খুলনায় বিকাশ ডিস্ট্রিবিউটর’র প্রতারণা, এজেন্ট’র ২৩ হাজার টাকা আত্মসাৎ !


449 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
খুলনায় বিকাশ ডিস্ট্রিবিউটর’র প্রতারণা, এজেন্ট’র ২৩ হাজার টাকা আত্মসাৎ !
জুলাই ৮, ২০১৫ খুলনা বিভাগ
Print Friendly, PDF & Email

খুলনা ব্যুরো ঃ
খুলনায় বিকাশ ডিস্ট্রিবিউটরের নম্বর দিয়ে কৌশলে প্রতারণার মাধ্যমে একজন এজেন্ট’র মোবাইল এ্যাকাউন্ট থেকে প্রায় ২৩ হাজার টাকা আত্মসাৎ করা হয়েছে। বুধবার দুপুরে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় প্রতারণার শিকার ব্যবসায়ী থানায় অভিযোগ করেছেন। পুলিশ বিষয়টি খতিয়ে দেখছে।
নগরীর দক্ষিণ টুটপাড়া বড়খাল পাড় বাঁধের বাজারের বিকাশ এজেন্ট, মেসার্স তাসনিম ট্রেডার্সের মালিক মো. বদরুজ্জামান অভিযোগ করেন, বুধবার দুপুর দেড়টারদিকে তার বিকাশ এজেন্ট নম্বরে ব্রাক ব্যাংক কর্তৃক মনোনীত খুলনার ডিস্ট্রিবিউটরের মোবাইল নম্বর দিয়ে ফোন করে বলা হয়, নতুন (সাত নং) অপশন চালু হচ্ছে, এজন্য ব্রাক ব্যাংকের ঢাকাস্থ প্রধান কার্যালয় থেকে ফোন করে যেভাবে নির্দেশনা দেয় সেভাবে কাজ করবেন। এর কিছুক্ষণ পরই আরেকটি নম্বর দিয়ে ফোন করে মোবাইলের বিভিন্ন কী  (বোতাম) চাপতে বলা হয়। নির্দেশনা মোতাবেক দু’ দফায় তিনি কয়েকটি কী চেপে এ্যাকাউন্ট ব্যালেন্স চেক করে দেখেন তার হিসাব থেকে ২২ হাজার ৭৬৯ টাকা ট্রান্সফার হয়ে গেছে। তাৎক্ষনিক ভাবে তিনি নগরীর পিকসার প্যালেস মোড়স্থ হোটেল গোল্ডেন কিং’র পঞ্চম তলায় বিকাশ ডিস্ট্রিবিউটর আলফি ট্রেড ইন্টারন্যাশনালে জানতে গেলে তারা পুরো বিষয়টি অস্বীকার করেন। এমনকি ডিস্ট্রিবিউটর নম্বর দিয়ে ফোন করা হলেও সুপারভাইজার সুমন এবং এস.আর শফিকুল তাদের নম্বর ব্যবহার করে অন্য কেউ ফোন করেছে বলে দাবি করে। এ ঘটনায় ব্যবসায়ী বদরুজ্জামান ডিস্ট্রিবিউটর প্রতিষ্ঠানের সুপারভাইজার সুমন এবং এস.আর শফিকুলের নামে খুলনা সদর থানায় সাধারণ ডায়রি করেছেন।
খুলনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সুকুমার বিশ্বাস অভিযোগ পাওয়ার কথা উল্লেখ করে বলেন, প্রতারণার মাধ্যমে অর্থ হাতিয়ে নেয়া হয়েছে। পুলিশ বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে। দোষিদের বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ নেয়া হবে।