কী বলছে পাকিস্তান ?


329 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
কী বলছে পাকিস্তান ?
ফেব্রুয়ারি ২৬, ২০১৯ প্রবাস ভাবনা ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

অনলাইন ডেস্ক ::

নিয়ন্ত্রণরেখা অতিক্রম করে (লাইন অব কন্ট্রোল) ভারতের বিমানবাহিনীর করা হামলায় ৩০০ জন জঙ্গি নিহত হওয়ার ঘটনায় যথা সময়ে এবং যথাযথভাবে জবাব দেবে পাকিস্তান।

মঙ্গলবার ভোরের এ হামলা নিয়ে এক জরুরি বৈঠকের পর সংবাদ সম্মেলনে দুপুরে পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাহমুদ কোরাইশী একথা জানান বলে সংবাদ মাধ্যম ডন জানিয়েছে।

তিনি বলেন, যথা সময়ে এবং যথাযথভাবে যুতসই স্থানে ভারতের হামলার জবাব দেবে পাকিস্তান। ভারতের হামলার বিষয়টি নিয়ে তারা বিশ্ব নেতৃবৃন্দের সঙ্গে আলাপ করছেন। সবাইকে সম্পৃর্ক্ত করা হচ্ছে।

প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের সভাপতিত্বে জাতীয় নিরাপত্তা কমিটির সঙ্গে এক জরুরি বৈঠকের পর সংবাদ সম্মেলনে আসেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাহমুদ কোরাইশী। অর্থমন্ত্রী আসাদ ওমর ও প্রতিরক্ষামন্ত্রী পারভেজ খটক এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

এ ঘটনায় তিনিসহ অর্থমন্ত্রী ও প্রতিরক্ষামন্ত্রীকে নিয়ে একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে জানিয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাহমুদ বলেন, এই কমিটি সংসদে সার্বিক বিষয়ে জানাবে। এতে দেশের জনগণ সঠিক ধারণা পাবে।

গত ১৪ ফেব্রুয়ারি ভারত নিয়ন্ত্রিত জম্মু-কাশ্মীরের পুলওয়ামায় সিআরপিএফ গাড়িবহরে আত্মঘাতী হামলায় ৪০ জন জওয়ানের মৃত্যু হয়। এর পর থেকেই ভারত-পাকিস্তানের মধ্যে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়েছে। হামলার পর দায় স্বীকার করেছে পাকিস্তানের জঙ্গি সংগঠন জয়েশ-ই-মোহাম্মদ।

ভারতের পক্ষ থেকে পাকিস্তানকে ওই হামলা নিয়ে দোষারোপ করা হলেও; পাকিস্তান বলছে এ হামলায় তাদের কোনও দায় নেই। এর মধ্যেই মঙ্গলবার ভোরে নিয়ন্ত্রণরেখা অতিক্রম করে হামলা চালিয়েছে ভারত।

সংবাদ সম্মেলনে মাহমুদ কোরাইশী বলেন, যে স্থানে ভারত হামলা চালিয়েছে; সেখানে দেশী ও আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যমকে নিয়ে ঘটনা দেখানো হবে। হেলিকপ্টার প্রস্তুত আছে, এখন শুধু আবহাওয়া ঠিক থাকলেও রওনা হব আমরা। সারা বিশ্বকে ভারতের অপপ্রচার সর্ম্পকে জানাতে চাই।

ভারতের হামলার ব্যাপারে বিশ্বের নেতৃবৃন্দের সঙ্গে আলাপ চলছে জানিয়ে তিনি বলেন, বিভিন্ন দেশে পাকিস্তানের প্রতিনিধি ওই দেশের কর্তৃপক্ষের সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে আলাপ করছে।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাহমুদ বলেন, ইতিমধ্যে ওআইসির একটি বৈঠক শুরু হয়েছে; সেখানে ভারতের হামলার ব্যাপারটি উপস্থাপন করা হয়েছে।

তিনি জানান, সংযুক্ত আরব আমিরাতের ক্রাউন প্রিন্স শেখ মোহাম্মদ বিন জায়েদ আল নাহিয়ান এবং সৌদি ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমানের সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান ফোনে কথা বলেছেন।