ডিআইজি মিজানের বিরুদ্ধে ‘নন সাবমিশন’ মামলা হতে পারে


372 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
ডিআইজি মিজানের বিরুদ্ধে ‘নন সাবমিশন’ মামলা হতে পারে
মে ৭, ২০১৮ জাতীয় ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

অনলাইন ডেস্ক ::
অনুসন্ধান কাজে অসহযোগিতার অভিযোগে পুলিশের ডিআইজি মিজানুর রহমানের বিরুদ্ধে ‘নন সাবমিশন’ মামলা হতে পারে। সোমবার সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ কথা জানান দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) সচিব ড. মো. শামসুল আরেফিন।

রাজধানীর সেগুনবাগিচায় দুদকের প্রধান কার্যালয়ে নিজের অফিস কক্ষে তিনি সাংবাদিকদের সঙ্গে অনানুষ্ঠানিকভাবে কথা বলেন।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে সচিব আরও বলেন, অনুসন্ধানের স্বার্থে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র চেয়ে ডিআইজি মিজানুরের কাছে চিঠি পাঠানো হয়েছিল। তাকে গত রোববার ওইসব নথিপত্র জমা দেওয়ার কথা বলা হলেও তিনি যথাসময়ে তা জমা দেননি। ধারাবাহিকভাবে অনুসন্ধান কাজে আরও অসহযোগিতা করা হলে দুদক আইনের ১৯(৩) ধারায় তার বিরুদ্ধে নন সাবমিশন মামলা করা হতে পারে।

তার বিরুদ্ধে ক্ষমতার অপব্যবহার করে প্রায় শত কোটি টাকার অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগ অনুসন্ধান করছেন দুদক উপ পরিচালক ফরিদ আহমেদ পাটোয়ারি। এই অভিযোগে গত ৩ এপ্রিল তাকে দুদকের প্রধান কার্যালয়ে টানা সাড়ে সাত ঘণ্টা জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়।

ওইদিন জিজ্ঞাসাবাদ শেষে সাংবাদিকদের মিজানুর রহমান বলেছিলেন, ট্যাপ ফাইলের (আয়কর রিটার্ন) বাইরে তার নামে কোন সম্পদ নেই।

পুলিশের উচ্চ পদে থেকে তদবির, নিয়োগ, বদলিসহ নানা অনিয়ম, দুর্নীতির মাধ্যমে প্রায় শত কোটি টাকার জ্ঞাত আয়বহির্ভুত সম্পদ অর্জনের অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে। অভিযোগটির অনুসন্ধান শুরু হয় গত ৪ জানুয়ারি।

অস্ত্রের মুখে মরিয়ম ইকো নামের এক নারীকে তুলে নিয়ে বিয়ে করা ও নির্যাতনের অভিযোগে ঢাকা মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনারের (ডিআইজি) দায়িত্বে থাকা মিজানুর রহমানকে প্রত্যাহার করে পুলিশ সদর দফতরে ন্যাস্ত করা হয় গত ৯ জানুয়ারি।