কালিগঞ্জে বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধকে জানি অনুষ্ঠান


254 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
কালিগঞ্জে বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধকে জানি অনুষ্ঠান
সেপ্টেম্বর ২৬, ২০১৯ কালিগঞ্জ ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

সুকুমার দাশ বাচ্চু ::

কালিগঞ্জ পাইলট মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের আয়োজনে মাধ্যমিক উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের চলমান কর্মসূচী অনুযায়ী প্রত্যেকটি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমান ও মুক্তিযোদ্ধা কে জানি কার্যক্রমের অংশ হিসাবে কালিগঞ্জ পাইলট মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেণী শিক্ষার্থীদের দল ভিত্তিক মুক্তিযোদ্ধা, প্রত্যাক্ষ ব্যক্তি, শহীদ পরিবারের সন্তান সাক্ষাতকার ভিডিও ধারন করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২৬ সেপ্টেম্বর) সকাল ১০ টায় সকালে প্রধান শিক্ষক রবিন্দ্রনাথ বাছাড় এর সার্বিক তত্ববোধনে এবং শিক্ষক সুকুমার দাশ বাচ্চু’র সঞ্চালনায় মুক্তিযুদ্ধের সাক্ষাতকার অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বীর মুক্তিযোদ্ধা, সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রাক্তন প্রধান শিক্ষক ও কবি আলহাজ্ব এস.এম মমতাজ হোসেন মন্টু, বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ আবুল হোসেন, মহান মুক্তিযুদ্ধের প্রত্যক্ষদর্শী, কালিগঞ্জ সরকারি কলেজের সাবেক অধ্যাপক বিশিষ্ট সাহিত্যিক গাজী আজিজুর রহমান ও শহীদ মুক্তিযোদ্ধার সন্তান, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী রমজান আলী। প্রথমে তাদের কে বিদ্যালয়ের আগমন উপলক্ষ্যে স্কাউট, সেলুট ও করতালীর মাধ্যমে স্বাগত জানানো হয়। পরে প্রধান শিক্ষকের কার্যালয়ে তাদের কে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা ও সংবর্ধনা প্রদান করা হয়। সাক্ষাতকার গ্রহনে সহায়তা করেন কালিগঞ্জ পাইলট মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের সহকারি প্রধান শিক্ষক খাঁন আবুল বাসার, সহকারী শিক্ষিকা কনিকা সরকার, আব্দুল কুদ্দুস, রওশনারা, রঞ্জিতা রানী দাশ, শাহাজান আলম, সাঈদুজ্জামান প্রমূখ। । এসময় সাংবাদিক হিসাবে উপস্থিত ছিলেন কালিগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাংগঠনিক সম্পাদক হাফিজুর রহমান শিমুল, তথ্য বিষয়ক সম্পাদক এসএম আহম্মাদ উল্যাহ বাচ্ছু। ভিডিও ধারণে ছিলেন সুন্দরবন ভিডিও এর পরিচালক হাবিবুর রহমান হবি। বিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেনীর শিক্ষার্থীরা বীর মুক্তিযোদ্ধা এস,এম মমতাজ হোসেন মন্টু, বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ আবুল হোসেন, মুক্তিযোদ্ধার প্রতাক্ষদর্ষী অধ্যাপক গাজী আজিজুর রহমান ও শহীদ মক্তিযোদ্ধা সন্তান রমজান আলী কে পৃথক ভাবে সাক্ষাতকার গ্রহন করেন এবং মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি বিজড়ীত স্থান কালিগঞ্জ ডাক বাংলা মোড়ে বর্ধভূমি, গনকবর, যুদ্ধের স্থান পরিদর্শন করেন।