‘চাঁদাবাজির প্রতিবাদ করায় আমার ছেলে কলেজ ছাত্র গৌতম খুন হয়েছে’


408 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
‘চাঁদাবাজির প্রতিবাদ করায় আমার ছেলে কলেজ ছাত্র গৌতম খুন হয়েছে’
ডিসেম্বর ২২, ২০১৬ ফটো গ্যালারি সাতক্ষীরা সদর
Print Friendly, PDF & Email

আসাদুজ্জামান :
সাতক্ষীরার চাঞ্চল্যকর গৌতম হত্যা মামলায় পুলিশের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন  তার বাবা ইউপি সদস্য গনেশ চন্দ্র সরকার।  বৃহস্পতিবার সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলন করে তিনি তার পুত্র হত্যার বিচার দাবি করে বলেন এখন পর্যন্ত অন্যান্য আসামিদের গ্রেফতার করা হয়নি। হত্যার পর থেকে তিনি আতংকিত হয়ে আছেন বলে সংবাদ সম্মেলনে উল্লেখ করেন ।
নিহত গৌতম সরকারের বাবা গনেশ সরকার বলেন তার এলাকা সাতক্ষীরা সদর উপজেলার ঘোনা ইউনিয়নের মহাদেবনগর গ্রামে কয়েক যুবক চাঁদাবাজি করতো। তিনি এর প্রতিবাদ করায় তার কলেজ ছাত্র  ছেলেকে হত্যা করা হয়েছে। তিনি আরও বলেন এই চাঁদাবাজদের একজনকে পুলিশ ধরে নিয়ে যায়। দুদিন পর তাকে থানা ছেড়ে দেওয়া হলে সে তাকে মোবাইল ফোনে হুমকি দিয়ে দশ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করেচিল।  ওই রাতেই তার ছেলে গৌতম অপহৃত হয়। পরে তাকে বাড়ির কাছে একটি পুকুর পাড়ে নৃশংসভাবে হত্যা করা হয়।
সংবাদ সম্মেলনে গনেশ সরকার পুলিশ সুপারের এক প্রেসব্রিফিংয়ের উদ্ধৃতি টেনে বলেন তার ছেলেকে ৫০ হাজার টাকার জন্য হত্যা করা হয়েছে বলে তিনি যা বলেছেন তা সঠিক  নয়।  মামলাটি ভিন্ন খাতে ঠেলে দেওয়ার অভিযোগও করেন তিনি।
সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন ঘোনা ইউপি চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ ফজলুর রহমান ও তার পরিষদের  সাধারন ও মহিলাসহ ১২ জন সদস্য।

উল্লেখ্য, গত ১৩ ডিসেম্বর মাহমুদপুর সীমান্ত কলেজের ছাত্র গৌতম সরকার অপহৃত হন। পরে তাকে হত্যা করে লাশ একটি  পুকুরে ফেলে দেওয়া হয়। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত ছয়জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।