চির নিদ্রায় শায়িত বিচারপতি কামরুল ইসলাম সিদ্দিকী


846 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
চির নিদ্রায় শায়িত বিচারপতি কামরুল ইসলাম সিদ্দিকী
আগস্ট ১৯, ২০১৮ আশাশুনি ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

 

শেখ আসাদুজ্জামান (মুকুল)/ ফিরোজ হোসেন  ::

সাতক্ষীরার কৃতি সন্তান বিচারপতি কামরুল ইসলাম সিদ্দিকী চির নিদ্রায় শায়িত হয়েছে। তার জানাযার নামাজ আজ রবিবার যোহর নামাজ বাদ দরগাহপুর কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ প্রাঙ্গনে অনুষ্ঠিত হয়েছে। জানাযায় নামাজ পড়ান দরগাহপুর কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের খতিব মাওলানা আলহাজ্ব আব্দুল হান্নান।

জানাযা নামাজে সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রাখেন সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ ইফতেখার হোসেন, ভারপ্রাপ্ত সাতক্ষীরা জেলা জজ অরুনভ চক্রবর্তী, এ এস পি কাজী মইন, সুপ্রিম কোটের আইনজীবী মোহাম্মদ হোসেন,সাতক্ষীরা জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি এ্যাডভোকেট অাবুল হোসেন , বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল কালাম আজাদ, বিচারপতি কামরুল ইসলাম সিদ্দিকীর ভাতিজা এ্যাডভোকেট তানবিরুল ইসলাম সিদ্দিকীসহ প্রমুখ।

উপস্থিত ছিলেন সাব জজ কলোরোয়া ও দেবহাটা, সাতক্ষীরা আইনজীবী সমিতির সাধারন সম্পাদক, আশাশুনি উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা, দরগাহপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান শেখ মিরাজ আলীসহ অনেকেই ।

জানাযা নামাজ শেষে মরহুমের কফিনে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ ইফতেখার হোসেন, ভারপ্রাপ্ত সাতক্ষীরা জেলা জজ অরুনভ চক্রবর্তী,সাতক্ষীরা জেলা পুলিশ সুপারের পক্ষে এ এস পি কাজী মইনউদ্দিন , আশাশুনি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্ত মাফফারা তাসনিন।

দুর দরান্ত থেকে অনেক মুসল্লিরা আসেন জানাযায় অংশগ্রহন করার জন্য। জানাযা শেষে বিচারপতি কামরুল ইসলাম সিদ্দিকীকে তাঁদের পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়।

বিচারপতি কামরুল ইসলাম সিদ্দিকী ১৯৫০ সালের ৩০ মে সাতক্ষীরার আশাশুনি উপজেলার দরগাহপুর গ্রামে এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহন করেন। তিনি ১৯৭৫ সালের ডিসেম্বর মাসে মুন্সেফ হিসেবে বাংলাদেশ জুডিসিয়াল সার্ভিসে যোগদান করেন।পরবর্তীতে সাব জজ, ডেপুটি সেক্রেটারী, সুপ্রীম কোর্টের ডেপুটি রেজিস্ট্রার, জেলা ও দায়রা জজ, সুপ্রীম কোর্টের রেজিস্ট্রার এবং ২০০৪ সালের ২৮ আগষ্ট হাইকোর্ট বিভাগে বিচারপতি হিসেবে নিয়োগ লাভ করেন। তাঁর পিতা মরহুম আব্দুল ওহাব সিদ্দিকী তৎকালীন ব্রিটিশ ভারতের কলকাতায় ৩০ ও ৪০ এর দশকে প্রথিতযশা সাংবাদিক, সম্পাদক ও সাহিত্যিক ছিলেন।