‘ডিসমিস’ হতে পারেন সাবেক ডিসি আহমেদ কবীর


434 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
‘ডিসমিস’ হতে পারেন সাবেক ডিসি আহমেদ কবীর
আগস্ট ২৬, ২০১৯ জাতীয় ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

অনলাইন ডেস্ক ::

জামালপুরের সাবেক জেলা প্রশাসক (ডিসি) আহমেদ কবীরের বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত হলে তাকে চাকরিচ্যুত করা হতে পারে বলে জানিয়েছেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম।

সোমবার সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদের নিয়মিত বৈঠক শেষে ব্রিফ করার সময় সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা জানান।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, ‘জামালপুরের সাবেক ডিসি আহমেদ কবীরের বিরুদ্ধে অভিযোগ তদন্তে সরকার গঠিত কমিটি কাজ শুরু করেছে। অভিযোগ প্রমাণিত হলে তাকে চাকরি থেকে ডিসমিস করা হতে পারে। আবার পদাবনতিও হতে পারে। কোনও ধরনের ঢিলেমি হওয়ার সুযোগ নেই। অভিযোগ প্রমাণিত হলে গুরুদণ্ড হবে।’

তিনি বলেন, ‘আমরা কমিটি করে দিয়েছি। কমিটি দেখবে। কমিটি নিরপেক্ষভাবে দেখবে এবং টেকনিক্যালি এটার মধ্যে যদি কোনো ম্যানিপিউলেশন থাকে, সেটাও যাচাই করা হবে টেকনিক্যাল এক্সপার্ট দিয়ে। এ জন্য এক্সপার্ট রাখা হয়েছে। যদি দোষী সাব্যস্ত হয় তাহলে আইনানুগভাবে শাস্তি হবে।’

প্রসঙ্গত, নারী অফিস সহকারীর সঙ্গে আপত্তিকর ভিডিও ভাইরালের ঘটনায় আহমেদ কবীরকে বিশেষ ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওএসডি) করে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ে যুক্ত করা হয়েছে।

পাশাপাশি আহমেদ কবীরের ঘটনা তদন্তে ৫ সদস্যের একটি কমিটি গঠন করেছে সরকার। এই কমিটিকে আগামী ১০ কার্যদিবসের মধ্যে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে।