জীবনের শেষ রক্তবিন্দু দিয়ে হলেও মানুষের জন্য খাদেম হয়ে কাজ করে যাবো : এমপি বাবু


439 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
জীবনের শেষ রক্তবিন্দু দিয়ে হলেও মানুষের জন্য খাদেম হয়ে কাজ করে যাবো : এমপি বাবু
জানুয়ারি ১৫, ২০১৯ খুলনা বিভাগ ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

এস, এম, আলাউদ্দিন সোহাগ ::
হাজারো মানুষের ভালবাসায় সিক্ত হয়ে পাইকগাছা-কয়রা’র নবনির্বাচিত সংসদ সদস্য আলহাজ্ব আক্তারুজ্জামান বাবু বলেছেন, নির্বাচনী এলাকার মানুষের ঋণ কোন দিন শোধ হবার নয়। এলাকার মানুষ একদিকে প্রাণ ভরে ভোট দিয়ে আমাকে বিপুল ভোটে নির্বাচিত করেছেন, আবার নির্বাচন পরবর্তী অফুরন্ত ভালবাসায় সিক্ত করেছেন। আওয়ামী লীগের তরুণ এ সংসদ সদস্য বলেন, বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক হিসাবে সত্য ও সততার সাথে জীবনের শেষ রক্তবিন্দু দিয়ে হলেও মানুষের সেবক ও খাদেম হয়ে কাজ করে যাবো। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সহ এলাকার প্রয়াত সকল নেতাদের শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করে এমপি বাবু আরো বলেন, বর্তমান সরকারের সময়ে এলাকায় অনেক উন্নয়ন হয়েছে। তবে এখনো অনেক সমস্যা রয়ে গেছে। বিশেষ করে এলাকার বেড়িবাঁধ সংস্কার ও উপজেলা সদরে যাতায়াতের বিকল্প কোন রাস্তা নাই। পর্যায়ক্রমে এ সকল সমস্যার সমাধান করা হবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, এখন থেকে নির্বাচনী এলাকায় সব কিছু সঠিক নিয়মে পরিচালিত হবে। শৃংখলা ও সাংগঠনিক ভাবে দল যেমন পরিচালিত হবে, তেমনি প্রশাসনিক সকল কাজ দুর্নীতি মুক্ত হবে। তিনি প্রশাসনিক কর্মকর্তাদের প্রভুসুলভ আচারণ থেকে বেরিয়ে এসে সাধারণ মানুষের সাথে ভাল আচারণ করার আহ্বান জানিয়ে বলেন, ভূমি জটিলতার কারণে গ্রামের মানুষের ভোগান্তি হয়। এ ক্ষেত্রে ভূমি ব্যবস্থাপনা সহজ করতে হবে। প্রশাসনের কোথাও কোন দালাল-বাটপারদের স্থান নেই উল্লেখ করে নতুন এ সংসদ সদস্য আরো বলেন, এমপিওভুক্ত ও শিক্ষক নিয়োগ থেকে শুরু করে ভিজিডি সহ কোন প্রকল্পের কাজে দুর্নীতির কোন সুযোগ থাকবে না। প্রত্যেকটি ক্ষেত্রে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহীতা থাকতে হবে। মাদক ও দুর্নীতির ক্ষেত্রে জিরো টলারেন্স থাকবে উল্লেখ করে তিনি কবি গুরু রবীন্দ্রনাথ এর “যদি তোর ডাক শুনে কেউ না আসে, তবে একলা চলো রে, একলা চলো রে” জনপ্রিয় এই উক্তি ব্যক্ত করে বলেন, কেউ যদি আমার পাশে নাও থাকে, প্রয়োজনে একা চলবো তারপরও কোন অন্যায়ের সাথে নিজেকে আপোস করবো না বলে প্রত্যয় ব্যক্ত করেন। তিনি মঙ্গলবার বিকালে পাইকগাছা পৌরসভা মাঠে উপজেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত গণসংবর্ধনা অনুষ্ঠানে সংবর্ধিত অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন। অনুষ্ঠানে আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠন সহ প্রায় দেড় শতাধিক সামাজিক ও পেশাজীবী সংগঠনের পক্ষ থেকে এমপি বাবুকে সংবর্ধনা প্রদান করেন। উপজেলা আওয়ামী লীগের আহবায়ক গাজী মোহাম্মদ আলীর সভাপতিত্বে ও সদস্য সচিব মোঃ রশীদুজ্জামানের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার শেখ শাহাদাৎ হোসেন বাচ্চু, পৌর আওয়ামী লীগের আহবায়ক শেখ কামরুল হাসান টিপু, পৌর মেয়র সেলিম জাহাঙ্গীর, জেলা পরিষদ সদস্য আব্দুল মান্নান গাজী, নাহার আক্তার, অধ্যক্ষ মিহির বরণ মন্ডল, রবিউল ইসলাম, হাবিবুল্লাহ বাহার, আজাহার আলী, ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আব্দুল মজিদ গোলদার, রুহুল আমিন বিশ্বাস, কওছার আলী জোয়াদ্দার, কেএম আরিফুজ্জামান তুহিন, আইনজীবী সমিতির সভাপতি এ্যাডঃ অজিত কুমার মন্ডল, নাগরিক কমিটির সভাপতি মোস্তফা কামাল জাহাঙ্গীর, পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি সমীরণ সাধু, হিন্দু বৌদ্ধ ঐক্য পরিষদের সভাপতি রবীন্দ্রনাথ রায়, আওয়ামী লীগনেতা আনোয়ার ইকবাল মন্টু, যুগোল কিশোর দে, আলহাজ্ব মুনছুর আলী গাজী, ইকবাল হোসেন খোকন, আনন্দ মোহন বিশ্বাস, গাজী নজরুল ইসলাম, নির্মল অধিকারী, সুকৃতি মোহন সরকার, এসএম আয়ুব আলী, আরশাদ আলী বিশ্বাস, শিহাব উদ্দীন ফিরোজ বুলু, বিজন বিহারী সরকার, জিএম ইকরামুল ইসলাম, বিভূতি ভূষণ সানা, আবুল বাশার বাবুল সরদার, হেমেশ চন্দ্র মন্ডল, প্রভাষক ময়নুল ইসলাম, জেলা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এবিএম কামরুজ্জামান, ত্রাণ ও সমাজ কল্যান বিষয়ক সম্পাদক শেখ আনিছুর রহমান মুক্ত, প্রভাষক জিএম ফারুক হোসেন, এ্যাডঃ শিবু প্রসাদ সরকার, চিত্তরঞ্জন সরকার, শেখ আবুল কালাম আজাদ, উপজেলা মহিলা লীগের সভাপতি মাসুমা খাতুন, যুবলীগনেতা এসএম রেজাউল হক, এমএম আজিজুল হাকিম, কেডি বাবু, পরেশ মন্ডল, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি এসএম মসিয়ার রহমান, পৌর সভাপতি মাসুদ পারভেজ রাজু, রায়হান পারভেজ রনি, মহিলা নেত্রী ময়না বেগম, ফাতেমাতুজ্জোহরা রূপা, জুলি শেখ সহ বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ।

#