কালিগঞ্জের ১২ ইউনিয়নে নৌকার মাঝি হতে চান ৬০ জন


127 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
কালিগঞ্জের ১২ ইউনিয়নে নৌকার মাঝি হতে চান ৬০ জন
অক্টোবর ১২, ২০২১ কালিগঞ্জ ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

ডেস্ক রিপোর্ট ::

কালিগঞ্জ উপজেলার ১২ ইউনিয়ন থেকে নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশীরা বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কালিগঞ্জ উপজেলা শাখায় আবেদন জমা দিয়েছেন। নির্দ্ধারিত সময়ে মোট ৬৪ জন প্রার্থী আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়ন দাবি করেছেন।
জানা গেছে, ১নং কৃষ্ণনগর ইউনিয়নে মনোনয়নের জন্য আবেদন করেছেন, নূর আহম্মেদ সুরুজ, শ্যামলী রানী অধিকারী, তপন কুমার রায় ও সেলিম আহমেদ।

২নং বিষ্ণুপুর ইউনিয়নে নুরুল হক সরদার, বর্তমান চেয়ারম্যান শেখ রিয়াজ উদ্দিন, মৃণাল মন্ডল, আবু তালেব, ইফতারেখুল ইসলাম সুমন, শাহ আলম ঢালী, জাকির হোসেন, বাবলু সরদার ও সিরাজুল ইসলাম।
৩নং চম্পাফুল ইউনিয়নে মোজাম্মেল হক গাইন, পরান মন্ডল ও আব্দুল লতিফ মোড়ল।
৪নং দক্ষিণ শ্রীপুর ইউনিয়নে গোবিন্দ মন্ডল, বর্তমান চেয়ারম্যান প্রশান্ত সরকার, রুহুল কুদ্দুস সরদার, শরিফ মোস্তফা সোহাগ, এম আসিফ আকবর, মেহেদী হাসান ও মিলন হোসেন।
৫নং কুশুলিয়া ইউনিয়নে এড. শেখ মোজাহার হোসেন কান্টু, শেখ আবুল কাশেম, মো. নুরুজ্জামান জামু ও জিএম সিরাজুল ইসলাম।
৬নং নলতা ইউনিয়নে আবুল হোসেন পাড় ও খাদেমুল ইসলাম তুফান।
৭নং তারালী ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান এনামুল হোসেন ছোট, শামসুল হুদা কবির, আশরাফুল ইসলাম ও অধ্যক্ষ একেএম শফিকুজ্জামান।
৮নং ভাড়াশিমলা ইউনিয়নে আব্দুল গফুর, আবুল হোসেন, নাজমুল হাসান নাঈম, শফিকুল ইসলাম ও সাইফুল ইসলাম।
৯নং মথুরেশপুর ইউনিয়নে ফিরোজ আহমেদ, শেখ শাহিনুর রহমান, আব্দুল হাকিম, জিএম মহিবুল্লাহ, সালাউদ্দিন আহমেদ, শেখ আব্দুল্লাহ ও শেখ ফিরোজ কবির কাজল।

১০নং ধলবাড়িয়া ইউনিয়নে সজল মুখার্জী, নাজমুল শাহাদাত রাজা, এড. হাবিব ফেরদৌস শিমুল, এসএম গোলাম ফারুক ও বর্তমান চেয়ারম্যান গাজী শওকত হোসেন।
১১নং রতনপুর ইউনিয়নে মনোনয়পত্র জমা দিয়েছেন বর্তমান আশরাফুল হোসেন খোকন, আলীম আল রাজি, আব্দুল ওহাব, আনোয়ার হোসেন, নাসিরউদ্দিন সরদার, শহিদুল ইসলাম ও সেলিম আহমেদ।
এবং ১২নং মৌতলা ইউনিয়নে আবেদন জমা দিয়েছেন দুলাল চন্দ্র ঘোষ, রুহুল আমিন, আশেক মেহেদী, গিয়াসউদ্দিন, মাহবুর রহমান সুমন, শেখ আবু আনছার উদ্দিন লাভলু ও লুৎফর রহমান।
কালিগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এনামুল হোসেন ছোট জানান, উপজেলার ১২ ইউনিয়নে নির্দ্ধারিত সময়ে (১০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত) ৬৪ জন নৌকা প্রতীক পাওয়ার জন্য আবেদন করেছেন। তিনি বলেন, এবার নৌকার মাঝি হতে হলে তাকে অবশ্যই দুর্নীতি মুক্ত, দক্ষ সংগঠক ও এলাকায় জনপ্রিয় হতে হবে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে এবার যোগ্য ব্যক্তিকে নৌকার মাঝি বানাবেন। কোন দুর্নীতিবাজ এবার নৌকার মাঝি হতে পারবেন না বলে জানান তিনি।