জমে উঠেছে সাতক্ষীরা পৌরসভার নির্বাচন


550 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
জমে উঠেছে সাতক্ষীরা পৌরসভার নির্বাচন
ডিসেম্বর ১৭, ২০১৫ জাতীয় ফটো গ্যালারি সাতক্ষীরা সদর
Print Friendly, PDF & Email

ইব্রাহিম খলিল :
জমে উঠেছে সাতক্ষীরা পৌরসভা নির্বাচন। প্রতীক বরাদ্দ পাওয়ার পর মেয়র প্রার্থীরা জোরেশোরে প্রচারনায় নেমে পড়েছেন। কে হচ্ছেন সাতক্ষীরা পৌরসভার মেয়র কে হচ্ছেন পৌর পিতা এ নিয়ে ভোটারদের মধ্যে চলছে চুলচেরা বিশ্লেষন। বর্তমান মেয়র নির্বাচন না করায় এবার সাতক্ষীরাবাসি একজন নতুন মেয়র পাচ্ছেন। সাধারণ ভোটারদের দাবী পৌরবাসির সুখে দুঃখে পৌরসভার উন্নয়নে যিনি কাজ করতে পারবেন তাকেই ভোট দেবেন ভোটাররা।

জেলা নির্বাচন অফিস সুত্রে জানা যায়, সাতক্ষীরা পৌরসভা স্থাপিত হয় ১৮৬৯ খ্রিস্টব্দে। পৌরসভার আয়তন ৩১.১০ বর্গকিলোমিটার। পৌরসভার মোট জনসংখ্যা ১,৬৫,৫০১ জন। এরমধ্যে পুরুষ ৭৪,১৪৮ জন, মহিলা ৭৫,৩৫৩ জন। ভোটার সংখ্যা ৭৯,৬৩৪ জন। পুরুষ ভোটার ৩৯,১১০জন, মহিলা ভোটার ৪০,৫২৪ জন। সাতক্ষীরা পৌরসভার ওয়ার্ড রয়েছে নয়টি।

সাতক্ষীরা পৌরসভার মধ্যে সরকারী কলেজ রয়েছে ২ টি,বে-সরকারী কলেজ ৫ টি,টেকনিক্যাল স্কুল এন্ড কলেজ ২ টি, মাধ্যমিক স্কুল সরকারী -২টি,ভোকেশনাল ট্রেনিং ইনিস্টিটিউট-১ টি,বে-সরকারী স্কুল- ৮ টি, প্রাথমিক স্কুল ৩৪ টি। মাদরাসা ৪ টি। কিন্ডার গার্ডেন স্কুল ২০ টি স্কুল কলেজ নিয়ে সাতক্ষীরা পৌরসভা প্রতিষ্ঠিত।

সাতক্ষীরা পৌর নির্বাচনের রির্টানিং অফিসার এ এফ এম এহতেসামুল হক জানান, সাতক্ষীরা সদর পৌরসভায় মেয়র পদে চার জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দতা করছেন।

এরমধ্যে আওয়ামীলীগের মনোনীত প্রার্থী হিসেবে নৌকা প্রতীক নিয়ে মাঠে আছেন পৌর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক সাহাদাৎ হোসেন।

বিএনপি মনোনিত তাজকিন আহমেদ চিশতি ধানের শীষ প্রতীক, জেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি শেখ আজহার হোসেন লাঙ্গল ও বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে জেলা যুবদলের সাবেক সাধারন সম্পাদক ও সাতক্ষীরা চেম্বার অব কমার্সের সভাপতি নাছিম ফারুখ খান মিঠু নারিকেল গাছ প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করছেন।

আওয়ামীলীগ মনোনিত প্রার্থী সাহাদাৎ হোসেন বলেন, প্রধানমন্ত্রী আমাকে মনোনয়ন দিয়েছে। জেতার ব্যাপারে শতভাগ আশাবাদ ব্যাক্ত করে বলেন অবহেলিত পৌরবাসির উন্নয়নে তিনি কাজ করতে চান। পৌর মেয়র হতে পারলে তিনি পৌরসভার রাস্তা ঘাট ড্রেনেজ ব্যাবস্থা জলাবদ্ধতাসহ সকল সমস্যার সমাধান করবেন।

বিএনপি প্রার্থী তাজিকিন আহমেদ চিশতী বলেন, সাতক্ষীরা প্রাণ হচ্ছে প্রাণ সায়েরের খাল। প্রাণ সায়েরের খাল এখন মৃত প্রায়। তিনি নির্বাচিত হতে পারলে প্রাণ সায়েরের খালের প্রাণ ফিরিয়ে দেওয়ার পাশাপাশি পৌরবাসির প্রাণ ফিরিয়ে দিবেন। তাছাড়া আমি নির্বাচিত হতে পারলে সাতক্ষীরা পৌরসভার সকল সম্যাসার সমাধান করবেন বলে আশাবাদ ব্যাক্ত করেন।

জাতীয় পার্টির প্রার্থী শেখ আজহার হোসেন বলেন, সাতক্ষীরা পৌরবাসি দীর্ঘদিন অবহেলিত। এখানে রাস্তাঘাটের বেহাল অবস্থা। সাতক্ষীরা পৌরসভা প্রথম শ্রেনী পৌরসভা হলেও এখানে তার কোন ছোয়া লাগেনি। তিনি নির্বাচিত হতে পারলে পৌরসভার উন্নয়নে কাজ করবেন।

বিদ্রোহী প্রার্থী নাছিম ফারুখ খান মিঠু বলেন, আমি ব্যাবসায়ি সংগঠনের প্রতিনিধি হিসেবে নির্বাচন করছি। পৌরবাসভার ব্যাবসা বানিজ্য প্রসার ও পৌরসভার উন্নয়নে তিনি কাজ করবেন বলে আশাবাদ ব্যাক্ত করেন।