গুগল ম্যাপসে বাংলায় পথনির্দেশিকা


78 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
গুগল ম্যাপসে বাংলায় পথনির্দেশিকা
জুলাই ২৩, ২০১৯ জাতীয় ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

অনলাইন ডেস্ক ::

২০১৮ সালের জানুয়ারি মাস থেকে পুরো বাংলাদেশের ৫০ সহস্রাধিক কিলোমিটার রাস্তা, ৮০ লাখের বেশি বিল্ডিং বা দালানকোঠা এবং ছয় লক্ষাধিক স্থান ম্যাপে যুক্ত করেছে গুগল। মোটরসাইকেল চালকদের জন্য নতুন নেভিগেশন মোড বা পথনির্দেশনামূলক ফিচার নিয়ে এসেছে গুগল ম্যাপস। যানজট এড়ানোর পাশাপাশি সময় বাঁচাতে তরুণদের কাছে জনপ্রিয় বাহন মোটরসাইকেল। বিআরটিএ’র তথ্য মতে, গত আট বছরে ঢাকায় নিবন্ধকৃত মোটরসাইকেলের সংখ্যা দ্বিগুণ হয়েছে।

মোটরসাইকেল রাইডারদেরও রয়েছে কিছু নির্দিষ্ট চাহিদা। গাড়ি যেসব পথ দিয়ে চলাচল করতে পারে না, গুগল ম্যাপসের নতুন ফিচারের মাধ্যমে সেসব সরু পথ দিয়ে গন্তব্যে পৌঁছাতে পারবেন মোটরসাইকেল রাইডাররা। এ ছাড়া এমন অনেক রাস্তা বা হাইওয়ে আছে যেগুলোতে দুই চাকা বিশিষ্ট যানবাহন চলাচল নিষেধ, কারণ সেসব রাস্তায় গাড়ি ও মোটরসাইকেলের গতির পার্থক্য অনেক। আগে পায়ে হাঁটা ও গাড়ির মিলিত সম্ভাব্য সময় ধরে নিয়ে মোটরসাইকেল রাইডাররা গন্তব্যে পৌঁছানোর আনুমানিক সময় হিসাব করতেন। কিন্তু এখন গুগল ম্যাপের নতুন মেশিন লার্নিং ফিচারের মাধ্যমে মোটরসাইকেল রাইডারদের যাত্রার সময় হবে আরও নির্ভুল, যা মোটরসাইকেলের গতির ওপর ভিত্তি করে রাইডারদের জানিয়ে দেবে। অন্যদিকে টার্ন-বাই-টার্ন ডিরেকশন বা দিক-নির্দেশনায় যুক্ত করা হয়েছে গুগল স্ট্রিট ভিউয়ের ছবি নির্ভর নেভিগেশন সিস্টেম। এতে করে গুগল ম্যাপসের মাধ্যমে মোটরসাইকেল রাইডাররা পরবর্তী সময়ে গন্তব্যে রওনা দেওয়ার আগে ট্রিপের পূর্বপরিকল্পনা করতে পারবেন অনায়াসে।

নতুন ফিচারের মধ্যে রয়েছে গুগল ম্যাপসের বাংলায় ভয়েস নেভিগেশন বা পথের নির্দেশনা প্রদান। ‘ইন ১০০ মিটারস, টার্ন রাইট অন টু বীরউত্তম রফিকুল ইসলাম এভিনিউ’-এর মতো ভয়েস নেভিগেশন এখন শোনা যাবে বাংলায়। নতুন ফিচারের মাধ্যমে গুগল ম্যাপসে বাংলা ভাষায় নেভিগেশন বা দিক-নির্দেশনা শোনা যাবে এবং একই সাথে গুগল ম্যাপস অ্যাপ ব্যবহারের ক্ষেত্রে ইংরেজি ভাষায় ব্যবহার করতে পারবেন ব্যবহারকারীরা। এ ছাড়া গুগল ম্যাপসে বাংলায় ভয়েস নেভিগেশন সুবিধা নিতে চাইলে অ্যাপের ল্যাঙ্গুয়েজ সেটিং অপশনে গিয়ে বাংলা (বাংলাদেশ) ভাষায় পরিবর্তন করে নিতে হবে।

গুগল ম্যাপস নিয়ে এসেছে নতুন সেফটি ফিচার। অ্যাপসে নিজের গন্তব্যে এবং সেখানে কোন রুট বা কোন পথ দিয়ে যাবেন তা নির্ধারণ করার পর ‘স্টে সেফার’ এবং ‘সেট অব-রুট অ্যালার্টস’-এর মাধ্যমে নিজের নিরাপদ যাত্রার বিষয়টি নিশ্চিত করতে পারবেন ব্যবহারকারী। ক্যাব, রিকশা কিংবা রাইড শেয়ারিং চালক গুগল ম্যাপে যাত্রীর বেঁধে দেওয়া রুট থেকে যদি আধা কিলোমিটার দূরের রুটে বা রাস্তায় যায়, তবে মোবাইলে নোটিফিকেশন আসবে। যাত্রী জানতে পারবে যে তিনি তার নির্ধারিত রুট থেকে কত দূরে আছেন। এ ছাড়াও এই ফিচারের মাধ্যমে যাত্রী তার যাত্রা পথটির লাইভ পরিবার এবং বন্ধুদের সাথে স্ক্রিন থেকেই সরাসরি শেয়ার করতে পারবেন। ফলে পরিবার এবং বন্ধুরা লাইভ দেখতে পারবেন যে তার পরিচিত মানুষটি সঠিক পথ দিয়ে যাচ্ছে কি-না এবং কোনো অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা ঘটলে তারা যেন দ্রুত পদক্ষেপ নিতে পারেন।