কালো টাকা ব্যবহার : ভোমরা’র ৩ নং ওয়ার্ডের মেম্বর পদের উপ নির্বাচন বাতিল দাবি


869 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
কালো টাকা ব্যবহার : ভোমরা’র ৩ নং ওয়ার্ডের মেম্বর পদের উপ নির্বাচন বাতিল দাবি
এপ্রিল ২২, ২০১৭ ফটো গ্যালারি সাতক্ষীরা সদর
Print Friendly, PDF & Email

কালো টাকা ব্যবহারের মাধ্যমে ভোটারদের প্রভাবিত করার অভিযোগ এনে সাতক্ষীরা সদর উপজেলার ভোমরা ইউনিয়নের ৩ নং ওয়ার্ডের মেম্বর পদের উপ নির্বাচন বাতিল করে পুনরায় ভোট গ্রহণের দাবি জানিয়েছেন একজন পরাজিত প্রার্থী। শনিবার দুপুরে সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে এই দাবি জানান, মেম্বর পদে উপ-নির্বাচন প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারি শাখরা কোমরপুর গ্রামের মৃত আব্দুস সোবহানের ছেলে ডাঃ মোঃ মমিনুল ইসলাম মধু।

লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, ৬ নং ভোমরা ইউনিয়নের ৩ নং ওয়ার্ডের মেম্বর জাকির হোসেন মারা যাওয়ার কারনে গত ১৬ এপ্রিল ওই ওয়ার্ডে উপ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। নির্বাচানে তিনি ও সাহেব আলীসহ চারজন প্রার্থী মেম্বর পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। নির্বাচনের শুরু থেকেই যোগ্য প্রার্থী হিসাবে ওয়ার্ডে তিনি খুবই জনপ্রিয় ছিলেন। কিন্তু নির্বাচনের দিন এগিয়ে আসার সাথে সাথে কালো টাকার প্রভাব খাটিয়ে আমাকে হারানোর জন্য গভীর ষড়যন্ত্র হতে থাকে। তার প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থী সাহেব আলী ভোটের আগের রাতে ও ভোট গ্রহণের দিন কালো টাকার ব্যবহার শুরু করে দেয়। এসময় সে প্রায় ৩০/৪০ লাখ টাকার বিনিময় ভোট কিনে নেয়। এভাবে কালো টাকা ব্যবহারের মাধ্যমে ভোটারদের প্রভাবিত করে সে নির্বাচনে জয়লাভ করে।

তিনি অভিযোগ করে বলেন, নির্বাচনে এভাবে কালো টাকার ব্যবহার হতে থাকলে ভবিষ্যতে যোগ্য ব্যক্তিরা জনগণের খেদমত করার সুযোগ থেকে বঞ্চিত হবে। নির্বাচনে অংশ গ্রহণে আগ্রহ হারিয়ে ফেলবে সৎ ও যোগ্য প্রার্থীরা। তিনি তদন্তপূর্বক কালো টাকা ব্যবহারের মাধ্যমে ভোটারদের প্রভাবিত করার এই উপ নির্বাচনের ফলাফল বাতিল করে ভোমরা ইউনিয়নের ৩ নং ওয়ার্ডের মেম্বর পদে পুনরায় ভোট গ্রহণের দাবি জানান। এব্যাপারে তিনি নির্বাচন কমিশনসহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

এদিকে উপ নির্বাচনে মেম্বর পদে বিজয়ী সাহেব আলী জানান, ভোটে হেরে গিয়ে পরাজিত প্রার্থীরা তার বিরুদ্ধে  মিথ্যে অপপ্রচার চালাচ্ছে। আমার প্রতিপক্ষ কেউ হয়ত মধুকে ব্যবহার করছে। নির্বাচনে কালো টাকা ব্যবহারের কথা অস্বীকার করে তিনি বলেন, এলাকার জনগণ স্বতঃস্ফূর্তভাবে তাকে ভোট দিয়ে বিজয়ী করেছে।