খুলনা সংবাদ ॥ রাকিব হত্যা মামলার আসামীদের জামিন নামঞ্জুর, ৫ অক্টোবর চার্জ গঠন


362 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
খুলনা সংবাদ ॥ রাকিব হত্যা মামলার আসামীদের জামিন  নামঞ্জুর, ৫ অক্টোবর চার্জ গঠন
সেপ্টেম্বর ২২, ২০১৫ খুলনা বিভাগ ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

ওয়াহেদ-উজ-জমান, খুলনা : খুলনায় নির্মম নির্যাতনে নিহত শিশু রাকিব (১২) হত্যা মামলার অভিযোগ আমলে নিয়েছেন আদালত।

মঙ্গলবার  দুপুরে খুলনা মহানগর দায়রা জজ আদালতের ভারপ্রাপ্ত বিচারক (অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ) দিলরুবা সুলতানা অভিযোগ আমলে নিয়ে ৫ অক্টোবর চার্জ গঠনের দিন ধার্য করেন। একই সাথে আসামিদের জামিনও নামঞ্জুর করেন। বাদি পক্ষের আইনজীবি ও বাংলাদেশ মানবাধিকার বাস্তবায়ন সংস্থা, খুলনার কো-অর্ডিনেটর মোমিনুল ইসলাম জানান, মঙ্গলবার মহানগর দায়রা জজ আদালতে রাকিব হত্যা মামলার চার্জগঠনের দিন ধার্য ছিল।

এ সময় আদালত শুনানি শেষে অভিযোগ আমলে নিয়ে আগামী ৫ অক্টোবর চার্জ গঠনের দিন ধার্য করেন। তবে এ সময় আদালতে আসামি পক্ষের আইনজীবি তৌহিদুর রহমান তুষার জামিন আবেদন করলে তা নামঞ্জুর করেন আদালত। এদিকে, আদালত চত্বর থেকে দুর্বৃত্তরা রাকিবের ছোট বোন রিমিকে অপহরণের চেষ্টা করে বলে অভিযোগ উঠলেও বিষয়টি ¯্রফে ভুল বোঝাবুঝি বলে জানিয়েছে পুলিশ। এ কারণে তাৎক্ষনিকভাবে ঘটনাস্থল থেকে আসামি পক্ষের দু’জনকে খুলনা থানায় নেয়া হলেও তাদের ছেড়ে দেয়া হয়। খুলনা সদর থানার উপ-পরিধর্শক (এসআই) মোস্তাক আহমেদ জানান, তারা আসামিদের স্বজন, মামলার বিষয়ে জানতে আদালতে এসেছিল। কিন্তু বাদিপক্ষ ভুল ভেবে তাদের ধাওয়া করে।

উল্লেখ্য, গত ৩ আগস্ট বিকেলে নগরীর টুটপাড়া সেন্ট্রাল রোডস্থ শরীফ মোটর্সের ভেতরে মোটরসাইকের গ্যারেজ মালিক শরীফ ও তার কথিত চাচা মিন্টু মোটরসাইকেলের হাওয়া দেয়া কমপ্রেসার মেশিনের পাইপ রাকিবের পায়ুপথে ঢুকিয়ে পেটে হাওয়া দিয়ে নির্মমভাবে হত্যা করে। এ হত্যাকান্ডের সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে শরীফ মোটর্সের মালিক শরীফ, তার মা বিউটি বেগম ও সহযোগী কথিত চাচা মিন্টু মিয়াকে ক্ষুব্ধ জনতা গণপিটুনি দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করে। আসামীরা সবাই ১৬৪ ধারায় আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন।

২৫ আগষ্ট  এ মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই কাজী মোস্তাক আহমেদ এজাহারভুক্ত তিন আসামি মোটরসাইকেল গ্যারেজ মালিক ওমর শরীফ, তার কথিত চাচা মিন্টু খান ও শরীফের মা বিউটি বেগমকে অভিযুক্ত করে আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন। গত ৬ সেপ্টেম্বর মহানগর আদালত বিচার কার্য শুরুর জন্য মামলাটি মহানগর দায়রা জজ আদালতে প্রেরণ করেন।
###

হলুদ সাংবাদিক বলায় বটিয়াঘাটা
মুক্তিযোদ্ধাদের সংবাদ সম্মেলন প্রত্যাখান

খুলনা ব্যুরো ঃ হলুদ সাংবাদিক বলায় বটিয়াঘাটার মুক্তিযোদ্ধাদের (একাংশের) সংবাদ সম্মেলন প্রত্যাখান করলেন খুলনার সকল সাংবাদিকরা।

মঙ্গলবার বটিয়াঘাটা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মু. বিল্লাল হোসেন খানের পক্ষে সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের হলুদ সাংবাদিক বললে সাংবাদিকরা এ সংবাদ সম্মেলন প্রত্যাখান করেন। উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার শেখ আফজাল হোসেনের স্বাক্ষরিত সংবাদ সম্মেলনের কপিটি পড়ে শোনান অপর এক মুক্তিযোদ্ধা সহ কমান্ডার নিরঞ্জন কুমার রায়।

লিখিত বক্তব্যে মুক্তিযোদ্ধারা হলুদ সাংবাদিক উচ্ছেদ হয়েছে উল্লেখ করলে উপস্থিত সকল সাংবাদিকরা হৈচৈ শুরু করে দেয়। এসময়ে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের সঠিক উত্তর মুক্তিযোদ্ধারা দিতে পারেনি। তবে মুক্তিযোদ্ধাদের পক্ষে আগত কয়েকজন ব্যক্তি নিশ্চুপ থাকতে দেখা যায়। এদের মধ্যে কেউ কেউ বলেন, “এসবের মধ্যে মুক্তিযোদ্ধাদের আসা ঠিক হয়নি। সাংবাদিকদের রোষানলে কেন মুক্তিযোদ্ধারা যাবে।” এ সময়ে বিনয় কৃষ্ণ ইউএনও’র পক্ষে সাফাই গেয়ে সাংবাদিকদের তোপের মুখে পড়েন।

হলুদ সাংবাদিক লেখা বা বলার উত্তর দিতে না পারায় সাংবাদিকরা মুক্তিযোদ্ধাদের সংবাদ সম্মেলন প্রত্যাখান করে সবাই হলরুম থেকে বের হয়ে আসেন।