কোহলির বেঙ্গালুরুকে উড়িয়ে তালিকার শীর্ষে ধোনির চেন্নাই


101 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
কোহলির বেঙ্গালুরুকে উড়িয়ে তালিকার শীর্ষে ধোনির চেন্নাই
সেপ্টেম্বর ২৫, ২০২১ খেলা ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

অনলাইন ডেস্ক ::

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে (আইপিএল) ‘সাউথ-ডার্বি’ নামে পরিচিত চেন্নাই সুপার কিংস বনাম রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরু। এই দুই দলে নেতৃত্ব দিচ্ছেন ভারতীয় ক্রিকেটের দুই সুপার স্টার। চেন্নাইয়ের নেতৃত্বে রয়েছেন সাবেক অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি। বেঙ্গালুরুতে বর্তমান অধিনায়ক বিরাট কোহলি।

বৃহস্পতিবার রাতে শারজায় মুখোমুখি হয় এই দুই দল। পয়েন্ট তালিকার লড়াইয়ে এবার এগিয়ে গেল ধোনির চেন্নাই। কোহলির বেঙ্গালুরুকে হারিয়ে তালিকার শীর্ষে উঠে গেল চেন্নাই।
মরুঝড়ের কারণে খেলাও শুরু হয় দেরিতে। আগে ব্যাটিং করে ঝড় তোলে বেঙ্গালুরু। তবে বিরাট কোহলি ও দেবদূত পাড়িক্কালের গতি কমিয়ে আনতে সময় নিল না চেন্নাই। একসময় ২০০ রানের স্কোরও যেখানে মনে হচ্ছিল নাগালে, সেই বেঙ্গালুরুই থামল ১৫৬ রানে।

পরে বোলিংয়ে যুজবেন্দ্র চাহাল-গ্লেন ম্যাক্সওয়েলের সঙ্গে হার্শাল প্যাটেল একটু আশা জোগালেও চেন্নাইকে আটকাতে পারেনি বেঙ্গালুরু। ৬ উইকেটের জয়ে দিল্লি ক্যাপিটালসকে টপকে শীর্ষেও চলে গেছে চেন্নাই। আইপিএলের পরের অংশে টানা দুই ম্যাচ হারল কোহলির বেঙ্গালুরু।

টস হেরে বেঙ্গালুরু আগে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা দারুণ হয়। বিরাট কোহলি ও দেবদূত পাড়িক্কালের ব্যাটে ভর করে ১৩.২ ওভারে বিনা উইকেটে ১১১ রান তুলে ফেলে। এরপর দ্রুত ৬টি উইকেট হারায় তারা। তাতে ৬ উইকেটে ১৫৬ রানের বেশি সংগ্রহ করতে পারেনি। ব্যাট হাতে কোহলি ৪১ বলে ৬ চার ও ১ ছক্কায় ৫৩ রান করেন। আর পাড়িক্কাল ৫০ বলে ৫ চার ও ৩ ছক্কায় করেন ৭০ রান। বাকিদের মধ্যে এবি ডি ভিলিয়ার্স ১২ ও গ্লেন ম্যাক্সওয়েল ১১টি রান করেন।

বল হাতে ডোয়াইন ব্রাভো তিনটি ও শার্দুল ঠাকুর দুটি উইকেট নেন।

১৫৭ রানের জয়ের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে চেন্নাই সুপার কিংসের দুই ওপেনার ঋতুরাজ গায়কোয়াড় ও ফাপ ডু প্লেসিস ভালো শুরু করেন। ৮.২ ওভারে তারা ৭১ রান তুলে ফেলেন। এরপর যুজবেন্দ্র চাহালের বলে কোহলির হাতে ক্যাচ দিয়ে আউট হন ঋতুরাজ। চারটি চার ও এক ছক্কায় ঋতুরাজ ২৬ বলে ৩৮ রান করে যান। একই রানে ডু প্লেসিসকে ফেরান গ্লেন ম্যাক্সওয়েল। দুই চার ও দুই ছক্কায় ২৬ বলে ৩১ করেন ডু প্লেসিস।

১৪তম ওভারের শেষ বলে মঈন আলীর উইকেট তুলে নেন হার্সাল প্যাটেল। ১৮ বলে দুই ছক্কায় ২৩ রান করেন মঈন আলী। ১৫.৪ ওভারের মাথায় প্যাটেলের বলেই আউট হন আম্বাতি রাইডু। তিনি ২২ বলে তিনটি চার ও এক ছক্কায় ৩২ রান করে যান। তখনও জয়ের জন্য চেন্নাইর প্রয়োজন ছিল ২৪ রান। সেখান থেকে দলকে জয়ের বন্দরে পৌঁছে দেন সুরেশ রায়না ও মহেন্দ্র সিং ধোনি। রায়না ১০ বলে ১৭ ও ধোনি নয় বলে ১১ রানে অপরাজিত থাকেন।

চার ওভারে ২৪ রান দিয়ে তিন উইকেট নিয়ে ম্যাচসেরা হন চেন্নাইয়ের ডোয়াইন ব্রাভো।