জবি ছাত্রলীগের সম্মেলনে স্লোগান দিতে দিতে কর্মীর মৃত্যু


158 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
জবি ছাত্রলীগের সম্মেলনে স্লোগান দিতে দিতে কর্মীর মৃত্যু
জুলাই ২১, ২০১৯ জাতীয় ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

অনলাইন ডেস্ক ::

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় (জবি) শাখা ছাত্রলীগের সম্মেলনে এসে হিটস্ট্রোকে মারা গেছেন ইংরেজি বিভাগের শিক্ষার্থী সুলতান মো. ওয়াসি। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, সম্মেলন চলাকালে স্লোগান দিতে দিতে একপর্যায়ে প্রচণ্ড গরমে অসুস্থ হয়ে পড়েন ছাত্রলীগের এই কর্মী।

শনিবার বিকেল ৩টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞান চত্বরের সামনে ছাত্রলীগের সম্মেলন স্থলে এ ঘটনা ঘটে। ওয়াসি ইংরেজি বিভাগের ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের (একাদশ ব্যাচ) শিক্ষার্থী। তার বাড়ি নোয়াখালীতে।

সংগঠনের কর্মীরা জানান, সম্মেলন মঞ্চের খুব কাছে ছিলেন ওয়াসি। বিকেলের দিকে হঠাৎ তীব্র গরমে অসুস্থ হয়ে পড়ে যান তিনি। পরে তাৎক্ষণিক বিশ্ববিদ্যালয় সংলগ্ন ন্যাশনাল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। এ সময় হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক তার পালস না পাওয়ায় সঙ্গে সঙ্গেই তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে ইসিজি করানোর পর মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসকরা। তার মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী প্রক্টর মোস্তফা কামাল।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সকাল থেকেই সম্মেলন স্থলে ঘোরাঘুরি করছিলেন ওয়াসি। তিনি সুস্থই ছিলেন। বিকেলে সম্মেলন শুরু হলে মাঝেমধ্যে স্লোগান দিচ্ছিলেন তিনি। প্রচণ্ড গরমের মধ্যে স্লোগান দিতে দিতেই অসুস্থ হয়ে পড়েন ওয়াসি। তার সহপাঠীদের অভিযোগ, সম্মেলনকে কেন্দ্র করে পদপ্রত্যাশী নেতারা নিজেদের শক্তি জানান দিতে কর্মী-সমর্থকদের নিয়ে আগের রাত থেকেই সম্মেলন স্থলে শোডাউন দিচ্ছিলেন। এসব নেতার কর্মীরা মঞ্চের সামনের জায়গা দখল করে সারারাত অবস্থান করেন। এতে অনেকেই প্রচণ্ড ক্লান্ত ছিলেন। এ ছাড়া সকাল ১১টায় সম্মেলন শুরু হওয়ার কথা থাকলেও দুপুর পেরিয়ে বিকেল ৩টায় অনুষ্ঠান শুরু হয়। এ সময় পদপ্রত্যাশী নেতাদের অনুগত কর্মীরা একে অপরের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে স্লোগান দিতে থাকেন। এত সময় নিয়ে গরমের মধ্যে থাকার কারণেই ওয়াসি অসুস্থ হয়ে পড়েন। অভিযোগ রয়েছে, ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় নেতাদের আসতে দেরি হওয়ার কারণে সম্মেলন শুরুতেও দেরি হয়েছে।

এদিকে ওয়াসির মৃত্যুর খবরে কোনো কমিটি ঘোষণা না করেই সম্মেলন সমাপ্ত করা হয়। সম্মেলনে প্রধান অতিথি ছিলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি মো. রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভনের উদ্বোধনে সম্মেলনে প্রধান বক্তা ছিলেন কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী। সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির আহ্বায়ক আশরাফুল ইসলাম টিটনের সভাপতিত্বে ও যুগ্ম আহ্বায়ক জামাল উদ্দিনের সঞ্চালনায় আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী সদস্য অ্যাডভোকেট কাজী নজীবুল্লাহ হীরু, ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদসহ জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাবেক শীর্ষ নেতারা এতে বক্তব্য দেন।