খাদিজার ওপর হামলা: সামাজিক প্রতিরোধের ডাক শিক্ষামন্ত্রীর


308 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
খাদিজার ওপর হামলা: সামাজিক প্রতিরোধের ডাক শিক্ষামন্ত্রীর
অক্টোবর ৮, ২০১৬ জাতীয় ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

অনলাইন ডেস্ক :
সিলেট মহিলা কলেজের ছাত্রী খাদিজা বেগম নার্গিসের ওপর হামলার ঘটনায় সামাজিক প্রতিরোধের ডাক দিয়ে দু’টি কর্মসূচি ঘোষণা করেছেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ।

শনিবার সকালে রাজধানীর ফার্মগেটের কৃষিবিদ ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে এক সংবাদ সম্মেলনে এ কর্মসূচি ঘোষণা করেন তিনি।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘খাদিজার ওপর হামলা ঘটনা দ্রুত বিচার আইনের আওতায় নিতে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে অনুরোধ জানিয়েছি।’ তিনি খাদিজার দ্রুত আরো আরোগ্য কামনা করেন এবং তার ওপর হামলার নিন্দা জানিয়ে এ ঘটনায় তীব্র  ক্ষোভ প্রকাশ করেন।

খাদিজার ওপর হামলার ঘটনায় দু’টি কর্মসূচি পালনের ঘোষণা দিয়ে তিনি জানান, ছাত্রীদের ওপর যেকোনো ধরনের নির্যাতনের বিরুদ্ধে সামাজিক আন্দোলনের ডাক দিয়ে ১৮ অক্টোবর দেশের সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে প্রতীকী মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হবে। সকাল ১১টা থেকে সোয়া ১১টা পর্যন্ত ১৫ মিনিটের এই কর্মসূচিতে ছাত্র, শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা সবাই হাতে হাত রেখে অংশ নেবেন।

শিক্ষামন্ত্রী জানান, ২০ অক্টোবর সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে আলোচনা সভার আয়োজন করা হবে। সেখানে শিক্ষক, শিক্ষার্থী, স্থানীয় লোকজন, মুরুব্বী ও বিশিষ্টজনসহ সবাইকে অন্তর্ভুক্ত করে কমিটি গঠন করা হবে। সেই কমিটিগুলো কোনো শিক্ষার্থী নির্যাতিত হচ্ছে কি না তা পর্যবেক্ষণ করবে। কোথাও এ ধরনের ঘটনা ঘটলে অপরাধীকে আইনের হাতে সোপর্দ করবে।

তিনি আরও জানান, এই যে কমিটিগুলো করা হবে, এগুলো যারা ইভটিজিংয়ে জড়িত প্রথমে তাদের শোধরানোর চেষ্টা করবে। তাতে কাজ না হলে তাদের আইনের হাতে সোপর্দ করবে।

এ সময় শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিবের দায়িত্বে থাকা অতিরিক্ত সচিব এ এস মাহমুদ, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালক প্রফেসর ড. এস এম ওয়াহিদুজ্জামান, ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান প্রফেসর মাহবুবুর রহমান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

খাদিজা সিলেট মহিলা কলেজের স্নাতক দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী। গত সোমবার পরীক্ষা দিতে তিনি সিলেটের এমসি কলেজে গিয়েছিলেন। পরীক্ষা শেষে ফেরার সময় এমসি কলেজের পুকুরপাড়ে খাদিজাকে কুপিয়ে গুরুতর জখম করে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সহসম্পাদক বদরুল আলম। স্থানীয়রা রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে খাদিজাকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে ভর্তি করে। অবস্থার অবনতি হলে গত সোমবার রাতে তাকে অ্যাম্বুলেন্সে করে ঢাকায় আনা হয়। মঙ্গলবার সকালে তাকে রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে অস্ত্রোপচারের পর খাজিদাকে লাইফ সাপোর্টে রাখা হয়। হাসপাতালের নিউরোসার্জারি বিভাগের সিনিয়র কনসালট্যান্ট ডা. রেজাউস সাত্তারের অধীনে তার চিকিৎসা চলছে।