জামায়াতের অর্থদাতা সানি খালেক, সাবেক চেয়ারম্যান আসাদসহ ৫ জনের বিরুদ্ধে নাশকতার মামলা


621 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
জামায়াতের অর্থদাতা সানি খালেক, সাবেক চেয়ারম্যান আসাদসহ ৫ জনের বিরুদ্ধে নাশকতার মামলা
আগস্ট ৫, ২০১৬ ফটো গ্যালারি সাতক্ষীরা সদর
Print Friendly, PDF & Email

এম বেলাল হোসাইন :
সম্প্রতি নাশকতার পরিকল্পনার অভিযোগে সাতক্ষীরায় জামায়াতের অর্থদাতা হিসেবে পরিচিত সানি খালেক ও ভোমরার সাবেক চেয়ারম্যান আসাদুর রহমানসহ ৫ জনের নামে মামলা দায়ের করা হয়েছে। সাতক্ষীরা সদর থানার এ এস আই সেলিম রেজা বাদি হয়ে গত ২৭ জুলাই এ মামলা দায়ের করেন।

মামলার আসামিরা হলেন, শ্যামনগর উপজেলা জামায়াতের সাবেক বায়তুল মাল সম্পাদক ও শ্যামনগরের হরিনগর গ্রামের আব্দুল করিম গাজীর ছেলে এবং সাতক্ষীরা ক্যাডেট মাদ্রাসার পরিচালক নূরুল ইসলাম সিদ্দিকী(৩৮), সুলতানপুর এলাকার আব্দুল মাজেদ গাজীর ছেলে সাতক্ষীরা জামায়াতের মীর কাশেম খ্যাত আব্দুল খালেক ওরফে সানি খালেক(৫৩), বড় বাজারের আলু ব্যবসায়ী কাটিয়া এলাকার মৃত সানাউল্লাহর ছেলে শেখ মহসীন ওরফে আলু মহসীন, ভোমরা এলাকার রাহাতুল্লাহর ছেলে ও সাবেক চেয়ারম্যান এবং জেলা বিএনপি নেতা আসাদুর রহমান এবং চালতেতলা এলাকার জনৈক আব্দুল্লাহ।

আসামীদের মধ্যে সানি খালেক ও নুরুল ইসলাম বর্তমানে জেল হাজতে রয়েছেন।
13892060_10208631028560897_8721617324646305051_n
মামলা সূত্রে জানাযায়, গত ২৬ জুলাই পুরাতন সাতক্ষীরায় এলাকায় নাশকতা সৃষ্টির লক্ষ্যে সানি খালেক ও আসাদুর রহমানসহ জামায়াত-শিবিরসহ কয়েকজন নেতাকর্মীরা গোপন বৈঠক করছিল। এখবর পেয়ে পুরাতন সাতক্ষীরা ফাঁড়ির ইনচার্জ এ এস আই সেলিম রেজা ও সঙ্গীয় ফোর্স ওই স্থানে অভিযান চালায়। এসময় সানি খালেক ও নুরুল ইসলাম কে আটক করা গেলেও বাকী আসামীরা পালিয়ে যায়। ঘটনাস্থল থেকে জামায়াতের সাবেক গোলাম আযম সম্পাদিত কয়েকটি বইসহ মোট ২৩ টি জিহাদী বই এবং অবিস্ফোরিত ককটেল উদ্ধার করে পুলিশ।

এবিষয়ে সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ইমদাদুল হক শেখ ভয়েস অব সাতক্ষীরাকে বলেন, উল্লেখিত আসামীরা সরাসরি জামায়াতের সাথে জড়িত। বিশেষ করে সানি খালেক জামায়াতের অর্থ দাতা হিসাবে পরিচিত। সানি খালেক এর ৭ রিমান্ডের আবেদন ও করা হয়েছিল। কিন্তু তার শারীরিক অসুস্থ্যতার কারণে শুনানী হয়নি। আর ওই মামলা বাকী আসামীদের গ্রেফতারের জন্য পুলিশ অভিযান অব্যাহত রেখেছে।