কয়রায় শিক্ষার্থীরা ফাইজারের টিকা পেয়ে খুশি


134 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
কয়রায় শিক্ষার্থীরা ফাইজারের টিকা পেয়ে খুশি
জানুয়ারি ১১, ২০২২ খুলনা বিভাগ ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

শেখ মনিরুজ্জামান মনু ::

খুলনার কয়রা উপজেলার ১২ থেকে ১৭ বছর বয়সী শিক্ষার্থীদের কোভিট-১৯ ভাইজারের টিকা(প্রথম ডোজ) দেওয়া শুরু হয়েছে। কোন ঝামেলা ছাড়াই টিকা গ্রহণ করতে পেরে আনন্দিত শিক্ষার্থীরা। উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সূত্রে জানা গেছে, উপজেলা প্রশাসন, স্বাস্থ্য বিভাগ ও মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসের আয়োজনে ১০ জানুয়ারী(সোমবার) থেকে শিক্ষার্থীদের কোভিট-১৯ ভাইজারের টিকা প্রদান কার্যক্রম শুরু হয়েছে। যা চলবে এক সপ্তাহব্যাপী। উপজেলার ১৬ হাজারের বেশী শিক্ষার্থীকে টিকা দেওয়া হবে। প্রথম দিনে উপজেলার আমাদী জায়গীরমহল তকিম উদ্দীন মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও চন্ডিপুর ইউনাইটেড মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৯ শত শিক্ষার্থীকে টিকা দেওয়া হয়েছে। উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে যেয়ে দেখা যায়,সকাল ৯ টা থেকে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স চত্বরে টিকা নিতে আসছে শিক্ষার্থীরা। শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত দুইটি কক্ষে টিকা দেওয়ায় হচ্ছে।একটি কক্ষে ছেলেদের অন্যটি মেয়েদের।প্রতিবার একসাথে দুই কক্ষে ২০ জন শিক্ষার্থীকে টিকা দিতে দেখা যায়। টিকা গ্রহণের পর আমাদী জায়গীরমহল তকিম উদ্দীন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে দশম শ্রেণীর শিক্ষার্থী দীপ কুমার ও অষ্টম শ্রেনীর ছাত্রী সোহানা খাতুন জানান,কোন ঝামেলা ছাড়াই করোনা প্রতিরোধে ফাইজারের টিকা নিতে পেরে খুবই আনন্দিত। এতদিন মনের ভেতর করোনা নিয়ে যে ভয়টা ছিল, তা আর কাজ করছে না। নতুন উদ্যামে এখন থেকে স্কুলে আসতে পারবো। প্রথমে টিকা নিতে ভয় করছিল কিন্তু টিকা নেওয়ার পর দেখলাম ভয়ের কোন কারণ নেই। আমাদী জায়গীরমহল তকিম উদ্দীন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক উৎপল কুমার সানা বলেন,করোনা ভাইরাস থেকে শিক্ষার্থীদের রক্ষার জন্য সরকার যে কার্যক্রম শুরু করেছে, তা সত্যিই প্রসংশার যোগ্য। যার ফলে শিক্ষার্থীরা আরও সুরক্ষিত থাকবে। উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার বাকী বিল্লাহ বলেন,স্বাস্থ্য বিভাগের সহযোগিতায় উপজেলার ১২ থেকে ১৭ বছর বয়সী সকল শিক্ষার্থীদের ফাইজারের টিকা দেওয়া হবে। প্রথম দিনে আমাদী জায়গীরমহল তকিম উদ্দীন মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও চন্ডিপুর ইউনাইটেড মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের টিকা দেওয়া হয়েছে।পর্যায়ক্রমে সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের দেওয়া হবে। উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাক্তার সুদীপ বালা বলেন, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে স্বাস্থ্য বিভাগ ও মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসের আয়োজনে শিক্ষার্থীদের কোভিট-১৯ ভাইজারের টিকা দেওয়া হচ্ছে। ১৬ হাজারের বেশী শিক্ষার্থীকে টিকা দেওয়া হবে। যা চলবে সপ্তাহব্যাপী।

#