কালিগঞ্জ সংবাদ॥ ভ্র্যমমান আদালতে গাজা ব্যবসায়ীকে জরিমানা


423 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
কালিগঞ্জ সংবাদ॥ ভ্র্যমমান আদালতে গাজা ব্যবসায়ীকে জরিমানা
মে ১৬, ২০১৬ কালিগঞ্জ ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

কালিগঞ্জ প্রতিনিধিঃ
কালিগঞ্জ উপজেলায় ভ্রাম্যমান আদালতের মাধম্যে এলাকার চিহ্নিত গাজা ব্যবসায়ী জাহাঙ্গীর আলম মনি (৩৫) কে তিন হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। সে ধলবাড়িয়া ইউনিয়নের গোবিন্দপুর গ্রামের জহুরুল গাজির পুত্র। ভ্রাম্যমান আদালত সুত্রে জানাগেছে, কালিগঞ্জ থানা পুলিশ গোপন সংবাদের ভিত্তিত্বে জাহাঙ্গীর আলমকে গাজাসহ আটক করে গতকাল সোমবার দুপুরে ভ্রাম্যমান আদালতের নিবার্হী ম্যাজিট্রেট ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা গোলাম মাঈন উদ্দীন হাসান সাক্ষ্য প্রমানের ভিত্তিত্বে তাকে তিন হাজার টাকা জরিমানা করেন।  ###

কালিগঞ্জ মহিলা কলেজ উপজেলা পর্যায়ে শ্রেষ্ঠ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান নির্বাচিত
কালিগঞ্জ প্রতিনিধিঃ
কালিগঞ্জ উপজেলা সদরে অবস্থিত ঐতিহ্যবাহী নারী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান রোকেয়া মনসুর মহিলা কলেজ উপজেলা পর্যায়ে শ্রেষ্ঠ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হিসেবে নির্বাচিত হয়েছে। এছাড়াও কলেজের অধ্যক্ষ একেএম জাফরুল আলম বাবু শ্রেষ্ঠ অধ্যক্ষ এবং কলেজের আইসিটি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক নাজিমুদ্দীন আহম্মেদকে শ্রেষ্ঠ শ্রেণি শিক্ষক নির্বাচিত করা হয়। কলেজের সুন্দর অবকাঠামো, উন্নত পরিবেশে পাঠদান, সঠিক ব্যবস্থাপনা ও পরিচালনার মাধ্যমো ভাল ফলাফল অর্জনসহ বিভিন্ন বিষয় বিবেচনা করে জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহ উপলক্ষে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে এই মনোনয়ন প্রদান করা হয়। একই অনুষ্ঠান থেকে শ্রেষ্ঠ মাধ্যমিক বিদ্যালয়, শ্রেষ্ঠ মাদ্রাসা, শ্রেষ্ঠ শিক্ষক ও শ্রেষ্ঠ ছাত্র নির্বাচিত করা হয়। এদিকে রোকেয়া মনসুর মহিলা কলেজ উপজেলার শ্রেষ্ঠ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, কলেজের অধ্যক্ষ একেএম জাফরুল আলম বাবু শ্রেষ্ঠ অধ্যক্ষ এবং সহকারী অধ্যাপক নাজিমুদ্দীন আহম্মেদ শ্রেষ্ঠ শ্রেণি শিক্ষক নির্বাচিত হওয়ায় কলেজের সকল শিক্ষক, কর্মচারী, অভিভাবক ও পরিচালনা পর্ষদের পক্ষ থেকে তাদেরকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানানো হয়েছে।###

কালিগঞ্জ বঙ্গবন্ধু স্মৃতি সংসদের সাংগঠনিক সম্পাদক তুহিনের নাম প্রত্যাহারের দাবি
কালিগঞ্জ প্রতিনিধিঃ
কালিগঞ্জ উপজেলা বঙ্গবন্ধু স্মৃতি সংসদের সভাপতি শেখ তৌহিদুল ইসলাম ও কালিগঞ্জ উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভানেত্রী সংরক্ষিত আসনের ইউপি সদস্য জেবুন্নাহার জেবুর একমাত্র ছেলে ও কালিগঞ্জ বঙ্গবন্ধু স্মৃতি সংসদের সাংগঠনিক সম্পাদক শেখ তুহিন (২৫) কে কালিগঞ্জ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের শ্রমিকদের মধ্যে গোলযোগের মামলায় ষড়যন্ত্রমুলক ভাবে আসামি করা হয়েছে। মামলা থেকে শেখ তুহিনের নামে প্রত্যাহারের দাবী জানিয়ে বিবৃতি দিয়েছেন কালিগঞ্জ বঙ্গবন্ধু স্মৃতি সংসদের সহ-সভাপতি সাবেক ইউপি সদস্য গাজি ইসরাইল হোসেন, আব্দুল মতিন, নজরুল ইসলাম নজু, জাহাঙ্গীর হোসেন, যুগ্ম সম্পাদক শামছুজ্জামান, ফারুক হোসেন বিশ্বাস, সাবেক ইউপি সদস্য নুর মোহাম্মাদ পাড়, উপজেলা মহিলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদিকা শিখা রানী সরকার, যুগ্ম সম্পাদিকা তাহারিনা পারভীন, সংগঠনিক সম্পাদিকা আঁখিতারা বেগম, সদস্য দিপালী রানী ঘোষসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ। প্রসঙ্গত, সম্প্রতি আধিপত্য বিস্তার ও শ্রমিক ইউনিয়ন কাযালয়ের দখলকে কেন্দ্র করে বিবাদমান দ্র’গ্রুপের সংঘর্ষে কালিগঞ্জ সড়ক পরিবহণ শ্রমিক ইউনিয়নের একাংশের নেতা রাজু আহম্মেদ বাবু নিহত হন। এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে পুলিশ শেখ তুহিনকে আটক করে। পরবর্তীতে পুলিশের পক্ষ থেকে দায়ের হওয়া হত্যা মামলায় তাকে আসামি হিসেবে অন্তর্ভূক্ত করে। ###

কালিগঞ্জের পল্লীতে জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে সন্ত্রাসী হামলায় আহত-২
কালিগঞ্জ প্রতিনিধিঃ
কালিগঞ্জে জমিজমা সংক্রন্তের জেরধরে প্রতিপক্ষের সন্ত্রাসী হামলায় একবৃদ্ধ রক্তাক্ত জখম অবস্থায় কালিগঞ্জ হাসপাতলে চিকিৎসাধীন আছে। ঘটনাটি ঘটেছে ১৫ এপ্রিল সোমবার বেলা ১১ টার দিকে উপজেলার রহিমপুর গ্রামে। এঘটনায় হাসাপাতালে চিকিৎসাধীন শেখ নাসির উদ্দীনের ভাই শেখ গিয়াস উদ্দীন থানায় এজাহার দায়ের করেছে। লিখিত এজাহার সূত্রে জানায়ায়, রহিমপুর গ্রামের মৃত শেখ সিয়াম উদ্দীনের পুত্র শেখ নাসির উদ্দীন গংদের দীর্ঘদিনের ভোগ দখলীয় বসতভিটা প্রতিপক্ষ একই গ্রামের শেখ আব্দুর রাজ্জাকের পুত্র জাকির হোসেন (৩১) শেখ গোলাম রব্বানির পুত্র হাফিজুর রহমান (৫২) ও মজিহার রহমানের পুত্র শওকাত আলী (৪৯) গং জবর দখলের লক্ষে অতর্কিতভাবে হামলা চালায়। এঘটনায় শেখ নাসির উদ্দীন ও বাদী গিয়াস উদ্দীনের স্ত্রী সাবিনা ইয়াসমিন মারাত্বক ভাবে ফুলা জখম হয়। হামলা কারিরা জখমীদের কাছে থাকা নগদ টাকা, মোবাইল সেট ও সোনার গহনা  নিয়ে যায়। এসময় জখমিদের আতœচিৎকারে স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে থানা পুলিশকে দেখিয়ে কালিগঞ্জ হাসপাতালে ভর্ত্তি করে। জমি জবর দখলের ঘটনায় সন্ত্রাসী হামলায় বর্তমানে শেখ নাসির উদ্দীনের অবস্থা আশংঙ্খাজনক। এজাহারে উল্লেখিত এক নং আসামী জাকির হোসেন বাবু কালিগঞ্জ ফায়ার সাভির্স ষ্টেশনের চাকুরি করার সুবাদে ক্ষমতার অপব্যবহার করে অফিসের কোন প্রকার অনুমতি না নিয়ে এই সন্ত্রসী হামলা চালিয়েছে বলে একাধিক সুত্রে জানাগেছে। এঘটনায় সংশ্লিষ্ঠ এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে। যে কোন সময় ঘটতে পারে অনাভিপ্রেত ঘটনা।