ঘানি ভাঙা সরিষার তেল, ঘি ও সুন্দরবনের মধু হোম ডেলিভারি দিচ্ছে সাতক্ষীরা অনলাইন শপ


308 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
ঘানি ভাঙা সরিষার তেল, ঘি ও সুন্দরবনের মধু হোম ডেলিভারি দিচ্ছে সাতক্ষীরা অনলাইন শপ
মে ২৮, ২০২০ ফটো গ্যালারি সাতক্ষীরা সদর
Print Friendly, PDF & Email

প্রেস বিজ্ঞপ্তি:

আলু, পটল, চাল, ডাল, তেল সহ যাবতীয় নিত্য প্রয়োজনীয় সামগ্রী হোম ডেলিভারি দিচ্ছে সাতক্ষীরা জেলার সবচেয়ে বড় অনলাইন শপিং সেন্টার “সাতক্ষীরা অনলাইন শপ”। মাত্র ২০ টাকা ডেলিভারি চার্জের বিনিময়ে সাতক্ষীরা পৌরসভার ভিতরে যে কেউই উপভোগ করতে পারেন এই সেবা।

“প্রয়োজনে কম খাবো তবে খাঁটিটাই খাবো”-এই স্লোগানকে সামনে রেখে নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যের পাশাপাশি সুন্দরবনের মধু, গাওয়া ঘি, পাটালি সহ বিভিন্ন খাঁটি পণ্য সরবরাহ করে এরই মধ্যে ক্রেতাদের আস্থা অর্জনের পাশাপাশি বেশ সুনাম কুড়িয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। এসবের পাশাপাশি প্রতিষ্ঠানটি এবার নতুন সংযোজন করেছে ঘানি ভাঙা খাঁটি সরিষার তেল।

নতুন সংযোজিত এই পণ্য সম্পর্কে জানতে চাইলে সাতক্ষীরা অনলাইন শপের প্রতিষ্ঠাতা ও নির্বাহী পরিচালক শেখ ইমরান হোসেন বলেন, “সরিষার তেলের গুণ অপরিসীম। সুপ্রাচীন কাল থেকেই ঔষধি গুণাগুণের জন্য সমাদৃত হয়ে আসছে ঘানি ভাঙা সরিষার তেল। বর্তমানে করোনা ভাইরাস থেকে নিজেদেরকে সুরক্ষিত রাখতে এই তেলের ভূমিকা অপরিসীম। খাঁটি সরিষার তেল শ্বাসকষ্টের প্রদাহ হ্রাস করে। শরীরের কোলেস্টেরলের মাত্রা কমিয়ে দেয় যা হৃদরোগের আশঙ্কা কমায়। নিদ্রাহীনতা ও ক্যান্সার প্রতিরোধ করে। শরীরের ব্যথা কমায়। রক্ত সঞ্চালন, হজম প্রক্রিয়া এবং হরমোন নিঃসরণের মাত্রা বাড়িয়ে দেয়। সরিষার তেল শরীরের পাচক রস নিঃসরণের পরিমাণ বাড়িয়ে দেয়। ফলে ক্ষুধা বাড়ে। সরিষা তেল চুলকে ঝলমলে করে তোলে, খুশকি দূর করে এবং চুল বৃদ্ধি করে। প্রতিদিন রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে সরিয়া তেল চুল এবং মাথার তালুতে ম্যাসাজ করলে চুল পাকা রোধ হয়। সরিষা তেলে প্রচুর পরিমাণে বিটা ক্যারোটিন আছে। এটি নিয়মিত মাথার তালুতে ম্যাসাজ করার ফলে নিয়মিত নতুন চুল গজাতে সাহায্য করে। ত্বকের কালো দাগ দূর করতে সরিষার তেল অনেক কার্যকরী। সরিষা তেল মাথা ব্যথা কমায়। শুষ্ক ত্বক মসৃণ ও কোমল করে। ঠোঁটের শুষ্কতা দূর করে এবং ত্বকের প্রদাহ দূর করে। শীতের সময় সরিষার তৈল মাখলে ত্বক সুন্দর থাকে। পোকামাকড় সরিষার তেল সহ্য করতে পারে না। এই তেল ব্যবহার করে পোকামাকড় থেকে রক্ষা পাওয়া যায়। কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে সরিষা তেল। নাকের বদ্ধভাব দূর করে। কানের ব্যথায় কানের ড্রপের বিকল্প হিসাবে কাজ করে। সামান্য কাটা ছেঁড়ায় অ্যান্টিসেপটিকের কাজ করে। নিয়মিত এই তেল মালিশ করলে বাতের ব্যাথায় উপকার পাওয়া যায়। দাঁত মজবুত করে এবং ব্যথা কমাতে সাহায্য করে এই সরিষার তেল।”

এই সরিষার তেলের দাম সম্পর্কে জানতে চাইলে শেখ ইমরান হোসেন বলেন গরুর দিয়ে ঘানি ভাঙিয়ে ১ কেজি সরিষার তেল বের করতে প্রায় ৪/৫ ঘন্টা সময় লাগে। তবুও গ্রাহকের ক্রয় ক্ষমতার কথা চিন্তা করে যথা সম্ভব দাম কম রাখার চেষ্টা করা হয়েছে।

২০০ গ্রাম গরুর ঘানি ভাঙা সরিষা তেলের দাম ৬০ টাকা। 

৫০০ গ্রাম গরুর ঘানি ভাঙা সরিষা তেলের দাম ১৪০ টাকা।

১ কেজি গরুর ঘানি ভাঙা সরিষা তেলের দাম ২৬০ টাকা। 

এখানে সাতক্ষীরা অনলাইন শপের পক্ষ থেকে নিত্য প্রয়োজনীয় সামগ্রীর আজকের বাজার দর তুলে ধরা হলোঃ

সবজি

আলু (গ্রেড A) ২৬, (গ্রেড B) ২২ টাকা কেজি।

উচ্ছে – (গ্রেড A) ৪০, (গ্রেড B) ২৮ টাকা কেজি।

পটল- (গ্রেড A) ২৫, (গ্রেড B) ২২ টাকা কেজি।

কাঁচাঝাল- (গ্রেড A) ৪০, (গ্রেড B) ৩৫ টাকা কেজি।

খিরাই- (গ্রেড A) ৩২, (গ্রেড B) ২৬ টাকা কেজি।

টমেটো- (গ্রেড A) ৬০, (গ্রেড B) ৫৫ টাকা কেজি।

ঢেড়স- (গ্রেড A) ১৫, (গ্রেড B) ১২ টাকা কেজি।

লাউ- (গ্রেড A) ২০, (গ্রেড B) ১৮ টাকা কেজি।

ধনিয়া পাতা (১০০ গ্রাম)- (গ্রেড A) ১৫ , (গ্রেড B) ১২ টাকা কেজি।

মিষ্টি কুমড়া- (গ্রেড A) ২০, (গ্রেড B) ১৮ টাকা কেজি।

কাচ কলা – (গ্রেড A) ৩৫, (গ্রেড B) ২৮ টাকা কেজি।

বরবটি – (গ্রেড A) ৪০, (গ্রেড B) ৩৫ টাকা কেজি।

ডাটা শাক- (গ্রেড A) ১৫, (গ্রেড B) ১২ টাকা কেজি।

বেগুন- (গ্রেড A) ৪০, (গ্রেড B) ৩৫ টাকা কেজি।

ঝিঙা- (গ্রেড A) ২৫, (গ্রেড B) ২২ টাকা কেজি।

কাগজি লেবু- (গ্রেড A) ৫, (গ্রেড B) ৪ টাকা পিস।

ইচড়- (গ্রেড A) ২০, (গ্রেড B) ১৬ টাকা কেজি।

পেপে- (গ্রেড A) ৩৫, (গ্রেড B) ৩০ টাকা কেজি।

গাজর- (গ্রেড A) ১৫০, (গ্রেড B) ১৩০ টাকা কেজি।

কচুর লতি – ২৫ টাকা কেজি।

কচু শাক – ১৫ টাকা আটি।

ডয়রা কলা – (গ্রেড A) ২৫, (গ্রেড B) ২২ টাকা কেজি।

প্যাচেঙ্গা – (গ্রেড A) ৩৬, (গ্রেড B) ৩২ টাকা কেজি।

পাতাকপি – (গ্রেড A) ২০, (গ্রেড B) ১৬ টাকা কেজি।

লাল শাক – ৮ টাকা (১০০ গ্রাম)

পাট শাক – ৭ টাকা (১০০ গ্রাম)

পুইশাক – ১৫ টাকা কেজি।

লাউ শাক – ১৫ টাকা (আঁটি)

থানকুনি পাতা – ১৫ টাকা (১০০ গ্রাম)।

কাঁকরোল – (গ্রেড A) ৩০, (গ্রেড B) ২৬ টাকা কেজি।
ঘেটকোরোল – ১৫ টাকা (১ আঁটি)।

চিচিঙ্গা – ৩০ টাকা কেজি।

কচুর মুখি – ৭০ টাকা কেজি।

(বিঃ দ্রঃ প্রতিটি কাচা তরকারী যখন কৃষক মাঠ থেকে তুলে ভোর বেলা আড়তে নিয়ে আসে, সেই পণ্যগুলি আমরা গ্রেড A হিসাবে বিবেচনা করেছি। আর আজকের যে পণ্যগুলি অবিক্রিত থেকে যায় সেগুলি খুচরা বিক্রেতা পরের দিন বিক্রয় করেন। সেই পণ্য গুলি গ্রেড B হিসাবে বিবেচনা করেছি। এখানে গ্রেড A এবং গ্রেড B দুইটি ক্যাটাগরীর ভিতরে পণ্যের দাম ও কোয়ালিটির ক্ষেত্রে কিছু পার্থক্য আছে। সম্মানিত গ্রাহকদেরকে অর্ডার করার সময় গ্রেড উল্লেখ করার জন্য বিনীত অনুরোধ জানানো যাচ্ছে।)

ফল ফলাদি

লিচু (৫০ পিস) ১৫০ টাকা । (গ্রেড A)

নাশপতি ১৮০ টাকা কেজি। (গ্রেড A)

কমলা ২৫০ টাকা কেজি। (গ্রেড A)

টক আম ২৫ টাকা কেজি। (গ্রেড A)

নারকেল ৩৫ টাকা পিস। (গ্রেড A)

পেয়ারা ৯০ টাকা কেজি। (গ্রেড A)

আপেল ১৭০ টাকা কেজি। (গ্রেড A)

বেদানা (ছোট সাইজ) ৩৫০, (বড় সাইজ) ৪০০ টাকা কেজি।(গ্রেড A)

মাল্টা ১৮০ টাকা কেজি। (গ্রেড A)

আঙুর ৩৫০ (সবুজ), ৫০০ (লাল) কেজি। (গ্রেড A)

ক্রাউন খেজুর – ২৫০ টাকা কেজি। (গ্রেড A)

মারিয়াম খেজুর – ৭৬০ টাকা কেজি। (গ্রেড A)

লোকাল উন্নত মানের খোলা খেজুর ১৪০ টাকা কেজি। (গ্রেড A)

ডাব ৪০ টাকা পিস। (গ্রেড A)

তরমুজ – ৩০ (বরিশাল), ৩৫ (কয়রা) টাকা কেজি। (গ্রেড A)

জামরুল – ৫০ টাকা (২০ পিস)। (গ্রেড A)

আমলকি – ৩৫ টাকা (১০ পিস)। (গ্রেড A)

নৈল – ৫০ টাকা (২০ পিস)। (গ্রেড A)

পাকা পেঁপে – ১০০ টাকা কেজি। (গ্রেড A)

মষলা

পেয়াজ গ্রেড A- ৪৬ টাকা কেজি।

রসুন গ্রেড A – ১৩০ টাকা কেজি।

আদা গ্রেড A – ২২০ টাকা কেজি।

জিরা গুড়া গ্রেড A- ৬৫ টাকা (লুজ)।

রাধুনি ঝালের গুড়া – ৫০ টাকা (১০০ গ্রাম)।

রাধুনি মাংষের মসলা – ৬৫ টাকা

রাধুনি হলুদ গুড়া – ৪৫ টাকা

রাঁধুনি হালিম মিক্স – ৪৫ টাকা।

হলুদের গুড়া (১০০ গ্রাম) – ২৪ টাকা। (১০০ গ্রাম)

ঝালের গুড়া (১০০ গ্রাম) – ৫৫ টাকা।

রাধুনি বিরানি মষলা – ৫৫ টাকা প্যাকেট

ইস্ট ১০০ গ্রাম – ৬০ টাকা।

ইরানি জিরা (১০০ গ্রাম) – ৫৫ টাকা ।

শাহ জিরা – ৯০ টাকা (১০০ গ্রাম)।

লবঙ্গ (১০০ গ্রাম) – ১৬০ টাকা।

তেজপাতা (১০০ গ্রাম) – ২০ টাকা ।

আলু বোখরা – ৬০ টাকা (১০০ গ্রাম)

এলাচ গ্রেড A – ৪৮০ টাকা (১০০ গ্রাম)।

ধনে গুড়া – ২০ টাকা (১০০ গ্রাম)।

ডাল চিনি – ৪০ টাকা (১০০ গ্রাম)।

গরম মষলা – ৩০ টাকা (১০০ গ্রাম)।

কিসমিস (পাকিস্তানি) – ৫৫ টাকা (১০০ গ্রাম)।

রাধুনি পাঁচ ফোড়ন- ২২ টাকা (১ প্যাকেট)।

পাঁচ ফোড়ন (লোকাল) – ৩০ টাকা (১০০ গ্রাম)।

টেস্টি সল্ট – ৩৬ টাকা (১০০ গ্রাম)।

শুকনো ঝাল – ৫৫ টাকা (১০০ গ্রাম)।

গোল মরিচ – ৫০ টাকা (১০০ গ্রাম)।

জৈত্রী – ৩৫০ টাকা (১০০ গ্রাম)।

সাদা সরিষা – ৮ টাকা (১০০ গ্রাম)।

বিভিন্ন চালের নাম ও দাম
আতপ চাল ২৮ ( নতুন ) – ৪২ টাকা কেজি।
আতপ চাল ২৮ ( পুরাতন ) – ৪৫ টাকা কেজি।
সেদ্ধ চাল (২৮ ) (পুরাতন) – ৪৫ টাকা কেজি।
সেদ্ধ চাল (২৮ ) (নতুন) – ৪২ টাকা কেজি।
বাশমতি চাল (আলিশান) – ২৭০ টাকা কেজি।
বাশমতি চাল (কহিনুর) – ২৮০ টাকা কেজি।

মিনিকেট চাল – ৫০ টাকা কেজি।
চিনি গুড়া চাউল ( লুজ) – ৮৫ টাকা কেজি।
বাশমতি চাল (লুজ) – ৫৬ টাকা কেজি।
চিনি গুড়া ( চাষী ) – ১১৫ টাকা কেজি।
চিনি গুড়া ( প্রান ) – ১১৫ টাকা কেজি।

বিভিন্ন প্রকার ডালের নাম ও দাম

খেসারি ডাল – ১১০ টাকা কেজি।

মসুর ডাল – (উন্নত প্যাকেটজাত) ৮৬ (লুজ) ৮৪ টাকা কেজি।

বুটের ডাল – ৪৮ টাকা কেজি ।

সোনামুগ ডাল – ১৪৮ টাকা কেজি।

মটর ডাল – ১১০ টাকা কেজি।

বিভিন্ন ব্রান্ডের তেলের নাম ও দাম

সেনা সয়াবিন তেল – ৪৮৪ টাকা। (৫ লিটার)

রুপচাদা সয়াবিন তেল- ৫৩০ টাকা। (৫ লিটার)

রুপচাঁদা (২ লিটার) – ২১৫ টাকা।

তীর সয়াবিন তেল – ৫২০ টাকা। (৫ লিটার)

ফ্রেশ সয়াবিন তেল- ৫১০ টাকা। (৫ লিটার)

পুষ্টি সয়াবিন তেল – ৫১০ টাকা। (৫ লিটার)

বিভিন্ন ব্রান্ডের আটার নাম ও দাম

ফ্রেশ আটা- ৩০ টাকা কেজি।

পুষ্টি আটা- ৩০ টাকা কেজি

বিভিন্ন ব্রান্ডের লবনের নাম ও দাম

এসিআই – ৩০ টাকা কেজি।

ফ্রেশ সল্ট – ২৮ টাকা কেজি।

কনফিডেন্স – ২৯ টাকা কেজি।

বিভিন্ন ব্রান্ডের ময়দার নাম ও দাম

পুষ্টি ময়দা – ৪৩ টাকা কেজি।

সুজির নাম ও দাম

এস ই আই সুজি – ৩০ টাকা (৫০০ গ্রাম)

বিভিন্ন ব্রান্ডের সেমাইয়ের নাম ও দাম

কুলসন সেমাই – ৩০ টাকা।

রাধুনি সেমাই – ৩০ টাকা।

চিনির নাম ও দাম

ফ্রেশ চিনি -৭২ টাকা কেজি।

লোকাল সাদা চিনি – ৬৪ টাকা কেজি।

মুদি আইটেম

কাজু বাদাম – ১০০ টাকা।

ছোলা – ৭২ টাকা কেজি।

বেসন – ৫২ টাকা কেজি।

মুগ দানা মিছরি – ৭৪ টাকা কেজি।

মুড়ি – ৭৬ টাকা কেজি।

ডিপ্লোমা গুড়া দুধ (৫০০ গ্রাম) – ৩১৬ টাকা।

ঈগল মশার কয়েল – ৪৪ টাকা প্যাকেট

রকেট মশার কয়েল – ৪০ টাকা কেজি।

ইস্পাহানি চা (২০০ গ্রাম) – ১০৮ টাকা।

মোটা টিস্যু – ৪৫ টাকা

বেবি ব্রাশ- ৩০ টাকা।

মাংষ

গরুর মাংষ হাড় ও চর্বি সহ ৫৩০ টাকা কেজি।

গরুর মাংষ হাড় ও চর্বি ছাড়া ৬৩০ টাকা কেজি।

গরুর পায়া ৪০০ টাকা কেজি।

গরুর কলিজা ৭০০ টাকা কেজি।

গরুর মগজ ২৫০ টাকা পিস।

গরুর ভূড়ি ২৫০ টাকা কেজি।

খাশির মাংষ ৭৩০ টাকা কেজি।

ধাড়ি ছাগলের মাংষ – ৬০০ টাকা কেজি।

ছাগলের মাথা ৩০০ টাকা পিস।

ছাগলের পা – ৪৩০ টাকা কেজি।

ছাগলের কলিজা – ৭৫০ টাকা কেজি।

পোল্ট্রি মুরগি- ১৮০ টাকা কেজি।

সোনালী মুরগি – ১৯০ টাকা কেজি।

প্যারিস – ২৬০ টাকা কেজি।

কোয়েল পাখি ৫০ টাকা পিস (১২০ গ্রাম ওজন)

চিনা হাঁস – ৩০০ টাকা কেজি।

রাজ হাঁস – ৩৫০ টাকা কেজি।

পাতি হাঁস – ২৮০ টাকা কেজি।

দেশি মুরগি – ৩৫০ টাকা কেজি।

কাটা পল্ট্রি মুরগি – ২১০ টাকা কেজি।

কবুতরের বাচচা – ১০০ টাকা পিস।

বড় কবুতর – ১৬০ টাকা পিস।

ডিম

সোনালী মুরগির লাল ডিম ৬.৫০ টাকা পিস।

হাসের ডিম ১০ টাকা পিস ।

পোল্ট্রি মুরগির ডিম (সাদা) ৬.৩০ টাকা পিস।

পোল্ট্রি মুরগির ডিম (লাল) ৬.৫০ টাকা পিস।

কোয়েল পাখির ডিম ২ টাকা পিস।

মাছ

রুই ২৫০ টাকা কেজি (২ কেজির সাইজ)।

রুই ২২০ টাকা কেজি (১ কেজির সাইজ)।

কাতলা মাছ – ৩৫০ টাকা কেজি (৩ কেজির সাইজ)।

কাতলা মাছ – ২৭০ টাকা কেজি (২ কেজির সাইজ)।

কাতলা মাছ – ২০০ টাকা কেজি (১ কেজির সাইজ)।

ভেটকি মাছ – ৪৫০ টাকা কেজি (১ কেজির সাইজ)।

ভেটকি মাছ – ৫২০ টাকা কেজি (২/৩ কেজির সাইজ)।

গ্লাস কাপ – ২০০ টাকা কেজি (৩/৪ কেজি্র সাইজ)।

হরিনা চিংড়ি – ৫০০ টাকা কেজি (ছোট সাইজ)।

হরিনা চিংড়ি – ৬০০ টাকা কেজি (বড় সাইজ)।

শোইল মাছ ৪৫০ টাকা কেজি।

তেলাপিয়া ১৪০ টাকা কেজি।

পারশে মাছ ৪৫০ টাকা কেজি। (মিডিয়াম সাইজ)

পাঙ্গাস মাছ ১৫০ টাকা কেজি (২ কেজি্র সাইজ)।

হাইব্রীড কই ২৪০ টাকা কেজি ।

বাটা মাছ ১৮০ টাকা কেজি।

বাগদা চিংড়ি – ৫৩০ টাকা কেজি। (মিডিয়াম সাইজ)।

বাগদা চিংড়ি – ৯৫০ টাকা কেজি। (বড় সাইজ)।

পায়রা মাছ – ৪০০ টাকা কেজি।

ইলিশ মাছ – ৭০০ টাকা কেজি (২ পিসে ১ কেজি)।

ইলিশ মাছ – ১১০০ টাকা কেজি (১ পিসে ১ কেজি)।

কই মাছ – ২০০ টাকা কেজি (বড় সাইজ)।

কই মাছ – ২৫০ টাকা কেজি (ছোট সাইজ)।

সিলভার কার্প – ১৮০ টাকা কেজি।

মাগুর মাছ (দেশী) – ৮০০ টাকা কেজি।

মাগুর মাছ (হাইব্রীড) – ৪০০ টাকা কেজি।

বাইন মাছ (ছোট) – ৪৫০ টাকা কেজি।

বাইন মাছ (বড়) – ৮০০ টাকা কেজি।

বেলে মাছ – ৭০০ টাকা কেজি।

টেংড়া মাছ (ছোট) – ৪০০ টাকা কেজি।

টেংড়া মাছ (বড়) – ৫৫০ টাকা কেজি।

পাটালি ও গুড়ের বাজার দর

আখের গুড় ১৮০ টাকা কেজি।

আখের পাটালি ১২০ টাকা কেজি।

তালের গুড় ১৮০ টাকা কেজি।

তালের পাটালি ১২০ টাকা কেজি।

পান

২০ পিস – ৫০ টাকা।

শুকনা সুপারি (১০০ গ্রাম) – ৪৫ টাকা।

ঘি

খাঁটি গাওয়া ঘি ১৫০০ টাকা কেজি।

মধু

সুন্দরবনের খাঁটি খলিশা ফুলের মধু ৯৫০ টাকা কেজি।

লিচু ফুলের খাঁটি মধু ৬২০ টাকা কেজি।

সরিষা ফুলের খাঁটি মধু ৬০০ টাকা কেজি।

কালোজিরার খাঁটি মধু ১৫০০ টাকা কেজি।

এলপিজি সিলিন্ডারের গ্যাসের দাম

বেক্সিমকো ৮৮০

ওমেরা ৮৮০

বসুন্ধরা ৮৮০

ক্লিন হিট ৮৮০

যমুনা ৮৮০

পেট্রোম্যাক্স ৮৮০

টোটাল ৯৮০

ন্যাপকিন

সেনোরা রেগুলার প্যাক (১০ পিস) – ৯৫ টাকা (বেল্ট ও প্যান্টি)

জয়া (৮ পিস) – ৬০ টাকা

মোনালিসা – ৮৫ টাকা (১০ পিস)

যে কোন দেশী বিদেশী ঔষধ ৮/১০% ডিসকাউন্টে সরবারহ করা হয়।

দেশী বিদেশী ফুল ও ফলের গাছের নাম ও দাম

বারোমাসি কাগজি লেবু (ফল সহ) – ৩২০ টাকা।

ক্রিসমাস ট্রি – ৫০০ টাকা।

গোলাপী গোলাপ – ৬০ টাকা

চায়না থ্রী লিচু গাছ (ফল সহ) – ৭০০ টাকা।

জামরুল গাছ (সবুজ ফল হবে) – ২০০ টাকা।

বারোমাসি দার্জিলিং কমলা গাছ (ফল সহ) – ৫০০ টাকা।

থাই পেয়ারা (ফল সহ) – ১৫০ টাকা।

বারোমাসি থাই আমড়া – ৪০০ টাকা।

থাই নারিকেল গাছ – ১২০০ টাকা।

বারোমাসি থাই লাল কাঁঠাল গাছ- ৬৫০ টাকা।

বারোমাসি থাই ছবেদা (ফুল ও ফল সহ) – ৪০০ টাকা।

বাগান বিলাস গাছ (ফুল সহ) – ৬০০ টাকা।

বারোমাসি মাল্টা গাছ (ফল সহ) – ৫০০ টাকা।

মিষ্টি কদবেল গাছে – ৩০০ টাকা।

মিষ্টি তেতুল গাছ – ৮০০ টালা।

বারোমাসি আনার (৩ ফুট বড় গাছ) – ৪০০ টাকা।

সীডলেচ কাগজি লেবু গাছ (ফল সহ) – ৩২০ টাকা।

অষ্ট্রেলিয়ান আপেল গাছ – ৬০০ টাকা পিস।

আঙুর পেয়ারা গাছ – ৩০০ টাকা পিস।

বারোমাসি চায়না কমলা গাছ (ফল সহ) – ৫৫০ টাকা।

তেজপাতা গাছ – ৩০০ টাকা পিস।

বারোমাসি আমড়া – ৩০০ টাকা পিস।

মিষ্টি জলপাই – ৫০০ টাকা।

লটকন গাছ – ৩০০ টাকা।

(এখানে ২/৩ ফুট উচচতার হাইব্রীড গাছের দাম দেওয়া হয়েছে। প্রতিটি গাছের দাম গাছের উচচতা, বয়স ও গ্রোথ এর উপরে ভিত্তি করে দাম কম বেশী হবে। )

এছাড়াও সাতক্ষীরা বিখ্যাত জাইহুন ও আদি সাগর সুইটস এর সকল মিষ্টি দোকানের নির্ধারিত দামেই সাতক্ষীরা অনলাইন শপে পাওয়া যাচ্ছে।

সাতক্ষীরা অনলাইন শপের অর্ডার ও ডেলিভারি সম্পর্কিত নীতিমালাঃ

 ডেলিভারি চার্জ সাতক্ষীরা পৌরসভার ভিতরে মাত্র ২০ টাকা। যত খুশি অর্ডার করুন চার্জ ২০ টাকাই থাকবে। অর্ডারের পরিমানের উপর ভিত্তি করে চার্জ বাড়বে না। ঢাকা শহরের জন্য হোম ডেলিভারি চার্জ ১০০ টাকা + কুরিয়ার চার্জ। 

পণ্য হাতে পেয়ে টাকা পরিশোধ করার সুযোগ । 

বিকাশ, রকেট, নগদ ও হ্যান্ড ক্যাশ এই চার পদ্ধতিতে টাকা পরিশোধ করার সুযোগ। 

পণ্য পছন্দ না হলে বা পণ্যের মান খারাপ হলে পণ্য ফেরত দেওয়ার সুযোগ আছে। 

সাতক্ষীরা অনলাইন শপে অর্ডার করার নিয়মঃ

বর্তমানে গ্রাহকরা মোট ৪ পদ্ধতিতে সাতক্ষীরা অনলাইন শপে অর্ডার করতে পারছেন। প্রতিষ্ঠানের হট লাইনে সরাসরি ফোনের মাধ্যমে (হট লাইন 01303244949), 

উক্ত নাম্বারে এস এম এস করে

 ফেইসবুক পেজে ম্যাসেজ প্রদানের মাধ্যমে (facebook.com/satkhiraonlineshop/), 

সরাসরি প্রতিষ্ঠানের ওয়েব সাইটের মাধ্যমে (www.satkhiraonlineshop.com) অর্ডার করা যাবে। 

–প্রতিদিনের বাজার দর জানতে চোখ রাখুন www.voiceofsatkhira.com
Regards,
Sk Imran Hossain
Founder & CEO
Satkhira IT Firm & Satkhira Online Shop
Contact: 01798317990
f: facebook.com/imran6709