কয়রায় হুমকির প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন


215 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
কয়রায় হুমকির প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন
মার্চ ২৮, ২০২১ খুলনা বিভাগ ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

শেখ মনিরুজ্জামান মনু ::

কয়রায় প্রধান শিক্ষক কর্তৃক ভয়ভীত প্রদর্শন করে হুমকির প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন করেছেন উপজেলার আমাদী ইউনিয়নের খিরোল গ্রামের মৃত্যু আঃ বারিক মোড়লের পুত্র মিজানুর রহমান মোড়ল। গতকাল ২৮ মার্চ বেলা ১১ টায় কয়রা উপজেলা প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য তিনি বলেন, আমার পুত্র শহিদুল্যাহর প্রাইভেট পড়ানোর সুবাধে পুর্ব হাতিয়ারডাঙ্গা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক স্বপন বৈদ্য আমার বাড়িতে আসা যাওয়া করতো। সরলতার কারনে সে আমার স্ত্রীকে কু প্রলোভন দেখিয়ে আমার কাছ থেকে পৃথক করে বিয়ে করার ষড়যন্ত্র মেতে উঠে। সেই সুবাধে প্রধান শিক্ষক স্বপন কুমার বৈদ্য আমার বিরুদ্ধে নানা ষড়যন্ত্র অব্যাহত রেখেেেছ। আমি সংসারের উপার্জন করার জন্য বাড়ির বাহিরে অবস্থান করায় উক্ত প্রধান শিক্ষকের উপস্থিতিতে আমার স্ত্রী আমার বাড়ি থেকে নগদ ১ লক্ষ ২৯ হাজার টাকা, সোনা গয়না, ৫ টি গরু, ১৫ টি ছাগল, হাঁস মুরগী, ঘরে রাখা ধান সহ বহু আসবাব পত্র নিয়ে যাওয়ার পাশাপাশি মৎস্য ঘেরের মাছ মেরে নিয়ে গেছে। এতে করে আমার প্রায় ১০ লক্ষাধিক টাকার সম্পদ নিয়ে ডুমুরিয়া উপজেলার সাহস এলাকায় অবস্থান করছে। বিষয়টি জানতে পেরে বাধা সুষ্টি করলে প্রধান শিক্ষক স্বপদ বৈদ্য আমাকে ভয়ভীত প্রদর্শন করে হুমকি ধামকি অব্যাহত রখেছে এমনকি ঐ ঘটনাকে কেন্দ্র করে আমাকে মারপিটও করে আহত করে। আমি নিরুপায় হয়ে প্রধান শিক্ষক ও আমার স্ত্রীর নামে কয়রা উপজেলা সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালকে ১টি মামলা দায়ের করি যার নং সিআর-১১৫/২১ তাং-৮-৩-২০২১। উক্ত মামলায় প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করে বিজ্ঞ আদালত। অবশেষে প্রধান শিক্ষক ঐ মামলায় জামিন প্রাপ্ত হয়ে আমাকে হুমকি ধামকি দিয়ে ভয়ভীত প্রদর্শন করছে। সে প্রভাবশালী হওয়ায় আমি তার বিরুদ্ধে কথা বলতে সাহস পাচ্ছি না। আমি বর্তমানে অসহায় হয়ে জীবন যাপন করছি। মামলার পুর্বে বিয়য়টি নিয়ে আমি বিভিন্ন জায়গায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেও কোন প্রতিকার পায়নি। যে কারনে মামলা দায়ের করি। আমি সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহন করার জন্য প্রশাসনের নিকট জোর দাবি জানাচ্ছি। এ ব্যাপারে অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষক স্বপন বৈদ্যর নিকট জানতে চাইলে তিনি তার বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ সত্য নয় বলে দাবি করেন।

#