কয়রায় মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সের নির্মান কাজ দীর্ঘ দিনেও শেষ হয়নি


274 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
কয়রায় মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সের নির্মান কাজ দীর্ঘ দিনেও শেষ হয়নি
ফেব্রুয়ারি ২৩, ২০১৭ খুলনা বিভাগ ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

কয়রা (খুলনা) প্রতিনিধি ::
খুলনার কয়রায় মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবন নির্মানের কাজ দীর্ঘ দিনেও শেষ না হওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন মুক্তিযোদ্ধারা। আগামী ২৬ মার্চ মহান স্বাধীনতা দিবসে ঐ ভবনটি ব্যবহার করতে চায় মুক্তিযোদ্ধা সংসদের নেতৃবৃন্দ। সূত্রে জানা গেছে,  ২ কোটি ৯৯ লক্ষ ৮৭ হাজার ৫শত ৩৮ টাকা ব্যায়ে কমপ্লেক্সটির নির্মানের কাজ পায় মেসার্স ফয়সাল ট্রেডার্স। যার কাজ শুরু হয় ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০১৪ সালে এবং শেষ হওয়ার কথা ছিল ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০১৫ তারিখে। এরপর কাজের মেয়াদ কয়েক দফায় বৃদ্ধি হলেও টিকাদারী প্রতিষ্ঠান কাজ না করায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন মুক্তিযোদ্ধারা। উল্লেখ্য, দেশ স্বাধীনের পর ৪৬ বছরেও মুক্তিযোদ্ধাদের কার্যক্রম পরিচালনার জন্য গড়ে ওঠেনি স্থায়ী কোন ঠিকানা। সে জন্য বর্তমান সরকার ক্ষমতায় আসার পর মুক্তিযোদ্ধাদের কল্যাণে প্রতিটি উপজেলায় একটি করে মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স নির্মানের উদ্যোগ নেয়। এরই ধারাবাহিকতায় কয়রা- গিলাবাড়ী জি.সি সড়কের পাশেই নির্মিত হচ্ছে তিন তলা বিশিষ্ট মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবনের কাজ। এ ব্যাপারে কয়রা উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কমান্ডার আলহাজ্ব এ্যাডঃ কেরামত আলীর নিকট জানতে চাইলে তিনি ক্ষোভ প্রকাশ করে এ প্রতিনিধিকে জানান, আমরা ঠিকাদারদের বার বার বলার পরও তারা আমাদের কথার কোন গুরুত্ব দিচ্ছে না। মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবনটি নির্মিত না হওয়ায় সংসদের কার্যক্রম চলছে ভাড়ার একটি ঘরে।
টিকাদারী প্রতিষ্ঠান মের্সাস ফয়সাল ট্রেডার্সের পার্টনার আলমগীর হোসেন ও বাবুল হোসেন জানান, ভবনের নির্মান কাজ দ্রুত শুরু করা হবে। কেন নির্ধারিত সময়ে কাজ শেষ হয়নি জানতে চাইলে তিনি বিষয়টি কৌশলে এড়িয়ে যান। উপজেলা প্রকৌশলী নিরাপদ পাল জানান, আমাদের পক্ষ থেকে সকল কার্যক্রম অব্যহত আছে। কিন্তু টিকাদারী প্রতিষ্ঠান আমাদের কথা শুনছে না।