কেশবপুর সংবাদ ॥ ক্যান্সারে আক্রান্ত শিক্ষককে এসিটি এ্যসোসিয়েশনের এক লক্ষ টাকা অনুদান


154 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
কেশবপুর সংবাদ ॥ ক্যান্সারে আক্রান্ত শিক্ষককে এসিটি এ্যসোসিয়েশনের এক লক্ষ টাকা অনুদান
মে ২২, ২০১৮ খুলনা বিভাগ ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

আব্দুল্লাহ আল ফুয়াদ, কেশবপুর ::
কেশবপুরে মরণব্যাধি ক্যান্সারে আক্রান্ত শিক্ষক হাদিউজ্জামান রিপনের পাশে দাড়িয়েছেন সহকর্মীরা । উপজেলার কন্দর্পপুর গ্রামের আব্দুল হান্নানের ছেলে হাদিউজ্জামন রিপন মরণব্যাধি ব্­াড ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়েছেন। তিনি পাতরা পল্লী উন্নয়ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সেকায়েপের শিক্ষক হিসেবে কর্মরত ছিলেন । গত প্রায় দুই সপ্তাহ পূর্বে দূরারোগ্য ব্যধিতে আক্রান্ত ওই শিক্ষককে অর্থাভাবে উন্নত চিকিৎসা করানো পরিবারের পক্ষে সম্ভব হচ্ছে না । এসময় ওই শিক্ষকের পাশে দাড়িয়েছেন উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার রবিউল ইসলাম ও উপজেলা এসিটি এ্যাসোসিয়েশন । তাদের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় উপজেলার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে সাহায্য সংগ্রহ করা হয়। মঙ্গলবার উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ভারপ্রাপ্ত) মো. কবীর হোসেন অনুষ্ঠানিক ভাবে সাহায্যের একলক্ষ টাকার চেক উন্নত চিকিৎসার জন্য ক্যান্সারে আক্রান্ত শিক্ষক হাদিউজ্জামান রিপনের পিতা আব্দুল হান্নানের হাতে তুলে দেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার রবিউল ইসলাম,কেশবপুর এসিটি এ্যসোসিয়েশনের সভাপতি মনিরুজ্জামান শাহিন, সহ-সভাপতি মৃত্যুঞ্জয় মুখার্জী,সাধারণ সম্পাদক রাশেদুল ইসলাম,প্রচার সম্পাদক তন্ময় ধর, বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের সেকায়েপের শিক্ষকদের মধ্যে আলমগীর হোসেন,আজহারুল ইসলাম,আব্দুল্লাহ,আসাদুজ্জামান নয়ন,মেহেদি হাসান,মোফাজ্জেল হোসেন,মুস্তাফিজুর রহমান প্রমুখ। তিনি বর্তমানে খুলনার একটি হাসাপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। শিক্ষক হাদিউজ্জামানের পরিবার সমাজের বিত্তবান মানুষের সাহায্য সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেয়ার জন্য আনুরোধ জানিয়েছেন। সাহায্য পাঠাতে শিক্ষক হাদিউজ্জামান রিপনের ০১৭৬০১১২৫৩৩ নাম্বারে যোগাযোগ করার জন্য পরিবারের পক্ষ থেকে অনুরোধ করা হয়েছে।
##
কেশবপুরে ছাত্রলীগ নেতাকর্মীর ওপর হামলা ॥ আহত ৪ আটক ৩
আব্দুল্লাহ আল ফুয়াদ, কেশবপুর ::
কেশবপুরে পূর্ব শত্র“তার জের ধরে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীর ওপর যুবদলের হামলায় ৪ ছাত্রলীগ নেতাকর্মী গুরুতর আহত হয়ে কেশবপুর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। তাৎক্ষণিক পুলিশ অভিযান চালিয়ে ঘটনার সাথে জড়িত ৩ জনকে আটক করেছে। এ ঘটনায় ছাত্রলীগ নেতা শাহীন বাদী হয়ে কেশবপুর থানায় মামলা করেছে। যার নং- ২৭ তাং- ২২/৫/১৮।
জানা গেছে, সোমবার রাতে উপজেলার বঙ্গবন্ধু ছাত্র পরিষদের আহবায়ক ও পৌর ছাত্রলীগ নেতা সবুজ হোসেন নিরব শহরের বায়সা মোড়ে তার রাজনৈতিক অফিসে ৫/৬ জন দলীয় নেতাকর্মীদের সাথে নিয়ে মিটিং করছিলেন। এ সময় পূর্ব শত্র“তার জের ধরে যুবদলের নেতা ইব্রাহিম হোসেনের নেতৃত্বে ১৫/১৬ জন নেতাকর্মী লাঠিসোটা নিয়ে তাদের ওপর হামলা চালায়। হামলায় পৌরসভার কাউন্সিলর জামাল উদ্দীন সরদারের ছেলে ছাত্রলীগ নেতা শাহীন, সোহেল, শামীম ও বিল্ল¬াল হোসেন গুরুতর আহত হয়। এলাকাবাসি তাদের উদ্ধার করে কেশবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপে¬ক্সে ভর্তি করেছে। ওই রাতেই পুলিশ অভিযান চালিয়ে সাবদিয়া গ্রামের ইয়াছিন বিশ্বাসের ছেলে যুবদল নেতা ইব্রাহিম হোসেন, আলতাপোল গ্রামের আলি বিশ্বাসের ছেলে দেলোয়ার হোসেন, গোপাল বিশ্বাসের ছেলে নান্টু বিশ্বাসকে আটক করে। এ ঘটনায় ছাত্রলীগ নেতা শাহীন বাদি হয়ে ১১ জনের নাম উলে¬খসহ অজ্ঞাত ১৫/২০ জনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা করেছে।
এ ব্যাপারে আলতাপোল ওয়ার্ড কাউন্সিলর আফজাল হোসেন বাবু বলেন, গত এক সপ্তাহ আগে শাহীনের নেতৃত্বে যুবদল কর্মী নান্টুর ওপর হামলা চালানো হয়। এসব দ্বন্দ্বের জের ধরে ওই হামলার ঘটনা ঘটেছে।
কেশবপুর থানার অফিসার ইনচার্জ সৈয়দ আব্দুল্লা বলেন, এ ঘটনায় থানায় মামলা হওয়া পর থেকে অন্য আসামীরা পলাতক রয়েছে। গ্রেফতার অভিযান অব্যাহত রয়েছে।
##