জয়ের সুযোগ হাতছাড়া উইন্ডিজের


80 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
জয়ের সুযোগ হাতছাড়া উইন্ডিজের
জুন ৭, ২০১৯ খেলা ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

অনলাইন ডেস্ক ::

’মোড়লের’ মসনদে ঘা দেওয়ার দারুণ এক সুযোগ পেয়ে যায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ। অতীত ঐতিহ্য ফেরাতে মুষ্ঠিবদ্ধ দলটি অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে শুরুতেই আক্রমণাত্মক ক্রিকেট খেলে। টস জিতে বোলিংয়ে নিয়ে অজি ব্যাটসম্যানদের ভিত নাড়িয়ে দেয়। সেই ধাক্কা সামলে ২৮৮ রানের পায় চ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়া। পরে বল করতে নেমে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে লক্ষ্যর আগে আটকে দেয় তারা। তুলে নেয় ১৫ রানের জয়। পায় আসরের টানা দ্বিতীয় জয়।

ট্রেন্ট ব্রিজের ঝলমলে রোদেলা দিনে টসে জিতে বোলিং নেয় ওয়েস্ট ইন্ডিজ। শেলডম কটরেল-ওসানে থমাস আগুন ঝরানো বোলিং শুরু করেন। শুরুর ৪ উইকেট তুলে নেন ৩৮ রানে। এরপর ৭৯ রানে ৫ উইকেট হারায় অজিরা। অস্ট্রেলিয়ার বোলারদেরও শুরুতে নতুন বলে ঠিক এভাবেই ধাক্কা দিতে হতো উইন্ডিজ শিবিরে। শুরুর ৩১ রানে ২ উইকেট তুলে নিয়ে অজিরা সেভাবেই শুরু করে। যদিও গেইলের আউট নিয়ে কথা আছে।

অস্ট্রেলিয়ার হয়ে শুরুর ধাক্কা সামলাতে স্টিভ স্মিথ এবং অ্যালেক্স কেরি এগিয়ে আসেন। তারা ৬৮ রানের জুটি গড়েন। কেরি ফিরে যান ৪৫ রান করে। তবে অস্ট্রেলিয়ার হয়ে দুর্দান্ত খেলেন কুল্টার নাইল। তার আগের সর্বোচ্চ ছিল মাত্র ৩৪ রান। এ ম্যাচে তিনি ৬০ বলে ৯২ রানের ক্যারিয়ার সেরা ইনিংস খেলেন। স্মিথের সঙ্গে গড়েন ১০২ রানের জুটি। দারুণ ব্যাটিং করেন স্মিথও। তিনি ১০৩ বলে ৭৩ রানের দারুণ এক ইনিংস খেলে কটরেলের দুর্দান্ত ক্যাচে পরিণত হয়ে ফেরেন।

ওয়েস্ট ইন্ডিজও শুরুতে উইকেট হারানোর পর টপ অর্ডারে শাই হোপ, মিডল অর্ডারে নিকোলাস পুরান এবং লোয়ার মিডল অর্ডারের জেসন হোল্ডাররা এগিয়ে আসেন। হোপ ৬৮ এবং পুরান ৪০ রানে আউট হন। অধিনায়ক হোল্ডার করেন ৫১ রান। তবে অস্ট্রেলিয়ার মতো একশ’ ছাড়ানো এক জুটি তাদের হয়নি। এমনকি পঞ্চাশ ছাড়ানো জুটিও তারা গড়তে পারেনি। শাই হোপ-নিকোলাস পুরান এবং হোপ-হেটমায়ার সমান ৪৮ রানের জুটি গড়েন। হোল্ডার এবং ব্রাথওয়েট গড়েন ৩৬ রানের জুটি। ঠিক এই জুটি বড় করতে না পারার কাছেই হারতে হয়েছে উইন্ডিজের।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের হয়ে এ ম্যাচে প্রতিপক্ষের দশ উইকেটই নেন পেসাররা। শেলডম কটরেল, ওসানে থমাস এবং আন্দ্রে রাসেল নেন দুটি করে উইকেট। একটু খরুচে বোলিং করে হলেও তিন উইকেট নেন কার্লোস ব্রাথওয়েট। অধিনায়ক জেসন হোল্ডার নেন এক উইকেট। অজিদের হয়ে মিশেল স্টার্ক ছিলেন দুর্দান্ত। তার ছোবল তোলা গতির কাছে পরাস্ত হয়ে পাঁচ উইকেট দেন উইন্ডিজ ব্যাটসম্যানরা। বাকি চার উইকেটের দুটি নেন প্যাট কামিন্স।