কুষ্টিয়ায় ‘বন্দুকযুদ্ধে ২ ডাকাত সর্দার’ নিহত


355 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
কুষ্টিয়ায় ‘বন্দুকযুদ্ধে ২ ডাকাত সর্দার’ নিহত
ফেব্রুয়ারি ১৯, ২০১৯ জাতীয় ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

অনলাইন ডেস্ক ::

কুষ্টিয়ায় পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে আন্তঃজেলা ডাকাত দলের দুই সর্দার’ নিহত হয়েছে। মঙ্গলবার ভোর চারটার দিকে দৌলতপুর উপজেলার আদাবাড়িয়া-ডাংমড়কা সড়কের পেটকাটা ডহর নামক স্থানে এ ঘটনা ঘটে। নিহত দু’জন হলেন- মোফাজ্জেল হোসেন ওরফে মোফা (৪২) ও মহাবুল (৪০)। ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ দু’টি এলজি বন্দুক, চার রাউন্ড গুলি ও একটি রামদা উদ্ধার করেছে।

নিহত মোফাজ্জেল হোসেন ওরফে মোফা উপজেলার গরুড়া গ্রামের মছের মন্ডলের ছেলে ও মহাবুল কৈপাল গ্রামের আব্দুর রহিমের ছেলে। মোফার বিরুদ্ধে দৌলতপুর থানায় দশটিসহ মোট ১৫টি ও মহাবুলের নামে দৌলতপুর থানায় পাঁচটিসহ মোট ৭টি মামলা রয়েছে।

পুলিশের দাবি, এ ঘটনায় তাদের কয়েক সদস্য আহত হয়েছে। তারা হলেন- দৌলতপুর থানার এএসআই আসাদুল ইসলাম ও কনস্টেবল জিয়াউর রহমান। তাদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

দৌলতপুর থানার ওসি নজরুল ইসলাম জানান, একদল ডাকাত পেটকাটা ডহর এলাকার একটি তামাক ক্ষেতের পাশে ডাকাতির প্রস্তুতি নিচ্ছে- এমন সংবাদের ভিত্তিতে এসআই সাইফুল ইসলামের নেতৃত্বে দৌলতপুর থানা পুলিশের একটি টিম ঘটনাস্থলে অভিযানে যায়। এ সময় ডাকাতেরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছুড়লে পুলিশও পাল্টা গুলি ছোড়ে। ডাকাতদল পালিয়ে গেলে ঘটনাস্থল থেকে মোফাজ্জেল হোসেন ওরফে মোফা ও মহাবুলকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করা হয়। এরপর তাদের দৌলতপুর হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে অস্ত্র ও গুলি করেছে।

তিনি আরও জানান, মোফাজ্জেল হোসেন ওরফে মোফা ও মহাবুল জেলার শীর্ষ ডাকাত সর্দার ছিল। কুষ্টিয়া জেলাসহ আশেপাশের জেলায় তারা ডাকাতির নেতৃত্ব দিত। তাদের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে।