কালিগঞ্জ সংবাদ ॥ আন্তর্জাতিক নারী দিবস পালিত


235 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
কালিগঞ্জ সংবাদ ॥ আন্তর্জাতিক নারী দিবস পালিত
মার্চ ৫, ২০২০ কালিগঞ্জ ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

সুকুমার দাশ বাচ্চু, কালিগঞ্জ::

কালিগঞ্জ উপজেলা প্রশাসন ও উপজেলা মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের আয়োজনে ৮ ই মার্চ আন্তর্জাতিক নারী দিবস উপলক্ষে ৫ মার্চ বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় উপজেলা পরিষদ প্রাঙ্গনে নারী সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। এ বছরে আন্তর্জাতিক নারী দিবসের প্রতিপাদ্য বিষয় প্রজন্ম হোক সমতার সকল নারীর অধিকার। ৮ মার্চ আন্তর্জাতিক নারী দিবস সফল করতে ৫ মার্চ বৃহস্পতিবার সারা দেশ ব্যাপী একযোগে মহিলা সমাবেশের কর্মসূচির অংশ হিসেবে কালিগঞ্জে নারী সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। নবযাত্রা ইউএসএআইডি খাদ্য নিরাপত্তা উন্নয়ন কার্যক্রম এর বাস্তবায়নে নারী সমাবেশ বক্তব্য রাখেন উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা মোঃ মোজাম্মেল হক রাসেল। কালিগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক সুকুমার দাশ বাচ্চু এর সঞ্চালনায় সমাবেশে বক্তব্য রাখেন নবযাত্রা ফিল্ড অফিস ম্যানেজার (ভারপ্রাপ্ত) লিনা হেলেনা গমেজ, উপজেলা জেন্ডার অফিসার লায়লা আরজুমান খানম, বাংলাদেশ সাংবাদিক সমিতি কালিগঞ্জ শাখার সভাপতি শেখ আনোয়ার হোসেন, সাংবাদিক আহম্মাদ উল্যাহ বাচ্চু, আতিকুর রহমান, শেখ মোদাচ্ছের হোসেন জান্টু, উপজেলা মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের সুপারভাইজার জয়দেব দত্ত, উপজেলার লেডিস ক্লাবের সম্পাদিকা ইলাদেবী মল্লিক, কালিগঞ্জ পাইলট মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষিকা কনিকা সরকারসহ নারী সমাবেশে বিভিন্ন সংগঠনের শতাধিক নারী উপস্থিত ছিলেন। নারীর ক্ষমতায়ন মর্যাদা সামাজিক ভাবে প্রতিষ্ঠিত স্বাবলম্বী সহ নারীদের সার্বিক বিষয়ে বর্তমান সরকার যুগান্তকারী পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। আগামী ৮ মার্চ সকাল ১০টায় আন্তর্জাতিক নারী দিবস উদযাপন উপলক্ষ্যে র‌্যালী সমাবেশ ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হবে। কালিগঞ্জ উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) নাসরিন জাহান অনুষ্ঠানের সংশ্লিষ্ট সকলকে উপস্থিত থাকার আহ্বান জানিয়েছেন।

#

অধ্যাপক আব্দুল খালেক অবশেষে না ফেরার দেশে চলে গেলেন
আজ বাদ জুম্মা শহীদ সামাদ স্মৃতি মাঠে জানাজার নামাজ

সুকুমার দাশ বাচ্চু, কালিগঞ্জ::

কালিগঞ্জ ডিগ্রী কলেজের অবসরপ্রাপ্ত অধ্যাপক, উপজেলা বিএনপি’র সাবেক সাধারণ সম্পাদক, ভাড়াশিমলা ইউনিয়নের সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান ও উপজেলা ভূমি কমিটির সভাপতি কালিগঞ্জের সর্বস্তরের মানুষের কাছে সর্বজন শ্রদ্ধেয় ব্যক্তি অধ্যাপক আব্দুল খালেক স্যার আর আমাদের মধ্যে নেই। সকল জল্পনা-কল্পনার আশা-আকাঙ্খার অবসান ঘটিয়ে অবশেষে ৫ মার্চ বৃহস্পতিবার বেলা সােেড় ১২ টায় খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল জরুরী বিভাগে চিকিৎসাধীন অবস্থায় না ফেরার দেশে চলে যান। ইন্নালিল্লাহি………রাজিউন) মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৬৫ বছর। তিনি স্ত্রী দুই কন্যা আত্মীয়-স্বজন গুনগ্রাহী রেখে যান। তার মৃত্যুতে পরিবারসহ সকলের মাঝে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। বৃহস্পতিবার বিকাল পাঁচটার দিকে মরহুমের মৃতদেহ খুলনা থেকে গ্রামের বাড়ি কালিগঞ্জ উপজেলার ভাড়াশিমলা ইউনিয়নের পশ্চিম নারায়নপুর গ্রামের বাড়িতে নিয়ে আসা হয়। শুক্রবার জুম্মা বাদ কালিগঞ্জ শহীদ সামাদ স্মৃতি ফুটবল ময়দানে মরহুমের জানাজা নামাজ অনুষ্ঠিত হবে বলে পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে। ১ মার্চ রবিবার বিকেল ৫টায় দিকে কালিগঞ্জ-শ্যামনগর কুকোডাঙ্গা মোড়ে মটর সাইকেল দূর্ঘটনায় মারাত্বক আহত হলে প্রথমে তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, নলতা হাসপাতাল ও পরে সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসাপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে তার অবস্থার অবনতি হলে চিকিৎসকদের পরামর্শে সন্ধ্যায় খুলনার সিটি মেডিকেল হাসপাতালে নিবিড় পর্যাবেক্ষনে আইসিইউতে রাখা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। এদিকে অধ্যাপক আব্দুল খালেক এর মৃতদেহ বাড়িতে নিয়ে এলাকাবাসী, রাজনৈতিক সহকর্মী, শিক্ষক, সাংবাদিক, ভূমি কমিটি সদস্য, বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দ, নারী পুরুষসহ সর্বস্তরের মানুষ তাকে এক নজর দেখা এবং শ্রদ্ধা জানানোর জন্য বাড়িয়ে যায় এবং গভীর শোক ও সমবেদনা জানায় অধ্যাপক আব্দুল খালেক স্যার এর মৃত্যুতে গভীর শোক ও সমাবেদনা জানিয়েছেন। কালিগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক সহ প্রেসক্লাবের সকল সদস্য এছাড়া তার মৃত্যুতে আওয়ামীলীগ, বিএনপি, জাতীয় পার্টি, জাসদসহ অন্যান্য রাজনৈতিক দল, উপজেলা ভূমি কমিটি, মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতি, কলেজ শিক্ষক সমিতি, বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক নেতৃবৃন্দ গভীরভাবে সমবেদনা জানিয়েছেন। উল্লেখ্য অধ্যাপক আব্দুল খালেক ছিলেন সময়ে উপযোগী একজন সাহসী প্রতিবাদী ব্যক্তি। তার মৃত্যুতে কালিগঞ্জ বাসি একজন সৎ ও সাহসী ব্যক্তি কে হারালেন।

#

কালিগঞ্জ উপজেলা পর্যায়ে দূর্নীতি বিরোধী বির্তক প্রতিগোগীতায় নলতা স্কুল জয়ী

সুকুমার দাশ বাচ্চু ::

কালীগঞ্জ উপজেলা পর্যায়ে দুর্নীতি বিরোধী জাতীয় বিতর্ক প্রতিযোগিতা ২০২০ অনুষ্ঠিত হয়েছে। বিতর্ক প্রতিযোগিতায় নলতা মাধ্যমিক বিদ্যালয় বিজয়ী হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় উপজেলা অডিটোরিয়ামে দুর্নীতি বিরোধী মনোভাব সৃষ্টিতে পরিবারের ভূমিকাই মুখ্য এই বিষয়ের পক্ষে নলতা মাধ্যমিক বিদ্যালয় দল ও বিষয়ের বিপক্ষে ভদ্রখালী মাধ্যমিক বিদ্যালয় দল বিতর্ক প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করে। দুর্নীতি দমন কমিশনের আয়োজনে ও উপজেলা প্রশাসনের ব্যবস্থাপনায় এবং অক্সফাম-ইন বাংলাদেশ ও চ্যানেল-আই এর সহযোগিতায় উপজেলা পর্যায়ে দুর্নীতি বিরোধী বিতর্ক প্রতিযোগিতার বিচারক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন কালিগঞ্জ উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার আবুল কালাম আজাদ। কালিগঞ্জ উপজেলা দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির সহ-সভাপতি অ্যাডভোকেট জাফরুল্লাহ ইব্রাহিম, সাধারণ সম্পাদক সুকুমার দাশ বাচ্চু। মডারেটর হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন সাংবাদিক অঅশেক মেহেদী। অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন উপজেলা দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির সদস্য ও সাংবাদিক সমিতির সভাপতি শেখ আনোয়ার হোসেন সমাপনী বক্তব্য রাখেন কালিগঞ্জ উপজেলা মানবাধিকার কমিশনের সভাপতি ওহিদুর রহমান ছোট, মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসের অফিস সহকারি বিশিষ্ট ছড়াকার আহমেদ সাব্বির। এ সময় বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান শিক্ষক ছাত্র-ছাত্রী সাংবাদিক গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। প্রতিযোগীতায় ১৭৬ নম্বর পেয়ে চাম্পিয়ান হওয়ার গৌরব অর্জন করে। নলতা মাধ্যমিক বিদ্যালয় তাদের দলে ছিলেন দলনেতা আবু রাহায়ান, অনিকা কবির ও সিগমা হামিদ। রানার্স আপ হয়েছে ভদ্রখালি মাধ্যমিক বিদ্যালয় এ দলের দলনেতা জয়া দত্ত, উজ্জ্বল ঘোষ ও শ্রুতি দে। বিতর্ক প্রতিযোগিতায় শ্রেষ্ঠ বক্তা নির্বাচিত হয় নলতা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের দলনেতা আবু রায়হান। প্রতিযোগীতায় বিজয়ী দল জেলা পর্যায়ে বিতর্ক প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করবে।

কালিগঞ্জ সোহরাওয়ার্দী পার্কে ১৯৭০ সালে বঙ্গবন্ধুর

ভাষন দেওয়ার স্থানটি চিহ্নিত করে মঞ্চ নির্মাণের সিদ্ধান্ত

সুকুমার দাশ বাচ্চু ::

কালিগঞ্জ সোহরাওয়ার্দী পার্কে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান যে স্থানে ভাষণ দিয়েছিলেন সেই স্থানটি চিহ্নিত করে বঙ্গবন্ধু মঞ্চ ও প্রতিকৃতি স্থাপন সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়েছে। ৫ মার্চ বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০টায় সোহরাওয়ার্দী পার্কে শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে উপজেলা স্থান চিহ্নিতকরণ কমিটির প্রথম সভা অনুষ্ঠিত হয়। ১৯৭০ সালে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কালিগঞ্জ শহীদ সোহরাওয়ার্দী পার্কে এক নির্বাচনী বক্তব্য প্রদান করেন। সেই সময় পার্কে বকুল তলার পাশে মঞ্চ নির্মাণ করা হয়। বঙ্গবন্ধু বিকালে আসবেন এই আশায় তখন হাজার হাজার জনসাধারণ তার বক্তব্য শোনার জন্য অপেক্ষায় ছিলেন। অবশেষে সন্ধ্যার পর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান একটি সাদা রংয়ের প্রাইভেটকার করে উত্তর কালিগঞ্জ বাজার পার হরিপদ সাহার মুদি দোকানের সামনে গাড়ি থেকে নামেন। হরিপদ সাহা দোকানের সামনে কিছু সময় অবস্থানের পর দলীয় নেতাকর্মী ও বিভিন্ন ব্যক্তিবর্গের সাথে শুভেচ্ছা বিনিময় করেন। এরপর নৌকায় করে নদী পার হয়ে জেলা পরিষদের ডাকবাংলার অবস্থান করেন। পরে সোহরাওয়ার্দী পাকের নির্দ্ধারিত মঞ্চে উপস্থিত উঠেন। তখন উপস্থিত সকলে করতালি দিয়ে বঙ্গবন্ধুকে শুভেচ্ছা অভিনন্দন জানান। ১৯৭০ সালে নভেম্বর মাসের শেষ দিকে আনুমানিক রাত ৮টার দিকে হ্যসাং লাইট আলোতেই তিনি বক্তব্য দেন। প্রায় ৫০ বছর পূর্বে বঙ্গবন্ধুর বক্তব্য দেওয়ার স্থানটি চিহ্নিত করে সেখানে মঞ্চ নির্মাণ ও সৌন্দর্যবর্ধনের জন্য পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে। উপজেলা প্রশাসনের তদারকিতে বঙ্গবন্ধুর ভাষণ দেওয়ার স্থানটি চিহ্নিত করণে একটি কমিটি গঠন করা হয়। কমিটির সভাপতি উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মাস্টার নরিম আলী মুন্সী এর সভাপতিত্বে এবং কমিটির সাধারণ সম্পাদক উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক ডেপুটি কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল হাকিমের নেতৃত্বে জায়গা চিহ্নিত করনে এ সময় উপস্থিত ছিলেন বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব আব্দুর রউফ, মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক সহকারী কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা মনির আহমেদ, বীর মুক্তিযোদ্ধা এসএম, মমতাজ হোসেন মন্টু, বীর মুক্তিযোদ্ধা মতলুবুর রহমান, বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল হোসেন, বীর মুক্তিযোদ্ধা আশরাফ হোসেন, বাংলাদেশ সাংবাদিক সমিতি কালিগঞ্জ শাখা সভাপতি শেখ আনোয়ার হোসেন, কালিগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক সুকুমার দাশ বাচ্চু, দৈনিক দৃষ্টিপাত এর প্রতিনিধি আশেক মেহেদী, কালিগঞ্জ প্রেসক্লাবের তথ্য ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক এসএম, আহম্মাদ উল্যাহ বাচ্চু, নির্বাহী সদস্য শেখ মোদাচ্ছের হোসেন জান্টু প্রমুখ। সভায় সিদ্ধান্ত হয় বঙ্গবন্ধু যে স্থানটিতে ১৯৭০ সালে ভাষণ দিয়েছিলেন সেই স্থানটি চিহ্নিত করে সংরক্ষন করতে হবে। জাতির জনকের জন্ম শতবার্ষিকী উপলক্ষে মুজিববর্ষে ১৭ ই মার্চ জাতীয় শিশু দিবসে স্বাধীনতার মহান স্থপতি হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্মৃতিবিজড়িত কালিগঞ্জের সেই স্থানে সুন্দর একটি মঞ্চ এবং বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি স্থাপন করা হবে। এজন্য উপজেলা প্রকৌশলী দিয়ে প্রাক প্রথম পর্যায়ে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। বিষয়টি উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সাঈদ মেহেদী ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ মোজাম্মেল হক রাসেল মহোদয় কে জানানো হয়। আগামী ১৭ ই মার্চ ২০২০ থেকে ১৭ ই মার্চ ২০২১ সাল পর্যন্ত মুজিব বর্ষ উপলক্ষে বিভিন্ন অনুষ্ঠানমালার আয়োজন থাকবে বঙ্গবন্ধুর কালিগঞ্জের স্মৃতিবিজড়িত স্থানে ১৭ ই মার্চ ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপনের মাধ্যমে শুভ সূচনা করা হবে।

#

কালিগঞ্জে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ

কমিটির সভা অনষ্ঠিত

সুকুমার দাশ বাচ্চু ::

কালিগঞ্জ উপজেলা করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ কমিটির প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কনফারেন্স রুমে স্বাস্থ্য প.প কর্মকর্তা ডাঃ শেখ তৈয়েবুর রহমানের সভাপতি প্রস্তুতি সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন কমিটির উপদেষ্ঠা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সাঈদ মেহেদী। উপজেলা সেনেটারী ইন্সেপেক্টর আব্দুস সোবহানের সঞ্চালনায় প্রস্তুতি সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন থানার অফিসার ইনচার্জ দেলোয়ার হুসেন, প্রাণি সম্পদ কর্মকর্তা ডাঃ মনোজিৎ কুমার মন্ডল, ডাঃ মৃত্যুঞ্জয় কুমার ঘোষ, ডাঃ মোওয়াজ আবরার, ডাঃ গোলাম মোস্তফা প্রমুখ।

#