কালিগঞ্জে ফণীর আঘাতে সম্পূর্ণ ক্ষতিগ্রস্ত বাড়ি ১২০ : আংশিক ১২৯০


204 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
কালিগঞ্জে ফণীর আঘাতে সম্পূর্ণ ক্ষতিগ্রস্ত বাড়ি ১২০ : আংশিক ১২৯০
মে ৫, ২০১৯ কালিগঞ্জ দুুর্যোগ ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

ডেস্ক রিপোর্ট ::

কালিগঞ্জে ৩ মে দিবাগত রাতে উপজেলার ১২ ইউনিয়নে ঘরবাড়ি, মাছের ঘের, গাছ, ফসলের ক্ষেতে নানামূখী ক্ষতির সম্মুখিন হয়েছে। তবে জনমনে ঘূর্ণিঝড়কে ঘিরে ব্যাপক আতঙ্ক সৃষ্টি হলেও বাতাসের গতিবেগ তুলনামূলক কম এবং প্রশাসনের পক্ষ থেকে সতর্কতামূলক বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করায় ক্ষতির পরিমাণও কম হয়েছে বলে মনে করছেন সচেতন মহল।
কালিগঞ্জ উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মিরাজ হোসেন খান জানান, ঘুর্ণিঝড় ফণীর আঘাতে উপজেলায় ১২০ বাড়ি সম্পূর্ণরূপে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। আংশিক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ১ হাজার ২৯০টি বাড়ি। এর মধ্যে চাম্পাফুল ইউনিয়নে আংশিক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ২৫০টি বাড়ি, নলতা ইউনিয়নে আংশিক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ৯৪ টি এবং সম্পূর্ণ ক্ষতিগ্রস্ত ৪৬ টি, বাড়ি, ভাড়াশিমলা ইউনিয়নে আংশিক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ৪২টি, তারালী ইউনিয়নে আংশিক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ৯০টি বাড়ি, দক্ষিণ শ্রীপুর ইউনিয়নে আংশিক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ৫০টি, সম্পূর্ণ ক্ষতিগ্রস্ত ১৫টি, বিষ্ণুপুর ইউনিয়নে আংশিক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ২০৭টি, সম্পূর্ণ ক্ষতিগ্রস্ত ৭টি, কৃষ্ণনগর ইউনিয়নে আংশিক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ৩৫টি, সম্পূর্ণ ৫ ক্ষতিগ্রস্ত টি, মৌতলা ইউনিয়নে আংশিক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ৫৩টি, সম্পূর্ণ ক্ষতিগ্রস্ত ১৮টি, রতনপুর ইউনিয়নে আংশিক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ৪২টি, ধলবাড়িয়া ইউনিয়নে আংশিক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ১৫০টি এবং সম্পূর্ণ ক্ষতিগ্রস্ত ১০টি, মথুরেশপুর ইউনিয়নে আংশিক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ২০০টি এবং সম্পূর্ণ ক্ষতিগ্রস্ত ১৫টি, কুশুলিয়া ইউনিয়নে আংশিক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ২০টি এবং সম্পূর্ণ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ১টি বাড়ি। মানুষ বা গবাদি পশু হতাহতের ঘটনা ঘটেনি বলে তিনি জানান।
এছাড়া কালিগঞ্জ নাছরুল উলুম সিদ্দিকীয়া দাখিল মাদ্রাসা ও বড়শিমলা কারবালা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের টিনের চাল উপড়ে গেছে। উপজেলার বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের টিনের চাল ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বলে জানা গেছে। বেশকিছু গাছের ডাল ভেঙেছে এবং সম্পূর্ণ উপড়ে গেছে। ক্ষতির সম্মুখিন হয়েছে ফসলের ক্ষেত।
কালিগঞ্জ উপজেলার নির্বাহী অফিসার সরদার মোস্তফা শাহিন জানান, ঘূর্ণিঝড় ফণীর সম্ভাব্য ক্ষয়ক্ষতি থেকে রক্ষা পেতে কালিগঞ্জ উপজেলা প্রশাসন ব্যাপক প্রস্তুতি গ্রহণ করে। বৃহস্পতিবার জনসচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে উপজেলার প্রতিটি ইউনিয়নে মটর সাইকেল র‌্যালি ও মাইকিং করার কারণে মানুষ দ্রুত সাইক্লোন শেল্টারে আশ্রয় নিয়েছিলেন। এজন্য জানমালের তেমন ক্ষতি হয়নি।