কৃষক সংগ্রাম সমিতির খুলনার ১০ম জেলা সম্মেলন সম্পন্ন


266 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
কৃষক সংগ্রাম সমিতির খুলনার  ১০ম জেলা সম্মেলন সম্পন্ন
নভেম্বর ৬, ২০১৫ খুলনা বিভাগ ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

খুলনা প্রতিনিধি :
শুক্রবার সকাল ১১ টায় জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলনের মাধ্যমে ১০ জেলা সম্মেলন উদ্বোধন করা  হয়। জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেন সংগঠনের কেন্দ্রীয় সভাপতি শ্যামল কুমার ভৌমিক এবং সংগঠনের পতাকা উত্তোলন করেন কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক শাহজাহান কবির। দৌলতপুর শেখ মতিয়ার রহমান কমিউনিটি সেন্টারে খুলনা জেলা সম্মেলনের দ্বিতীয় পর্বে সভাপতিত্ব করেন খুলনা জেলার সভাপতি অধ্যাপক তাপস বিশ্বাস। প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন কৃষক সংগ্রাম সমিতির কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি শ্যামল কুমার ভৌমিক, বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক শাহজাহান কবির, যুগ্ম সম্পাদক কামরুল হক লিকু। আরও বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ ট্রেড ইউনিয়ন সংঘ খুলনা জেলা শাখার সভাপতি নাজিউর রহমান নজরুল, জাতীয় গণতান্ত্রিক ফ্রন্ট কেন্দ্রীয় কমিটির দপ্তর সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম মুকুল, খুলনা জেলা শাখার সভাপতি আবুল হোসেন, এ্যাডভোকেট আহাদ আলী লস্কর, ইউনাইটেড কমিউনিস্ট লীগের খুলনা জেলা শাখার সদস্য আনিসুর রহমান মিঠু প্রমুখসহ খুলনা জেলা বিভিন্ন উপজেলার নেতৃবৃন্দ।

সম্মেলনের মধ্য দিয়ে আন্দোলনের কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়। মোহাম্মদ গিয়াস উদ্দীনকে সভাপতি এবং নিবিড় কান্তি বিশ্বাস মিঠুকে সাধারণ সম্পাদক ও সমীর বাড়ৈকে সাংগঠনিক সম্পাদক করে ২১ সদস্য বিশিষ্ট খুলনা জেলা কমিটি গঠন করা হয়। কমিটিকে শপথ বাক্য পাঠ করান কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক শাহজাহান কবির।। সভাপতির বক্তব্যের মাধ্যমে সম্মেলনের কার্যক্রম সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়।

প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে বলেন, এদেশের কৃষক ও কৃষির সমস্যা সমাধানে কোন সরকারই ভূমিকা রাখে না। চলতি সময়ে দেশে সা¤্রাজ্যবাদের আভ্যন্তরিণ দ্বন্দ্বে শাসক-শোষক গোষ্ঠীর দ্বন্দ্ব-সংঘাতে রূপ পেয়েছে। এতে সব থেকে ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে শ্রমিক-কৃষক মেহনতি জনগণ। পৃথিবীর দেশে দেশে সা¤্রাজ্যবাদের সৃষ্ট সংকটে জনগণকে সকল ক্ষতির দায়ভার চাপিয়ে নিজেদের লুটপাটকে বৃদ্ধি করে চলেছে। এ প্রেক্ষিতে আগামী সম্ভাব্য বিশ্বযুুদ্ধ ও এই যুদ্ধে বাংলাদেশকে সম্পৃক্ত করার বিরুদ্ধে এদেশের কৃষক সমাজসহ সকল শ্রেণি-পেশার মানুষকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানান।

শাহজাহান কবির বলেন, আশু ৭ দফাসহ জলাবদ্ধতা ও স্থানীয় বিভিন্ন ইস্যুতে আন্দোলন-সংগ্রাম গড়ে তোলার সাথে বাংলাদেশের কৃষি ও কৃষককে রক্ষা করার জন্য ভূমিহীন কৃষকের হাতে জমি ও কাজ দিতে হবে। সার, ডিজেলের দাম কমাতে হবে এবং বিনামূল্যে বীজ ও কীটনাশক দিতে হবে। চাষের জমি নষ্ট করে অপরিকল্পিত আবাসন, রাস্তা-ঘাট এমনকি শিল্প স্থাপনের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ আন্দোলন গড়ে তোলার আহ্বান জানান। #