ক্রীড়াসহ বাংলাদেশ সকল ক্ষেত্রে এগিয়ে যাচ্ছে : ডাঃ রুহুল হক এমপি


399 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
ক্রীড়াসহ বাংলাদেশ সকল ক্ষেত্রে এগিয়ে যাচ্ছে : ডাঃ রুহুল হক এমপি
জানুয়ারি ২৬, ২০১৮ কালিগঞ্জ ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

সোহরাব হোসেন সবুজ, নলতা ::
ফুটবল এখনও জনপ্রিয় খেলা তা আবারও প্রমাণিত হয়েছে। ফুটবলকে বিশ্বমানে উন্নীত করতে চায় সরকার। বাংলাদেশ ক্রীড়াসহ সকল ক্ষেত্রে এগিয়ে যাচ্ছে। এজন্য বাংলাদেশ পৃথিবীর মধ্যে তার যোগ্য সম্মান অর্জন করেছে। জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ক্রীড়াসহ সকল ক্ষেত্রে দেশ দ্রুত গতিতে এগিয়ে যাচ্ছে। লেখাপড়ার পাশাপাশি ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক ক্ষেত্রে বর্তমান সরকার অনেক বেশি বরাদ্ধ দিচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার সরকার ফুটবল, ক্রিকেটসহ সকল খেলাধুলার উপর বিশেষ গুরুত্ব দিচ্ছে। সেজন্য প্রধানমন্ত্রী দেশের তৃণমূল পর্যায় থেকে খেলোয়াড় তৈরির জন্য দেশের প্রতিটি উপজেলায় একটি করে স্টেডিয়াম নির্মানের ঘোষণা দিয়েছেন। নানামুখী সাফল্যে বাংলাদেশ ২০২১ সালে মধ্যম আয়ের দেশে এবং ২০৪১ সালে উন্নত দেশের কাতারে দাঁড়াবে বলে আমরা বিশ্বাস করি। খেলা হলো একটি জাতির পরিচায়ক। খেলার মাধ্যমে খেলোয়াড়রাই দেশকে বিশ্বের দরবারে পরিচিতি করে। “মাদক ও সামাজিক অন্যান্য অসঙ্গতিকে না বলুন, খেলাধুলাকে হ্যাঁ বলুন” এ স্লোগানকে সামনে রেখে কালিগঞ্জ উপজেলার নলতা হাইস্কুল মাঠে সাবেক স্বাস্থ্য মন্ত্রী অধ্যাপক ডা. রুহুল হক এমপি’র পিতা- মাতার নামে আছিয়া-নজির স্মৃতি আট দলীয় নক-আউট ফুটবল টুর্ণামেন্টের ফাইনাল খেলার উদ্বোধনের সময় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।
ওমর হালদারের সভাপতিত্বে শুক্রবার বিকাল ৩ টায় অনুষ্ঠিত উক্ত ফাইনাল খেলায় দেশী-বিদেশী খেলোয়াড়ের সমন্বয়ে শ্যামনগরের চালতেঘাটা মহসিন রেজা ফুটবল একাদশ এবং কালিগঞ্জের কদমতলার পি.ডি.কে মিতালী সংঘ এর মধ্যে টানটান উত্তেজনাপূর্ণ খেলায় ২-১ গোলে বিজয়ী হয়ে অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করে শ্যামনগরের চালতেঘাটা মহসিন রেজা ফুটবল একাদশ।
খেলায় সেরা খেলোয়াড় বিবেচিত হন বিজয়ী দলের গোল রক্ষক মাসুদ এবং টুর্ণামেন্টের সেরা খেলোয়াড় বিবেচিত হন রানার্সআপ দলের খেলোয়াড় নানা। খেলা শেষে প্রধান অতিথি, বিশেষ অতিথিসহ অন্যান্য অতিথিবৃন্দ চ্যাম্পিয়ন মহসিন রেজা ফুটবল একাদশের মহসিনের হাতে ৮০ হাজার টাকার প্রাইজ মানি ও আছিয়া-নজির এর ছবিযুক্ত শিল্ড এবং রানার্সআপ পি.ডি.কে মিতালী সংঘের মাস্টার রফিকের হাতে ৫০ হাজার টাকার প্রাইজ মানি ও আছিয়-নজির এর ছবিযুক্ত শিল্ড। খেলা পরিচালনা করেন ঢাকা থেকে আগত ফিফা রেফারি মোঃ মিজানুর রহমান। সহকারী ছিলেন ফিফা রেফারী শেখ ইকবাল আলম বাবলু, স্বপন কুমার,মোমিনুর রহমান ও সুকুমার দাশ বাচ্চু। ধারাভাষ্যকর ছিলেন শিক্ষক শেখ আলমগীর কবির, ইসমাঈল হোসেন মিলন। খেলার পূর্বে প্রধান অতিথি বেলুন উড়িয়ে খেলার উদ্বোধন করেন। খেলা শেষে দেশি-বিদেশী আতোষবাঁজি প্রদর্শনী হয়।
নলতা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি মোঃ তারিকুল ইসলামের তত্ত্বাবধানে খেলায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, সিভিল সার্জন ডাঃ তওহীদুর রহমান, কালিগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য প.প কর্মকর্তা আকসেদুর রহমান, দেবহাটা উপজেলা স্বাস্থ্য প.প কর্মকর্তা ডাঃ আব্দুল লতিফ, জেলা পরিষদ সদস্য এস এম আসাদুর রহমান সেলিম, নলতা কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ তোফায়েল আহমেদ, কালিগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ সুবীর দত্ত, দেবহাটা থানার অফিসার ইনচার্জ কাজী কামাল হোসেন, আশাশুনি থানার অফিসার ইনচার্জ শহিদুল ইসলাম শাহিন, ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ্জ মুজিবর রহমান, নলতা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি মোঃ আনিছুজ্জাম, সাবেক প্রধান শিক্ষক মোঃ ইউনুস, মিশনের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক মোঃ সাইদুর রহমান, আওয়ামীলীগ নেতা লাভলু বিশ্বাস, ছাত্রলীগ নেতা মোঃ জাহিদ হোসান, মোঃ ফিরোজ শাহরিয়ারসহ আইন-শৃঙ্খলারক্ষাকারী বাহিনীর অন্যান্য সদস্যবৃন্দসহ কালিগঞ্জ, দেবহাটা, আশাশুনি, শ্যামনগর, সাতক্ষীরাসহ জেলার বিভিন্ন স্থান থেকে আগত বিভিন্ন পর্যায়ের জনপ্রতিনিধি, রাজনীতিবিদ, শিক্ষক, ইলেকট্রনিক্স ও প্রিন্ট মিডিয়ার সাংবাদিকসহ বিভিন্ন বয়স ও শ্রেণি-পেশার প্রায় ৩০ হাজার ক্রীড়ামোদী দর্শকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

##