ট্রাম্পের উসকে দেয়া উত্তেজনায়ই ইরানে বিমান বিধ্বস্ত : ট্রুডো


123 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
ট্রাম্পের উসকে দেয়া উত্তেজনায়ই ইরানে বিমান বিধ্বস্ত : ট্রুডো
জানুয়ারি ১৪, ২০২০ প্রবাস ভাবনা ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

অনলাইন ডেস্ক ::

ইরানের রাজধানী তেহরানের ইমাম খামেনি বিমানবন্দর থেকে উড্ডয়নের পরপরই ইউক্রেনের একটি যাত্রীবাহী বিমান বিধ্বস্ত হয়ে নিহত হয়েছে ১৭৬ জন। ট্রাম্পের উসকে দেয়া উত্তেজনায়ই ইরানের ক্ষেপণাস্ত্রের আঘাতে ইউক্রেনের বিমান বিধ্বস্ত হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো।

সোমবার গ্লোবাল টেলিভিশনে দেয়া এক সাক্ষাতকারে এসব কথা বলেন ট্রুডে।
তিনি আরও বলেন, সাম্প্রতিক যুক্তরাষ্ট্র যদি কিছুটা উত্তেজনা উসকে না দিত তবে ইরানের ক্ষেপণাস্ত্রে বিধ্বস্ত বিমানের যাত্রীরা আজও বেঁচে থাকতেন।

জাস্টিন ট্রুডো বলেন, আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের কাছে আজ খুবই পরিষ্কার যে একটি পরমাণু অস্ত্রবিহীন ইরান যেমন দরকার, তেমনি আঞ্চলিক উত্তেজনাও নিয়ন্ত্রণে রাখা উচিত। সাম্প্রতিক এই উত্তেজনা যুক্তরাষ্ট্রের পদক্ষেপের মাধ্যমেও ডেকে আনা হয়েছে বলেও মন্তব্য করেছেন কানাডীয় প্রধানমন্ত্রী।

তেহরান থেকে উড্ডয়নের পরে ইরানি ক্ষেপণাস্ত্রের আঘাতে ইউক্রেনের আন্তর্জাতিক এয়ারলাইনসের বোয়িং ৭৩৭ বিধ্বস্ত হয়। এতে বিমানটির ১৭৬ যাত্রীর সবাই নিহত হয়েছেন, যাতে ৫৭ কানাডীয়ও রয়েছেন।

প্রসঙ্গত, গত ৩ জানুয়ারি ইরাকের রাজধানী বাগদাদে মার্কিন ড্রোন হামলায় ইরানের সবচেয়ে প্রভাবশালী জেনারেল কাসেম সোলেইমানি নিহত হন। এরপর থেকেই ইরান-মার্কিন উত্তেজনা নতুন উচ্চতায় চলে যায়। জবাবে ইরাকে মার্কিন ঘাঁটিতে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালিয়েছে ইরান। কিন্তু কয়েক ঘণ্টা পরে ইরানের বিপ্লবী গার্ডের একটি ইউনিট ভুলবশত গুলি করে ইউক্রেনের যাত্রীবাহী বিমানটি গুলি করে বিধ্বস্ত করলে এ ঘটনা ঘটে।