চিকিৎসা বিজ্ঞানে খৎনার উপকারিতা : ডা: শেখ আবু সাঈদ শুভ


3119 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
চিকিৎসা বিজ্ঞানে খৎনার উপকারিতা : ডা: শেখ আবু সাঈদ শুভ
ডিসেম্বর ১৫, ২০১৫ ফটো গ্যালারি স্বাস্থ্য
Print Friendly, PDF & Email

খৎনা কি?
পুরুষের লিঙ্গের অগ্রভাগের চামড়া অপরেশনের মাধ্যমে অপসারণ করার পদ্ধতিকে খৎনা বলে মেডিকেল ভাষায় এটির নাম পরৎপঁসপরংরড়হ.

কেন খৎনা করা হয়?
১. ধর্মীয় কারণ:
মুসলিমরা তাদের  ধর্মীয় রীতি অনুযায়ী সুন্নতে খৎনা করিয়ে থাকে। এছাড়া ইহুদী ও খ্রীষ্টানরাও এটা করে। আমেরিকায় সাধারণত জন্মের পরপরই এটি করানো হয়ে থাকে। ইহুদীরা তাদের ছেলে বাচ্চাকে সাধারণত ৮ দিন বয়সে খৎনা করায়। মুসলিমরা সাধরণত ৫-৭ বছর বয়সে খৎনা করায়।
২. মেডিকেল কারণ:
ফাইমোসিস : লিঙ্গের অগ্রভাগের চামড়ার ছিদ্র চিকন থাকে। ফলে প্র¯্রাবের ধারা চিকন, প্র¯্রাবের সময় লিঙ্গের অগ্রভাগ ফুলে যাওয়া, প্র¯্রাবের শেষে ফোঁটা ফোঁটা প্র¯্রাব হওয়া ইত্যাদি।
প্যারাফাইমোসিস : লিঙ্গের অগ্রভাগের চামড়া দুর্ঘটনাবশত পেছনের দিকে শিশ্নের পিছনের অংশে আটকে যায়। এক্ষেত্রে ব্যথা বা ফুলে যাওয়া, প্র¯্রাব আটকে যাওয়া ইত্যাদি সমস্যা হতে পারে। এটি অতি জরুরী অবস্থা। এ অবস্থায় জরুরী ভিত্তিতে অপারেশন প্রয়োজন। অপারেশনে দেরী হলে পচন/ইনফেকশন পর্যন্ত হতে পারে।
স্মেগমাল সিস্ট : লিঙ্গের সামনের অংশে ছোট টিউমার।
ব্যালানাইটিস বা ব্যালানোপ্রস্থাইটস বা লিঙ্গের ইনফেকশন : লিঙ্গ ফুলে যাওয়া, প্র¯্রাবের রাস্তা দিয়ে পুঁজ আসা ইত্যাদি।
বারবার প্র¯্রাবের ইনফেকশন : যাদের বারবার প্রস্্রাবের ইনফেকশন হয়, গবেষণায় দেখা গেছে অন্য কোন কারণ না থাকলে খৎনা করালে এ সমস্যার সমাধান বা উন্নতি হয়।

উপকারিতা :
খৎনা করার ব্যাপারে কিছু ধর্মীয় বিতর্ক থাকলেও খৎনা করার ফলে অনেকগুলি রোগের ঝুঁকি কমে। যেমন-
১. পুরুষাঙ্গের ক্যান্সার
২. এইডসসহ যৌনবাহিত কিছু রোগ
৩. ব্যানাইটিস বা ব্যালানোপ্রস্থাইটিস (লিঙ্গের ইনফেকশন)
৪. বারবার প্র¯্রাবের ইনফেকশন
৫. সংগীনির সারভাইকাল ক্যান্সার
পদ্ধতি: প্রথাগত কেটে অপারেশন ছাড়াও বিভিন্ন উপায়ে খৎনা করা যায়। এর মধ্যে একটি পদ্ধতি হলো প্লাষ্টিবেল ডিভাইস পরৎপঁসপরংরড়হ. এ পদ্ধতিতে খরচ বেশি হলেও এতে কোন সেলাই প্রয়োজন হয়না, রক্তক্ষরণ কম হয় এবং রোগি দ্রুত সুস্থ হয়ে ওঠে।
ঝুক:ি
হাজামরে মাধ্যমে অথবা অনভজ্ঞি র্সাজনরে দ্বারা খৎনা করালে অনকে ক্ষত্রেে অতরিক্তি রক্তক্ষরন , ইনফকেশান এমনকি শশ্নিরে অংশবশিষে কটেে যতেে পার।ে শশ্নি কটেে যাওয়া হলো সবচয়েে বড় জটলিতা। এর কারন হলো না নশ্চিতি হয়ে খৎনা করতে গয়িে চামড়ার সাথে শশ্নিরে অংশ কটেে যাওয়া। অভজ্ঞি শশিু র্সাজনরে হাতে মানসম্পন্ন আধুনকি অপারশেন থয়িটোরে জীবানুমুক্ত যন্ত্রপাতি ব্যবহারে এটি সম্প্র্নু নরিাপদ। এছাড়া অন্যান্য  ঝুকি গুলো হলো:
১.    ইনফকেশান
২.    পুরুষাঙ্গ লালচে হওয়া বা ফুলে যাওয়া
৩.    পুরুষাঙ্গে আঘাত
কখন খৎনা করা নিষেধ?
জন্মগত ত্রুটি হাইপোসপেডিয়স (প্র¯্রাবেরছিদ্র পুরুষাঙ্গের নিচে) থাকলে খতনা করা সম্পুর্ন নিষেদ। কারণঅপারেশনের সমায় এ চামড়া কাজে লাগে।

লেখক পরিচিতি :

ডাঃ শেখ আবু সাঈদ শুভ
এমবিবিএস, এমএস (শিশু সার্জারী)
নবজাতক, শিশু-কিশোর বিশেষজ্ঞ সার্জন
সহকারী অধ্যাপক,শিশু সার্জারী
সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, সাতক্ষীরা
মোবাইল- ০১৭২৯-৫৭৬ ৫৭৬