টানা ৬ দিন বন্ধ থাকার পর ভোমরা স্থলবন্দরে পণ্য খালাস শুরু


114 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
টানা ৬ দিন বন্ধ থাকার পর ভোমরা স্থলবন্দরে পণ্য খালাস শুরু
এপ্রিল ৭, ২০২১ ফটো গ্যালারি সাতক্ষীরা সদর
Print Friendly, PDF & Email

কর্মচাঞ্চল্য ফিরেছে এসেছে বন্দর ব্যবহারকারীদের মাঝে

আসাদুজ্জামান :
টানা ৬ দিন বন্ধ থাকার পর অবশেষে বুধবার বিকাল ৫ টা থেকে শুরু হয়েছে সাতক্ষীরার ভোমরা স্থলবন্দরে পন্য খালাসের কাজ। এর ফলে কর্মচাঞ্চল্য ফিরে এসছে বন্দর ব্যবহারকারীদের মাঝে। এর আগে গত মঙ্গলবার দুপুরে সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসক সম্মেলন কক্ষে বিষয়টি নিরসনের জন্য সিএন্ডএফ নেতাসহ বন্দর সংশ্লিষ্টরা আলোচনায় বসেন। আলোচনা ফলপ্রসু হয়। কিন্তু বন্দরের প্রশসনিক জটিলতার কারনে কিছুটা দেরীতে হলেও আবারও শুরু হয়েছে পন্য খালাসের কাজ। এদিকে, ভারতের ঘোজাডাঙ্গা এলাকায় অপেক্ষামান দীর্ঘ লাইনে দাড়িয়ে থাকা পন্যবাহি ট্রাক ভোমরা বন্দরে প্রবেশ করতে শুরু করেছে।

ব্যবসায়ীরা দু’বার লেবার বিল দিতে রাজী না হওয়ায় গত বৃহস্পতিবার থেকে বন্দরের শ্রমিকরা অনিদিষ্ কারের জন্য কাজ বন্ধ করে দেয়। ফলে বন্দরে অচল অবস্থার তৈরী হয়।

ভোমরা স্থলবন্দর সিএন্ডএফ এজেন্ট এ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান নাসিম বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, সাতক্ষীরা জেলা প্রশসকের সাথে ফলপ্রসু আলোচনা হলেও বন্দরের প্রশসনিক জটিলতার কারনে পন্যখালাসে বিলম্ব হওয়ার পর অবশেষে বিকাল ৫টা থেকে শুরু হয়েছে সকল প্রকার পন্য খালাসের কাজ। তিনি আরো বলেন, ব্যবসায়ীদের দাবী মোতাবেক এখন থেকে লেবার বিল আলাদা করে ঠিকাদারের হাতে না দিয়ে সরকারের রাজস্ব দিয়ে ব্যসায়ীরা আলাদা লেবার নিয়ে পন্য খালাসের কাজ করতে পারবেন।

ভোমরা শুল্ক স্টেশনের সহকারী কমিশনার আমির মাহমুদ জানান, লোবারদের মজুরী নিয়ে সৃষ্ট জটিলতা নিরসন হয়েছে। গত কয়েক দিনের অচল অবস্থার কারনে রাজস্ব আদায়ে বিরাট ক্ষতি হয়েছে এ বন্দরে। স্বাভাবিক অবস্থায় এ বন্দর দিয়ে প্রতিদিন প্রায় ৩ কোটি টাকার রাজস্ব আদায় হতো। তিনি আরো জানান, ভোমরা বন্দরে আমদানি রপ্তানি বন্ধ হয়ে যাওয়ায় শুক্রবার বাদে বাকী ৫ দিনে এ বন্দর থেকে সরকার প্রায় ৮ কোটি টাকার রাজস্ব হারিয়েছে।

#