গ্রামের বাহার আলী মহাজনের পুত্র।

মামলা সূত্রে জানাযায়, গত ১৬ আগষ্ট বেলা ৩ টার দিকে লম্পট আশরাফুল কাজের মেয়ে রতœা মন্ডলকে একা পেয়ে কৌশলে ঘরে উঠে ধর্ষনের উদ্দেশ্যে জাপটে ধরে গায়ের ব্লাউজ ছিড়ে ফেলে। ধস্তাধস্তির এক পর্যায়  মুখ চেপে ধরে। এসময় তার চিৎকারে বাইরে আশপাশের লোকজন ছুটে আসে। এই ওই কাজের মেয়েকে উদ্ধার করে।
পরবর্তীতে বিষয়টি স্থানীয় প্রভাবশালী আব্দুল হান্নান, নিতাই মন্ডলসহ বেশ কিছু ব্যক্তিরা ঘটনাটির ধামা চাপা দেওয়ার জন্য আপোষ মিমাংশার চেষ্টা করে কালক্ষেপন করে । কিন্তু রতœা লম্পট আশরাফের  বিচারের দাবীতে স্থানীয় চেয়াম্যান-মেম্বারসহ থানা প্রশাসনের বিচারের দাবী করে। পরে কালিগঞ্জ উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের নেতৃবৃন্দের হস্তক্ষেপে হতদরিদ্র অসহায় দিনমুজুর রমেশ মন্ডলের স্ত্রী রতœা মন্ডল কালিগঞ্জ থানায় একটি মামলা করে। মামলা নং-৩৬ ।