কালিগঞ্জে গ্রীষ্মকালীন ক্রীড়া প্রতিযোগিতা সম্পন্ন। ফুটবলে নাছরুল উলুম দাখিল মাদ্রাসা চ্যাম্পিয়ান


389 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
কালিগঞ্জে গ্রীষ্মকালীন ক্রীড়া প্রতিযোগিতা সম্পন্ন। ফুটবলে নাছরুল উলুম দাখিল মাদ্রাসা চ্যাম্পিয়ান
আগস্ট ২৬, ২০১৫ কালিগঞ্জ ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

সুকুমার দাশ বাচ্চু, কালিগঞ্জ :
কালিগঞ্জে ৪৪ তম জাতীয় স্কুল ও মাদ্রাসা গ্রীষ্মকালীন ক্রীড়া প্রতিযোগীতার ফুটবলে ফাইনাল খেলা বুধবার সকাল ৯ টায় কলেজ মাঠে অনুষ্ঠিত হয়েছে। খেলায় নাছরুল উলুম সিদ্দিকিয়া দাখিল মাদ্রাসা ১-০ গোলে কাজলা গরিবুল্লাহ বিশ্বাস দাখিল মাদ্রাসাকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ান হওয়ার গৌরব অর্জন করেছে।

খেলার শুরুতে প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্য রেখে খেলোয়াড়দের সাথে শুভেচ্ছা বিনিময় করেন কালিগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব শেখ ওয়াহেদুজ্জামান। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ভারপ্রাপ্ত শিমুল কুমার সাহা।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার নূর মুহাম্মাদ তেজারাত, কালিগঞ্জ কলেজের অধ্যক্ষ জি, এম রফিকুল ইসলাম, সাংবাদিক সুকুমার দাশ বাচ্চুর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন প্রাক্তন ইউপি সদস্য শেখ জামাল উদ্দীন, ফিফা রেফারী শেখ ইকবাল আলম বাবলু, কালিগঞ্জ পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ক্রীড়া শিক্ষক সৈয়দ মোমিনুর রহমান, কালিগঞ্জ মাদ্রাসা সুপার মাওলানা আব্দুর রহমান, গরীবুল্লাহ বিশ্বাস মাদ্রাসার সুপার মাওলানা আব্দুর রহিম, কালিগঞ্জ যুবলীগের সহ সভাপতি শেখ নুরুজ্জামান, তরুন লীগের সভাপতি শাহাজালাল, সম্পাদক আব্দুস সবুর, সৈনিক লীগের সম্পাদক আবু হেনা প্রমুখ। খেলার শেষে ৪৪ তম জাতীয় স্কুল ও মাদ্রাসার গ্রীষ্মকালীন বিভিন্ন ইভেন্টের পুরস্কার প্রদান করা হয়। ফুটবলে চ্যাম্পিয়ান, নাছরুল উলুম সিদ্দিকিয়া দাখিলা মাদ্রাসা, রানার্স আপ কাজলা গরীবুল্লাহ দাখিল মাদ্রাসা।

হ্যান্ডবলে বালিকা চ্যাম্পিয়ান কালিগঞ্জ পাইলট মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়, রানার্স আপ নলতা মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়। ফুববলে বালিকা চ্যাম্পিয়ান নলতা মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়, রানার্স আপ কালিগঞ্জ বালিকা বিদ্যালয়। খেলা প্রচুর দর্শক উপস্থিত ছিলেন। ২৭ আগস্ট থেকে জেলা পর্যায়ের খেলা অনুষ্ঠিত হবে।
##

কালিগঞ্জে বাল্য বিবাহ। ভ্রাম্যমান
আদালতে পিতাকে ৭ দিনের সাজা

কালিগঞ্জ প্রতিনিধি :
কালিগঞ্জ উপজেলার নলতা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের দশম শ্রেনীর ছাত্র ও ছাত্রী প্রেমের সূত্র ধরে বাল্য বিবাহের অভিযোগে ছেলের পিতা নলতা ইউনিয়নের ভাঙানমারী গ্রামের অহেদ আলী (৬২) কে আটক করে ভ্রাম্যমান আদালতে সাজা দিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) শিমুল কুমার সাহা। ঘটনাটি ঘটেছে বুধবার বেলা ১২টায় উপজেলা ভাঙানমারী গ্রামে।

জানাগেছে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শিমুল কুমার সাহা সঙ্গে পুলিশ ফোর্স নিয়ে ভাঙানমারী আব্দুল অহেদ আলীর বাড়ীতে যেয়ে তার ছেলে নলতা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের দশম শ্রেনীর ছাত্র রাফিজুল ইসলাম (১৬) ও একই গ্রামের মৃত আবু বক্কার সিদ্দিকের কন্যা একই শ্রেনীর আয়শা সিদ্দিকি সোনালী তারা নকল কাগজপত্র দেখিয়ে নোটারী পাবলিকের মাধ্যমে এ্যাভিটডেভিটের মাধ্যমে বাল্য বিবাহের সত্যতা মেলায়। ছেলের পিতা অহেদ আলীকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে। পরে ভ্রাম্যমান আদালতে নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) শিমুল কুমার সাহা ৭ দিনের সাজা প্রদান করেন।

মেয়েটির নামে অনেক সম্পদ থাকায় তাদের বিয়েতে ছেলের পরিবারের সহযোগীতা রয়েছে বলে জানা গেছে। বর্তমানে ছেলে ও মেয়ে উভয়ে পালিয়ে আছে।
##

কালিগঞ্জের জাতীয় পার্টির নেতা আব্দুল আজিজ আর নেই

কালিগঞ্জ প্রতিনিধি :
কালিগঞ্জ উপজেলার তারালী ইউনিয়ন জাতীয় পার্টির সভাপতি ও কালিগঞ্জ উপজেলার দপ্তর সম্পাদক আব্দুল আজিজ (৬৮) হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে গত ২৫ আগস্ট সন্ধ্যা সাড়ে ৬ টায় নিজ বাড়ীতে ইন্তেকাল করে। (ইন্না লিল্লাহে…….রাজিউন)।

তিনি মৃত্যুকালে স্ত্রী, ৪ ছেলে, ৪ মেয়ে, নাতি, নাতনী, আত্মীয়স্বজন ও গোনাগ্রাহী রেখে যান। তার মৃত্যুতে পরিবারের মধ্যে শোকের ছায়া নেমে আসে। এদিকে গতকাল বুধবার ১০ টায় মরহুমের নামাজের জানাযা তারালী নিজ বাড়ীর প্রাঙ্গনে অনুষ্ঠিত হয়।

তার জানাযায় উপস্থিত হয়ে শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়েছেন বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব শেখ ওয়াহেদুজ্জামান, তারালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এনামুল হোসেন ছোট, কালিগঞ্জ উপজেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি ও মথুরেশপুর ইউনিয়নের প্রাক্তন চেয়ারম্যান মোঃ মাহবুবুর রহমান, উপজেলা জাতীয় পার্টির সাধারণ সম্পাদক ও নলতা ইউনিয়নের প্রাক্তন চেয়ারম্যান মোঃ আনছার আলী, সাংগাঠনিক সম্পাদক সাদেকুর রহমান, জাতীয় পার্টির নেতা শিক্ষক আব্দুস সালাম, রজব আলী শাহাজী, মরহুমের পোতা কালিগঞ্জ সায়েন্স কম্পিউটারের প্রোপাইটর জি, এম ইয়াছিন আরাফাত রাব্বি প্রমুখ।

জানাযার নামাজে তারালী ইউনিয়ন সহ বিভিন্ন এলাকার বিপুল সংখ্যক মানুষ উপস্থিত ছিলেন। জানাযার নামাজ শেষে তাকে পারিবারিক কবর স্থানে দাফন করা হয়।