জামিনে মুক্তি পেলেন লতিফ সিদ্দিকী


461 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
জামিনে মুক্তি পেলেন লতিফ সিদ্দিকী
জুন ২৯, ২০১৫ খুলনা বিভাগ জাতীয় ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

 

 

ভয়েস ডেস্ক :
সোমবার বকিলেে বঙ্গবন্ধু মডেকিলে বশ্বিবদ্যিালয়রে প্রজিন সলে থকেে মুক্তি পান র্ধমীয় অনুভূততিে আঘাত দওেয়ার মামলায় সাত মাস কারাভোগকারী আলোচতি-সমালোচতি এই নতো।

বকিলে সাড়ে ৪টায় আনুষ্ঠানকিতা শষেে সাবকে মন্ত্রী আবদুল লতফি সদ্দিকিীকে বঙ্গবন্ধু মডেকিলে বশ্বিবদ্যিালয়রে কবেনি ব্লকরে ৫১২ নম্বর কক্ষ (প্রজিন সলে) থকেে মুক্তি দওেয়া হয়। এতদনি এখানইে চকিৎিসাধীন ছলিনে তনি।ি মুক্তি পয়েে অনকেটা নীরবইে হাসপাতাল ত্যাগ করে রাজধানীর গুলশান ২ নম্বররে বাসায় চলে যান লতফি সদ্দিকিী।

ঢাকা কন্দ্রেীয় কারাগাররে সনিয়ির জলে সুপার ফরমান আলী সমকালকে জানান, উচ্চআদালতে থকেে লতফি সদ্দিকিীর জামনিরে কাগজপত্র পাওয়ার পর আইনগত প্রক্রয়িা শষেে তাকে মুক্তি দওেয়া হয়ছে।ে

এর আগে লতফি সদ্দিকিীর জামনিে মুক্তরি খবর ছড়য়িে পড়লে বলো ১২টার পর থকেইে বপিুল সংখ্যক গণমাধ্যম র্কমী বঙ্গবন্ধু মডেকিলে কলজে হাসপাতালে জড়ো হন। অপ্রীতকির ঘটনার আশঙ্কায় সখোনে বপিুল সংখ্যক পুলশিও মোতায়নে করা হয়ছেলি।

মুক্তরি পর লতফি সদ্দিকিী হাসপাতাল এলাকা ত্যাগ করার সময় তাকে কড়া পুলশি প্রহরা দওেয়া হয়। এ সময় সাংবাদকিদরে সঙ্গে কোনো কথা বলতে অপারগতা প্রকাশ করনে তনি।ি

র্ধমীয় অনুভূততিে আঘাতদানরে ঘটনায় লতফি সদ্দিকিীর বরিুদ্ধে ঢাকাসহ সারাদশেে ২৭টি মামলা হয়ছেলি। গত ২৩ জুন ১০টি এবং গত ২৬ মে সাতটি মামলায় তাকে অর্ন্তর্বতীকালীন জামনি দনে হাইর্কোটরে একটি বঞ্চে। বাকি ১০টি মামলায় গ্রফেতারি পরোয়ানা না থাকায় জামনি চাননি লতফি সদ্দিকিী। তার জামনি আবদেনে বলা হয়, ফৌজদারি র্কাযবধিরি ১৮৮ ধারা অনুযায়ী দশেরে বাইরে সংঘটতি অপরাধ নজি দশেে বচিার করতে হলে মামলা দায়রেরে আগে সরকাররে অনুমোদন নতিে হয়। কন্তিু এসব মামলার ক্ষত্রেে কোনো অনুমোদন নওেয়া হয়ন।ি

গত বছররে ২৯ সপ্টেম্বের নউিইর্য়করে জ্যাকসন হাইটসরে পালকি র্পাটি সন্টোরে যুক্তরাষ্ট্র টাঙ্গাইল জলো সমতিরি মতবনিমিয় অনুষ্ঠানে পবত্রি হজ ও তাবলীগ জামায়াত নয়িে কটূক্তি করনে তখনকার ডাক ও টলেযিোগাযোগ মন্ত্রী লতফি সদ্দিকিী। তনিি বলনে, ‘আমি হজ ও তাবলগি জামায়াতরে বরিোধী। এ হজ যে কতো ম্যানপাওয়ার নষ্ট হয়। এই হজরে জন্য ২০ লাখ লোক আজ সৌদি আরব গছেনে। এদরে কোনো কাজ নইে। কোনো প্রডাকশন নইে। শুধু রডিাকশন দচ্ছি।ে শুধু খাচ্ছে আর দশেরে টাকা বদিশেে দয়িে আসছ।ে’

অনুষ্ঠানে তনিি প্রধানমন্ত্রীর ছলেে ও তার তথ্যপ্রযুক্তি বষিয়ক উপদষ্টো সজীব ওয়াজদে জয় ‘সরকাররে কউে নন’ এবং ‘কোনো সদ্ধিান্ত নওেয়ারও কউে নন’ মন্তব্য করায় আওয়ামী লীগ র্কমী-সর্মথকরা অনুষ্ঠানস্থলইে ক্ষোভ প্রকাশ ও হচৈৈ শুরু করনে। একর্পযায়ে বাধ্য হয়ইে অনুষ্ঠানস্থল ত্যাগ করনে তনি।ি

লতফি সদ্দিকিীর এমন বক্তব্য গণমাধ্যমসহ বভিন্নিভাবে দ্রুত ছড়য়িে পড়ায় দশে-বদিশেে ব্যাপক সমালোচনার জন্ম হয়। দশেরে কয়কেটি ইসলামী দল ও সংগঠন তাকে গ্রফেতার ও বচিারসহ মন্ত্রসিভা থকেে অপসারণরে দাবতিে আন্দোলন শুরু করলে উত্তপ্ত পরস্থিতিি সৃষ্টরি আশঙ্কা দখো দয়ে দশেজুড়।ে অবশ্য এর আগইে সে সময় জাতসিংঘরে অধবিশেনে যোগদানরত প্রধানমন্ত্রী শখে হাসনিার নর্দিশেে লতফি সদ্দিকিীকে মন্ত্রসিভা থকেে অপসারণ প্রক্রয়িা শুরু হয়। দশেে ফরোর পর ২ অক্টোবররে সংবাদ সম্মলেনে প্রধানমন্ত্রী তাকে দল থকেওে বাদ দওেয়া হবে বলওে ঘোষণা দনে।

এরইমধ্যে দশেরে বভিন্নি স্থানে র্ধমীয় অনুভূততিে আঘাত দওেয়ার অভযিোগে তার বরিুদ্ধে একরে পর এক মামলা হতে থাক।ে অন্যদকিে কয়কেদনি আমরেকিা ও কানাডায় ময়েরে বাড়তিে অবস্থান শষেে লতফি সদ্দিকিী ভারতরে কলকাতায় এসে আত্মগোপনে চলে যান। এ অবস্থায় ১২ অক্টোবর ডাক ও টলেযিোগাযোগ এবং তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তমিন্ত্রী থকেে লতফি সদ্দিকিীর অপসারণ সংক্রান্ত ফাইলে রাষ্ট্রপতি স্বাক্ষর করার পর এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়।

একই দনি দলরে কন্দ্রেীয় র্কাযনর্বিাহী সংসদরে বঠৈকে তাকে আওয়ামী লীগ সভাপতমিণ্ডলীর পদ থকেে বহষ্কিার, প্রাথমকি সদস্যপদ স্থগতি এবং কনে তাকে দল থকেে স্থায়ীভাবে বহস্কিার করা হবে না- তা জানতে চয়েে কারণ র্দশানোর নোটশি পাঠানোর সদ্ধিান্ত নওেয়া হয়। নর্ধিারতি সময় পার হওয়ার আগইে লতফি সদ্দিকিী দলীয় সাধারণ সম্পাদক সয়ৈদ আশরাফুল ইসলাম বরাবর ই-মইেলে এর র্দীঘ জবাবও পাঠান। তবে দলরে কাছে তার ওই জবাব সন্তোষজনক না হওয়ায় ২৪ অক্টোবর আওয়ামী লীগরে কন্দ্রেীয় র্কাযনর্বিাহী সংসদরে বঠৈকে টাঙ্গাইল-৪ (কালহিাতী) আসন থকেে পাঁচবাররে নর্বিাচতি এই এমপকিে দল থকেে চূড়ান্তভাবে বহষ্কিার করা হয়।

গত ২৩ নভম্বের রাতে অনকেটা নাটকীয়ভাবইে দশেে ফরেনে লতফি সদ্দিকিী। প্রায় ৪১ ঘণ্টা ‘অজ্ঞাতবাস’-এর পর ২৫ নভম্বের দুপুরে রাজধানীর ধানমণ্ডি থানায় গয়িে আত্মসর্মপণ করনে তনি।ি পুলশি র্ধমীয় অনুভূততিে আঘাত দওেয়ার মামলায় গ্রফেতার দখেয়িে আদালতে হাজরি করলে আদালতরে আদশেে তাকে নওেয়া হয় ঢাকা কন্দ্রেীয় কারাগার।ে সখোনে গুরতর অসুস্থ হয়ে পড়লে কয়কেদনি পরই বঙ্গবন্ধু মডেকিলে হাসপাতালরে প্রজিন সলেে র্ভতি করা হয় তাক।ে